শিরোনাম
প্রকাশ : ৭ আগস্ট, ২০২০ ১০:৩০
আপডেট : ৭ আগস্ট, ২০২০ ১২:৪১

২০১৮’র অক্টোবরে সুশান্তের ব্যাংকে ছিল ৩০ কোটি রুপি, অতঃপর...

অনলাইন ডেস্ক

২০১৮’র অক্টোবরে সুশান্তের ব্যাংকে ছিল ৩০ কোটি রুপি, অতঃপর...
'সুশান্ত কোনওদিনই দরজা বন্ধ করে ঘুমতে যেত না। তাই সুশান্তের মৃত্যুর পর যখন ওর ঘর ভিতর থেকে বন্ধ ছিল জানতে পারলাম তখন অবাকই হয়েছিলাম।'' জি নিউজকে দেয়া সাক্ষাৎকারে সম্প্রতি এমনই তথ্য সামনে আনলেন সুশান্তের সহকারী অঙ্কিত আচার্য। এখানেই শেষ নয়, আরও বেশকিছু বিস্ফোরক তথ্য প্রকাশ্যে এনেছেন অঙ্কিত। 
 
অঙ্কিত আচার্যের কথায়, ২০১৮’র অক্টোবরে সুশান্তের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে ৩০ কোটি রুপি ছিল। এটা আমি জানি, কারণ আমি নিজেই সেটা দেখেছিলাম। ২০১৯-এর জুলাই মাসে ব্যক্তিগত কিছু কারণে আমি ছুটি নিয়েছিলাম। তারপর যখন কাজে ফিরি আমাকে আর রাখা হয়নি। জানতে পারি রিয়া সুশান্তের সমস্ত পুরনো কর্মীদের বদলে দিয়েছিলেন। আমাকেও চলে যেতে বলা হয়েছিল।
 
অঙ্কিতের কথায়, সুশান্ত ভাই মানুষ হিসাবে অসাধারণ, একেবারেই সাধারণ জীবনযাপন করতেন। অনেক সময় সুশান্ত ভাই নিজেও রুটি বানাতেন। আমি ওনার সঙ্গে তিন বছর ছিলাম, আমি জানি, সুশান্ত ভাই কখনওই আত্মহত্যা করতে পারেন না। আমি থাকাকালীন ওনাকে কোনওদিন মানসিক অবসাদের জন্য ওষুধ খেতে দেখিনি, উনি শুধু প্রোটিন শেক আর ক্যালসিয়াম ট্যাবলেট খেতেন।
 
উল্লেখ্য, সুশান্তকে নিজের সুবিধায় ব্যবহার করে বলিউডে জায়গা করে নিতে চেয়েছিলেন রিয়া চক্রবর্তী বলে অভিযোগ রয়েছে। এমনকি সুশান্তের ব্যবসাসহ সব বিষয় তদারকি করতেন রিয়া ও তার ভাই। রিয়া চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে আত্মহত্যায় প্ররোচনা, অপরাধমূলক ষড়যন্ত্র, চুরি, প্রতারণা, জোর করে আটকে রাখা ও ভয় দেখানোর অভিযোগ আনা হয়েছে।
 
বিডি-প্রতিদিন/শফিক

আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর