শিরোনাম
প্রকাশ : সোমবার, ৬ জুলাই, ২০১৫ ০০:০০ টা
আপলোড : ৬ জুলাই, ২০১৫ ০০:০০

মোবারক মাহে রমজান

হে আল্লাহ বিনীত জীবন দান করুন

মাওলানা সেলিম হোসাইন আজাদী

হে আল্লাহ বিনীত জীবন দান করুন

মানব সৃষ্টির মৌলিক উদ্দেশ্য হলো আল্লাহর ইবাদত। আর ইবাদতের দাবি হলো মানুষ পৃথিবীতে আসার পর থেকে সকাল-সন্ধ্যা জীবনের প্রতিটি মুহূর্ত আল্লাহর ইবাদতে কাটাবে। কারণ আল্লাহতায়ালা বলেছেন, আল্লাহতায়ালা মুমিনদের থেকে তাদের জান ও মাল ক্রয় করে নিয়েছেন এই শর্তে যে, তাদের জন্য রয়েছে জান্নাত। (সূরা তাওবা-১১১) আল্লাহ মহান জান্নাতের বিনিময়ে আমাদের জীবন ও সম্পদ ক্রয় করে নিয়েছেন। এই জীবন যেহেতু আমাদের নয়, আবার আমাদের সৃষ্টিও করেছেন আল্লাহ তাঁর ইবাদতের জন্য। এ অবস্থায় আল্লাহ যদি বলতেন, তোমরা শুধু আমার ইবাদত-বন্দেগি ছাড়া অন্য কোনো কাজ করতে পারবে না। আয়-উপার্জন, পানাহার কিছুই করা যাবে না, তাহলে তো এটা খুবই যৌক্তিক ছিল। কিন্তু দয়াময় মাবুদ আমাদের জীবন ও সম্পদ ক্রয় করার পরও তা আবার আমাদের কাছে ফিরিয়ে দিয়েছেন। বলেছেন নাও তোমার জীবন তুমিই ব্যবহার কর, তবে এটা ওটা কর, সেটা কর না বলে একটি নির্দেশ আরোপ করে দিয়েছেন। আল্লাহও জানতেন যে, বান্দা যখন জীবন ও সম্পদের পেছনে ছুটবে তখন তার অন্তর পাপের কালো পর্দায় ঢেকে যাবে। সে ভুলে যাবে তার জীবনের উদ্দেশ্য, সে ভুলে বসবে এই জীবন যে তার নয়। আল্লাহ রাব্বুল আলামিন বান্দাকে তার জীবনের প্রকৃত উদ্দেশ্যে ফিরিয়ে নিতে দান করেছেন রমজান। সুফিদের মতে বান্দা যদি রমজানে আল্লাহর রসুলের একটি হাদিসের ওপর আমল করতে পারে তাহলে সে তার জীবনের মৌলিক উদ্দেশ্য সাধনে শতভাগ সফল হতে পারবে। হাদিসটি হলো- হজরত আবদুল্লাহ ইবনে ওমর (রা.) থেকে বর্ণিত রসুল (সা.) বলেছেন, চারটি গুণ এমন রয়েছে, যদি তা তোমাদের মধ্যে এসে যায় তাহলে তুমি দুনিয়ার কোনো নেয়ামত না পেলেও তোমার কোনো দুঃখ হওয়া উচিত নয়। এ চারটি গুণ হলো- ১. আমানত সংরক্ষণ করা ২. সত্য কথা বলা ৩. সচ্চরিত্রতা অবলম্বন করা ৪. পবিত্র খাবার গ্রহণ করা। কোরআন-হাদিসের বহু স্থানে আমানত সংরক্ষণের প্রতি বিশেষভাবে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। কোরআনের ভাষায়, নিশ্চয় আল্লাহ তোমাদের আমানতগুলোকে তার প্রাপকের কাছে দিয়ে দিতে নির্দেশ করেছেন। (সূরা নিসা) হাদিসে পাকে আল্লাহ আমানতের খেয়ানতকে মুনাফেকের চরিত্র বলে আখ্যায়িত করেছেন। অর্থাৎ এটি এমন গুণ যা পালন না করলে প্রকৃত মুসলমান হওয়া যায় না। মিথ্যাবাদীর ওপর আল্লাহ ও আল্লাহর রসুলের অভিশাপ রয়েছে। একটি জাতির ধ্বংসের জন্য একজনের একটি মিথ্যা কথাই যথেষ্ট। সচ্চরিত্র হচ্ছে মুমিনের পোশাক। আল্লাহর রসুল (সা.) বলেন, আমি তোমাদের মধ্যে প্রেরিত হয়েছি চারিত্রিক সৌন্দর্যের চূড়ান্ত বিকাশের জন্য। (বুখারি) হারাম খাদ্য বর্জন করতে হবে। হাদিসে এসেছে, যে হারাম খায় তার কোনো ইবাদত কবুল হয় না। হাদিসটির প্রতি লক্ষ্য করলে দেখা যায়, আমাদের দৈনন্দিন জীবনকে সুন্দর ও সঠিক পথে পরিচালনা করার যাবতীয় উপকরণ রয়েছে এতে। রমজান মাস যেহেতু সাধনার মাস, সিয়াম সাধনার পাশাপাশি আমরা যদি এই চারটি গুণ সাধনা করে অর্জন করতে পারি তাহলে আল্লাহ রাব্বুল আলামিন নিশ্চয় আমাদের সঠিক পথের সন্ধান দেবেন। আমাদের ক্ষমা আর মুক্তির সনদে সম্মানিত করবেন।
আসুন এবারের সিয়াম থেকে সেই প্রতিজ্ঞা করি। জীবনভর আমরা হালাল উপার্জন করব এবং হারাম পথ বর্জন করব। হে আল্লাহ আমাদের জীবন সহজ করে দিন।
লেখক : বিশিষ্ট মুফাচ্ছিরে কোরআন ও গণমাধ্যম ব্যক্তিত্ব


আপনার মন্তব্য

Bangladesh Pratidin

Bangladesh Pratidin Works on any devices

সম্পাদক : নঈম নিজাম,

নির্বাহী সম্পাদক : পীর হাবিবুর রহমান । ইস্ট ওয়েস্ট মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের পক্ষে ময়নাল হোসেন চৌধুরী কর্তৃক প্লট নং-৩৭১/এ, ব্লক-ডি, বসুন্ধরা আবাসিক এলাকা, বারিধারা, ঢাকা থেকে প্রকাশিত এবং প্লট নং-সি/৫২, ব্লক-কে, বসুন্ধরা, খিলক্ষেত, বাড্ডা, ঢাকা-১২২৯ থেকে মুদ্রিত। ফোন : পিএবিএক্স-০৯৬১২১২০০০০, ৮৪৩২৩৬১-৩, ফ্যাক্স : বার্তা-৮৪৩২৩৬৪, ফ্যাক্স : বিজ্ঞাপন-৮৪৩২৩৬৫। ই-মেইল : [email protected] , [email protected]

Copyright © 2015-2020 bd-pratidin.com