শিরোনাম
প্রকাশ : সোমবার, ১২ জুন, ২০১৭ ০০:০০ টা
আপলোড : ১১ জুন, ২০১৭ ২২:৪২

সৌদি পুলিশ গুলি করে হত্যা করল দুই বাংলাদেশিকে

কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি

সৌদি আরবের দাম্মামে আলকাতিফ এলাকায় পুলিশের গুলিতে দুই বাংলাদেশি নিহত হয়েছেন। তাদের বাড়ি কিশোরগঞ্জের ভৈরবে। গত ৬ জুন সৌদি আরব সময় রাত সাড়ে ১০ টার দিকে এ গুলির ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন শাহ পরাণ (২৮) ও শামীম (৪০)।

নিহতের ভাই ভৈরবের বাড়িতে থাকা বোরহান জানান, ওইদিন রাতে কাজ শেষ করে গাড়ি নিয়ে বাসায় ফিরছিলেন শাহ পরাণ, শামীম ও মাহবুব। কিন্তু তারা জানতেন না আলকাতিফ এলাকায় শিয়া ও সুন্নি সম্প্র্রদায়ের মধ্যে সংঘর্ষের কারণে কারফিউ জারি ছিল। তাদের গাড়ি ওই এলাকায় প্রবেশ করা মাত্র পুলিশ গুলি চালায়। পরে গুলিবিদ্ধ শামীম, শাহ পরাণ ও মাহবুবকে উদ্ধার করে দাম্মামের আবুমি হাসপাতালে নিয়ে গেলে শামীম ও শাহ পরাণকে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। গুরুতর আহত মাহবুব বর্তমানে ওই হাসপাতালেই চিকিৎসাধীন রয়েছেন। পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, নিহতরা পরস্পর আত্মীয়। শামীম সেখানে একা থাকলেও শাহ পরাণরা চারভাই থাকেন দাম্মামে। অপর তিন ভাই হলেন জাফরান, মিজান ও ইমরুল কায়েস। দাম্মাম থেকে মোবাইল ফোনে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন জাফরান। তিনি জানান, ৬ জুন থেকে তাদের কোনো খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল না। পরে আহত মাহবুব টেলিফোনে পরিবারের কাছে এ খবর দিলে বিষয়টি জানাজানি হয়। নিহত শাহ পরাণ ভৈরব পৌর এলাকার চণ্ডিবের গ্রামের বুদাই বেপারির বাড়ির নূরু মিয়ার ছেলে এবং শামীম একই এলাকার মৃত সুরুজ মিয়ার ছেলে। আহত মাহবুবের বাড়ি উপজেলার শিবপুর ইউনিয়নের ছনছাড়া গ্রামে। শাহ পরাণের ছোট ভাই বোরহান তার ভাইয়ের লাশ দেশে ফেরত আনতে সরকারের সহায়তা কামনা করেছেন। জানা গেছে, এ ঘটনা জানার পর দুই পরিবারে চলছে আহাজারি। মর্মান্তিক এ খবরে সবাই হতবাক হয়ে পড়েছেন।


আপনার মন্তব্য