শিরোনাম
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ১৭ মে, ২০১৮ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৬ মে, ২০১৮ ২২:৫৭

প্রতিক্রিয়া

প্রত্যাখ্যান সংসদ ভোটেও : কাদের

নিজস্ব প্রতিবেদক

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, খুলনা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে জনগণের রায়কে যারা প্রত্যাখ্যান করেছে, আগামী জাতীয় নির্বাচনেও জনগণ তাদেরকে প্রত্যাখ্যান করবে। গতকাল বিকালে আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর ধানমন্ডির কার্যালয়ে দলের পক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন। প্রধান নির্বাচন কমিশনারের (সিইসি) পদত্যাগ দাবি নিয়ে বিএনপির বক্তব্যের বিষয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘সিইসি, এটা তো সার্চ কমিটির মাধ্যমে হয়েছে। এখানে তো বিএনপিরও অংশগ্রহণ ছিল। কাজেই এ ধরনের দাবি মামা বাড়ির আবদার ছাড়া আর কিছুই নয়।’ বিএনপির খুলনা সিটির নির্বাচনী ফলাফল প্রত্যাখ্যান প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘কত পার্সেন্ট ভোট, এটা তো গেজেট হয়ে গেছে। এটা তো আমাদের বানানো বা সাজানো কোনো বিষয় নয়।’ বিএনপি প্রার্থীর পাওয়া ভোটের সংখ্যা তুলে ধরে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘তারপরও তো তারা মানছে না। মানি না, মানব না। নির্বাচন যদি ফ্রি ফেয়ার না হতো তাহলে কি এত ভোট বিএনপি পেত? আপনারা সাংবাদিকরাও ছিলেন, কোথায় হস্তক্ষেপ হয়েছে? কোথায় কেন্দ্র দখল হয়েছে? কোথায় ভোট জালিয়াতি হয়েছে?’ সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক, আবদুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন, মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, দফতর সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপ, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সম্পাদক আবদুুস সবুর, মুক্তিযুদ্ধ সম্পাদক মৃণাল কান্তি দাস, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ, উপ দফতর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া প্রমুখ।

এর আগে গতকাল সকালে রাজধানীর মিরপুরে মনিপুর স্কুল অ্যান্ড কলেজের এক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে দুর্নীতি মামলায় দণ্ডিত বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়া আপিল বিভাগ থেকে জামিন পাওয়ার প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, বাংলাদেশের বিচার ব্যবস্থা যে স্বাধীন, আপিল বিভাগের জামিনের রায়ে তা আবারও প্রমাণিত হলো। তিনি বলেন, আদালত সাজা দিয়েছে, আদালত জেলে পাঠিয়েছে, আদালতই তাকে জামিন দিয়েছে। সেখানে আমাদের বলার কিছু নাই। তবে দুর্নীতির বিরুদ্ধে আমাদের অবস্থানের পরিবর্তন হবে না। মনিপুর স্কুল অ্যান্ড কলেজের গভর্নিং বডির সভাপতি অধ্যাপক রাশেদা আক্তারের সভাপতিত্বে আরও বক্তব্য রাখেন স্থানীয় সংসদ সদস্য কামাল আহম্মেদ মজুমদার।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর