Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ১০ জুলাই, ২০১৮ ০০:০০ টা
আপলোড : ৯ জুলাই, ২০১৮ ২৩:১২

স্বপ্ন ক্রোয়েশিয়ার

ক্রীড়া প্রতিবেদক

স্বপ্ন ক্রোয়েশিয়ার

ইংলিশ প্রধানমন্ত্রী তেরেসা মে যদি আগামীকাল উপস্থিত হন মস্কোর লুঝনিকি স্টেডিয়ামে, তাহলে আয়োজক রাশিয়ার নিরাপত্তা বাহিনীর কি হাল হবে? ইংলিশ প্রধানমন্ত্রীকে সর্বোচ্চ নিরাপত্তা দিতে গলদঘর্ম অবস্থা হবে কোনো সন্দেহ নেই। অথচ ক্রোয়েশিয়ার রাষ্ট্রপতি কোলিন্দা গ্রাবার কিতারোভিচ আবার এসব নিরাপত্তার ধার ধারছেন না। মডরিচ, রাকিতিচ, মানজুকিজদের খেলা দেখতে, উৎসাহ দিতে উপস্থিত থাকছেন স্টেডিয়ামে। আঁটোসাঁটো নিরাপত্তা ব্যবস্থার খোলশে নিজেকে বেঁধে না রেখে দলের সাফল্যে উচ্ছ্বসিত হচ্ছেন। আনন্দ প্রকাশ করছেন সমর্থকদের মতোই। রাষ্ট্রপতির এমন বাঁধভাঙা সমর্থন, উৎসাহপূর্ব ইউরোপের ছোট্ট দেশটির অন্যতম প্রেরণা এবারের বিশ্বকাপে। রাষ্ট্রপতির এমন উন্মাতাল সমর্থন ও উৎসাহ নিয়ে ক্রোয়েশিয়া আগামীকাল ইংল্যান্ডের মুখোমুখি হচ্ছে ফাইনালে ওঠার। বিশ্বকাপের শুরু থেকে গতিশীল ফুটবল খেলে সেমিতে জায়গা নেওয়া ক্রোয়েশিয়া চাইছে আরও বড় কিছু। স্বপ্ন দেখছে প্রথমবারের মতো বিশ্বসেরা হওয়ার।

ইংল্যান্ড ১৯৬৬ সালের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন। ক্রোয়েশিয়া বিশ্বকাপই খেলছে ১৯৯৮ সাল থেকে। যুগোস্লাভিয়া ভেঙে ক্রোয়েশিয়ার জন্ম। বিশ্বকাপে প্রথমবারের মতো খেলতে নেমেই বাজিমাত করেছিলেন ডেভর সুকার, বোবানরা। সেমিফাইনালে জায়গা নিয়ে প্রমাণ দিয়েছিলেন শক্তিমত্তার। অথচ পরের চার আসরে দলটির পারফরম্যান্স আহামরি কিছু ছিল না। অংশগ্রহণেই সীমাবদ্ধ ছিল বিশ্বকাপ। এবার শুরু থেকেই মডরিচ, রাকিচিতরা দুরন্ত ফুটবল খেলে পেছনে ফেলে লিওনেল মেসির আর্জেন্টিনাকে। আর্জেন্টিনার পর দ্বিতীয় দল হিসেবে টানা দুই ম্যাচে টাইব্রেকারে জিতে জায়গা নিয়েছে সেমিফাইনালে। নকআউট পর্বে সাবেক ইউরো চ্যাম্পিয়ন ডেনমার্ককে বিদায় করে টাইব্রেকারে। কোয়ার্টার ফাইনালে টাইব্রেকারে ছিটকে দেয় স্বাগতিক রাশিয়াকে। দুই দুটি ম্যাচ টাইব্রেকারে জিতে ক্রোয়েশিয়া এখন স্বপ্ন দেখছে প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপ জেতার। একটি দল হয়ে খেললেও ক্রোয়েশিয়ার ‘নিওক্লিয়াস’ লুকা মডরিচ। রিয়াল মাদ্রিদের পক্ষে টানা তিনটি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির জয়ের অন্যতম নায়ক মডরিচ অসাধারণ খেলছেন বিশ্বকাপে। গোল করছেন নিজে এবং গোল করাচ্ছেন অন্যদের দিয়ে। এখন পর্যন্ত দলটির পাঁচ ম্যাচের তিনটিরই ম্যাচসেরা হয়ে এখন ‘গোল্ডেন বল’ জেতার লড়াইয়ে রয়েছেন। মডরিচ জানেন তিনি রেসে রয়েছেন। কিন্তু তার ভাবনায় শুধুই দলের সাফল্য, ‘আমি গোল্ডেন বল নিয়ে ভাবছি না। দলের সাফল্যই আমার সব। আমরা এবার আরও বড় কিছুর স্বপ্ন দেখছি।’ ক্রোয়েশিয়া এবার স্বপ্ন দেখতেই পারে। স্বপ্ন দেখছে ব্রাজিল, জার্মানি, ইতালি, আর্জেন্টিনা, ফ্রান্স, স্পেনের পাশে নাম লেখাতে।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর