শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ১৩ এপ্রিল, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১২ এপ্রিল, ২০১৯ ২২:৫৬

শোকের ভাষা প্রতিবাদ

নিজস্ব প্রতিবেদক

শোকের ভাষা প্রতিবাদ

ফেনীর সোনাগাজী ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসার শিক্ষার্থী নুসরাত জাহান রাফিকে আগুনে পুড়িয়ে হত্যার ঘটনায় শোকে বিহ্বল সারা দেশ। মাদ্রাসার অধ্যক্ষসহ একটি সংঘবদ্ধ চক্রের নির্মম নৃশংসতার বলি রাফি হত্যার প্রতিবাদ জানাচ্ছে সারা দেশের মানুষ। মানুষের শোক ও সন্তাপ প্রতিবাদের ভাষা হয়ে ছড়িয়ে পড়ছে সর্বত্র। রাজধানীসহ সারা দেশে প্রতিবাদ সভা, সমাবেশে এই নারকীয় হত্যাকাণ্ডে জড়িত অপরাধীদের দ্রুত বিচারের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানানো হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গতকাল গণভবনে আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামণ্ডলীর সভায় বলেছেন, নুসরাতের ঘটনার সঙ্গে জড়িতরা কেউ ছাড় পাবে না। তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেওয়া হবে। জড়িতদের দ্রুত বিচার চেয়ে পদযাত্রা করেছে ‘গৌরব ৭১’। গতকাল সকালে ‘যৌন নিপীড়ন ও ধর্ষণবিরোধী পদযাত্রা’ শীর্ষক পদযাত্রাটি রাজধানীর শাহবাগ থেকে শুরু হয়ে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে যায়। এদিকে নুসরাত হত্যার প্রতিবাদে আজ বেলা ১১টা থেকে ১২টা পর্যন্ত বিভিন্ন দল, সংগঠন ও ব্যক্তি ঢাকায় ‘গণভবন থেকে বঙ্গভবন’-এর পথে পথে প্রতিবাদী মানববন্ধন, অবস্থান ও বিক্ষোভ করবে। এ ছাড়া দেশের বিভিন্ন জেলা-উপজেলায়ও একই সময় অবস্থান, বিক্ষোভ হবে। দ্রুত বিচার চেয়ে পদযাত্রা : নুসরাত জাহান রাফি হত্যার দ্রুত বিচার চেয়ে পদযাত্রা করেছে মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক সংগঠন ‘গৌরব ৭১’। সকালে ‘যৌন নিপীড়ন ও ধর্ষণবিরোধী পদযাত্রা’ শীর্ষক পদযাত্রাটি রাজধানীর শাহবাগ থেকে শুরু হয়ে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে শেষ হয়। এতে অংশ নেয় পূর্ণিমা ফাউন্ডেশন ও চেতনা পরিষদ নামের আরও দুটি সংগঠন ছাড়াও বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার অসংখ্য মানুষ। আগামী সাত দিনের মধ্যে এ হত্যাকাণ্ডের বিচার না হলে জাতীয় সংসদ অভিমুখে পদযাত্রার ঘোষণা দেওয়া হয়। এর আগে পদযাত্রার শুরুতে নুসরাতের হত্যাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ সামাদ বলেন, ‘একাত্তরের জামায়াত নেতাদের সহযোগী অধ্যক্ষ সিরাজ-উদ-দৌলার মতো ব্যক্তিরা আজও আমাদের সমাজে উপস্থিত। এমন ঘটনা দেখে আমরা শিউরে উঠি। এ ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের বিচারের পাশাপাশি এদের আশ্রয়দাতাদেরও বিচার করতে হবে।’ সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি গোলাম কুদ্দুস বলেন, ‘অপরাধের শাস্তি নিশ্চিত করতে হলে প্রচলিত আইনে এটি সম্ভব নয়। এজন্য বিশেষ ট্রাইব্যুনাল গঠন করতে হবে। বিশেষ ট্রাইব্যুনাল গঠন করে বিচারের প্রক্রিয়া শেষ করে অপরাধীর শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে।’ পদযাত্রায় আরও বক্তব্য দেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক রোবায়েত ফেরদৌস, জিটিভির এডিটর ইন চিফ সৈয়দ ইশতিয়াক রেজা, গণজাগরণ মঞ্চের নেতা বাপ্পাদিত্য বসু, পূর্ণিমা ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান পূর্ণিমা রানী শীল, চেতনা ৭১-এর সাধারণ সম্পাদক এফ এম শাহীন, চেতনা পরিষদের সভাপতি জাহিদ সোহেল, রোকেয়া হল সংসদের জিএস শায়লা ইসলাম, এজিএস ফাল্গুনী দাস তন্বী, চিত্র পরিচালক হাবিবুল ইসলাম হাবিব প্রমুখ। মাদ্রাসা ও স্থানীয় প্রশাসন সতর্ক হলে এ ঘটনা ঘটত না : ফেনী প্রতিনিধি জানান, গতকাল দুপুরে নুসরাত জাহান রাফি হত্যার ঘটনাস্থল সোনাগাজী ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসা পরিদর্শন করেছেন জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের পরিচালক (অভিযোগ ও তদন্ত) আল মাহমুদ ফয়জুল কবির। তিনি ঘটনাস্থলের বিভিন্ন মানুষের সঙ্গে কথা বলে সাক্ষ্য নেন। পরে সাংবাদিকদের বলেন, ২৭ মার্চের ঘটনাটির জন্য মাদ্রাসা প্রশাসন ও স্থানীয় প্রশাসন সতর্ক হলে ৬ এপ্রিলের এ ঘটনা ঘটত না। সাক্ষীদের দেওয়া তথ্য থেকে তিনি নিশ্চিত যে, রাফি হত্যার ঘটনায় মাস্টারমাইন্ড অধ্যক্ষ সিরাজ-উদ-দৌলা। এর আগেও এই অধ্যক্ষ ছাত্রীদের সঙ্গে অশোভন আচরণ করেছেন তার প্রমাণ তিনি পেয়েছেন। বগুড়ায় মানববন্ধন : বগুড়ায় সকালে শহরের সাতমাথায় ‘আমরা কৃষকের সন্তান’ বগুড়া জেলা শাখার উদ্যোগে এ মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়। সিলেটে আলেমদের মানববন্ধন : ফেনীর মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাত জাহান রাফি হত্যা ও কক্সবাজারে মাদকবিরোধী বক্তব্য দেওয়ায় মসজিদের ইমামকে নির্যাতনের প্রতিবাদে সিলেটে মানববন্ধন করেছেন আলেমরা। বাদ জুমা সিলেট নগরের কোর্ট পয়েন্টে সচেতন আলেমসমাজের ব্যানারে এ মানববন্ধন পালিত হয়। টাঙ্গাইলে মানববন্ধন : রাফিকে আগুনে পুড়িয়ে হত্যার প্রতিবাদ ও হত্যাকারীদের বিচার দাবিতে মানববন্ধন করেছে টাঙ্গাইলের বিভিন্ন স্কুল-কলেজের ছাত্রছাত্রীরা। টাঙ্গাইল শহরের নিরালা মোড়ে এ মানববন্ধনে বক্তব্য দেন টাঙ্গাইল জেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম-আহ্বায়ক তানভিরুল ইসলাম হিমেল, টাঙ্গাইল জেলা ছাত্রলীগের সদস্য মিলন মাহমুদ প্রমুখ। মানববন্ধনে বিভিন্ন স্কুল-কলেজের শতাধিক ছাত্রছাত্রী অংশ নেয়। গাইবান্ধায় মানববন্ধন : মাদ্রাসা অধ্যক্ষ সিরাজ-উদ-দৌলাসহ ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে গতকাল পৃথক বিক্ষোভ ও মানববন্ধন করেছে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি, গাইবান্ধা নারী শাখা ও বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ গাইবান্ধা জেলা শাখা। শহরের আসাদুজ্জামান মার্কেটের সামনে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি, নারী শাখার বিক্ষোভ সমাবেশ ও মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। নারী শাখার সম্পাদক সুপ্রিয়া দেবের সভাপতিত্বে বক্তব্য দেন বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য জেলা সভাপতি মিহির ঘোষ, তেল-গ্যাস খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ-বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির গাইবান্ধা জেলা আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট শাহাদৎ হোসেন লাকু, উদীচী জেলা শাখার সভাপতি অধ্যক্ষ জহুরুল কাইয়ুম, যুব ইউনিয়ন জেলা শাখার সভাপতি প্রতিভা সরকার ববি প্রমুখ। অন্যদিকে প্রেস ক্লাবের সামনে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ গাইবান্ধা জেলা শাখা বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন করে। বক্তব্য দেন মহিলা পরিষদের জেলা সভাপতি আমাতুন নুর ছড়া, সাধারণ সম্পাদক রিকতু প্রসাদ, অধ্যক্ষ জহুরুল কাইয়ুম, আফরোজা লুনা, সুজন প্রসাদ, লায়লা নাসরিন প্রমুখ। ফরিদপুরে বিক্ষোভ : মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল হয়েছে ফরিদপুরে। সকালে ফরিদপুর প্রেস ক্লাবের সামনে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ করে প্রজন্মের আওয়াজ নামের একটি সংগঠন। বক্তৃতা করেন সুদেব চক্রবর্তী, অ্যাডভোকেট শিপ্রা গোস্বামী, খাদিজা বেগম মণি, দীপালি কীর্তনিয়া, কাজী সবুজ প্রমুখ।

অবহেলা প্রমাণিত হলে ওসির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা- আইজিপি: নুসরাত জাহান রাফিকে আগুনে পুড়িয়ে মারার ঘটনায় দায়িত্বে অবহেলা প্রমাণিত হলে সোনাগাজী থানার সাবেক ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোয়াজ্জেম হোসেনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন পুলিশ মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী। গতকাল রাজধানীর মিরপুরে শহীদ পুলিশ স্মৃতি স্কুল অ্যান্ড কলেজের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

আইজিপি বলেন, প্রাথমিকভাবে আমরা ওসিকে প্রত্যাহার করেছি। এখন তদন্ত চলছে। যদি তার কার্যকলাপে প্রমাণ হয় যে মামলাটি যথাযথভাবে সামাল দিতে তিনি ব্যর্থ হয়েছেন, তাহলে আইন অনুযায়ী ওই ওসির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। রাফির মামলাটি এখন পিবিআই তদন্ত করছে। এ ঘটনার সঙ্গে যারাই জড়িত থাকুক তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


আপনার মন্তব্য