শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ২৩:১৯

৭ মার্চ জাতীয় দিবস ঘোষণা করে হাই কোর্টের রায়

নিজস্ব প্রতিবেদক

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৭১-এর যে দিনটিতে বাঙালির স্বাধীনতার ডাক দিয়েছিলেন, সেই ৭ মার্চকে ‘জাতীয় ঐতিহাসিক দিবস’ ঘোষণা করে এক মাসের মধ্যে গেজেট প্রকাশের নির্দেশ দিয়েছে হাই কোর্ট। একই সঙ্গে এই মুজিববর্ষের মধ্যেই দেশের সব জেলা      -উপজেলায় বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল স্থাপন করতে বলেছে আদালত। এ সংক্রান্ত একটি রিটে জারি করা রুলের শুনানি নিয়ে গতকাল বিচারপতি এফ আর এম নাজমুল আহাসান ও বিচারপতি এ এম কামরুল কাদেরের সমন্বয়ে গঠিত হাই কোর্ট বেঞ্চ রুলসহ এই আদেশ দেয়। আদালতের আদেশ বাস্তবায়নের অগ্রগতি জানিয়ে এক মাসের মধ্যে প্রতিবেদন দিতে বলেছে হাই কোর্ট। প্রাথমিক, মাধ্যমিক, উচ্চমাধ্যমিক বিদ্যালয়ের পাঠ্যপুস্তকে ৭ মার্চের ভাষণের গৌরবোজ্জ্বল ইতিহাস অন্তর্ভুক্তির নির্দেশ কেন দেওয়া হবে না, রুলে তা জানতে চাওয়া হয়েছে।

আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী বশির আহমেদ। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল ব্যারিস্টার এ বি এম আবদুল্লাহ আল মাহমুদ বাশার। পরে বশির আহমেদ সাংবাদিকদের বলেন, ৭ মার্চকে জাতীয় ঐতিহাসিক দিবস ঘোষণা করে আগামী এক মাসের মধ্যে গেজেট প্রকাশ করে বাস্তবায়ন প্রতিবেদন দাখিল করতে নির্দেশ দিয়েছে হাই কোর্ট। এই আদেশের ফলে ৭ মার্চকে ‘জাতীয় ঐতিহাসিক দিবস’ হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া হলো। এখন প্রশাসনের কাজ হবে আগামী এক মাসের মধ্যে একটি গেজেট জারি করা এবং সেই গেজেটের মাধ্যমে ভবিষ্যতে দিবসটি জাতীয় ও রাষ্ট্রীয়ভাবে পালন করা।

এর আগে ২০১৭ সালে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক বশির আহমেদের করা রিটে ৭ মার্চকে কেন ‘জাতীয় ঐতিহাসিক দিবস’ হিসেবে ঘোষণা করা হবে না তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছিল হাই কোর্ট। এ ছাড়াও ১৯৭১ সালের ৭ মার্চ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান যে স্থানে, যে মঞ্চে ভাষণ দিয়েছিলেন, পাকিস্তানি বাহিনীর আত্মসমর্পণ, মুক্তিযোদ্ধাদের অস্ত্রসমর্পণ এবং ভারতের তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধীকে সংবর্ধনা দেওয়া হয়েছিল সেই স্থানে মঞ্চ পুনর্নির্মাণ কেন করা হবে না, জানতে চাওয়া হয়েছিল রুলে। ৭ মার্চের সেই ঐতিহাসিক ভাষণের সময় বঙ্গবন্ধুর আঙ্গুল উঁচানো ভঙ্গির ভাস্কর্য নির্মাণের নির্দেশ কেন দেওয়া হবে না- তাও জানতে চাওয়া হয় রুলে। সেই রুলের শুনানিতে রিট আবেদনকারীর সম্পূরক আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে এ আদেশ দিল উচ্চ আদালত।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর