শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ৭ মার্চ, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ৬ মার্চ, ২০২০ ২৩:৫১

সড়কে মৃত্যুর মিছিল ঝরল ২৬ প্রাণ

প্রতিদিন ডেস্ক

দেশের ৭ জেলায় সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ ঝরেছে ২৬ জনের। বৃহস্পতিবার রাত ১০টা থেকে গতকাল রাত সাড়ে ৮টা পর্যন্ত হবিগঞ্জ, ময়মনসিংহ, সাভার, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, ফেনী, পঞ্চগড়, কুমিল্লা ও ঢাকায় এসব দুর্ঘটনা ঘটে। আমাদের নিজস্ব প্রতিবেদক ও প্রতিনিধিদের পাঠানো বিবরণ-

হবিগঞ্জ : নবীগঞ্জ উপজেলায় যাত্রীবাহী মাইক্রোবাস মহাসড়কের পাশে গাছের সঙ্গে ধাক্কা খেলে ১০ জন নিহত হন। আহত হয়েছেন আরও তিনজন। গতকাল সকাল সাড়ে ৭টার দিকে উপজেলার কান্দিগাঁও এলাকায় ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন- নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লার পাগলা মুসলিমপাড়ার আব্বাস উদ্দিন (৫৫), তার ছেলে বর ইমন খান (২৫), রাব্বি (২০), ইমনের মামাতো ভাই রাজিব (২৫), গিয়াস উদ্দিনের মেয়ে সুমনা আক্তার (৩৫), তার মেয়ে খাদিজা আক্তার (৪), একই এলাকার তোতা খানের ছেলে ইমরান হোসেন (১৬), আবদুল গনির ছেলে খলিলুর রহমান (২৫), হাজী মহসিন (৭০) ও মজিবুর রহমানের স্ত্রী আসমা আক্তার (২৫)। আহতরা হলেন, ইমনের মামা আবুল হোসেন (৫৫), মামাতো ভাই রফিক (৪৫) ও গাড়িচালক নাদিম (৩৬) আহত হয়েছেন। আহতদের সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। পুলিশ জানায়, মাইক্রোবাসটি নারায়ণগঞ্জ থেকে সিলেট যাচ্ছিল। মাইক্রোবাসে আরোহী ছিলেন ১৩ জন। কান্দিগাঁও এলাকায় পৌঁছার পর চালক নিয়ন্ত্রণ হারালে মাইক্রোবাসটি সড়কের পাশে একটি গাছের সঙ্গে ধাক্কা খায়।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া : গতকাল ভোরে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগরে বাস ও মাইক্রোবাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে ছয়জন নিহত হয়েছেন। দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত চারজনকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। বিশ্বরোডের খাঁটিহাতা হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মাইনুল ইসলাম জানান, রাত সাড়ে ৩টায় এ মহাসড়কের বিজয়নগর উপজেলার রামপুরার ভাটি কালিসীমা এলাকায় ঢাকার নারায়ণগঞ্জ থেকে আসা একটি মাইক্রোবাস ও সুনামগঞ্জ থেকে ছেড়ে আসা লিমন পরিবহন ঢাকাগামী যাত্রীবাহী বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এ সময় মাইক্রোবাসটিতে আগুন ধরে যায়। ভিতরে থাকা আরোহীরা এ সময় সাহায্যের জন্য আকুতি জানালেও আগুনের ভয়ে কেউই এগিয়ে আসেননি। মাইক্রোবাসে থাকা ১০ যাত্রীর মধ্যে ছয়জন নিহত হন। তারা হলেন মাইক্রোবাসের চালক সোহান (২০), হারুন মিয়া (৪০), শাকিল মিয়া (২৫), সাগর (২২), রিফাত (১৬) ও ইমন মিয়া (১৯)। গুরুতর আহত হন শাহিন (৩০), বিজয় (২২), আবির (৩৫) ও জিসান (২৫)। দুর্ঘটনায় আহত জিসান জানান, তিনি ও তার বন্ধু সাগর একসঙ্গে বসেছিলেন। বাসের সঙ্গে তাদের মাইক্রোবাসের মুখোমুখি সংঘর্ষ হওয়ার পর তিনি মাইক্রোবাস থেকে ছিটকে নিচে পড়ে যান। সাগরসহ অন্য আরোহীরা মাইক্রোবাসের ভিতরই ছিলেন। সাগর অগ্নিদগ্ধ হয়ে মারা গেছেন।

ময়মনসিংহ : ভালুকা উপজেলায় সড়ক দুর্ঘটনায় পিকআপের চালকসহ দুজন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় দুজন আহত হন। গতকাল ভোরে উপজেলার মেহরাবাড়ী এলাকায় ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত দুজন হলেন- নেত্রকোনার ঠাকুরাকোনা গ্রামের পিকআপ ভ্যানের চালক রাজন রবিদাস (২২) ও নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ থানার তালাশ কোর্ট এলাকার আবদুস সালামের ছেলে মো. আজিম (২৩)।

সাভার : ঢাকার সাভারে বাস ও ট্রাকের চাপায় মোটরসাইকেলের দুই আরোহী মারা গেছেন। বৃহস্পতিবার রাতে ঢাকা-আরিচা ও আবদুল্লাপুর-বাইপাইল সড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত দুজন হলেন- রাজধানীর শেওড়াপাড়ার কাজী নাজমুল হক (৪১) ও নারায়ণগঞ্জ শিল্প পুলিশের কনস্টেবল আকাশ আহমেদ (২২)।

 

অন্যদিকে সাভার হাইওয়ে থানার পুলিশ জানায়, বৃহস্পতিবার রাতে আশুলিয়ার শ্রীপুরের নিজ বাড়ি থেকে মোটরসাইকেলে নারায়ণগঞ্জে কর্মস্থলে যাচ্ছিলেন আকাশ। রাত ১টার দিকে সাভারের উলাইল এলাকায় ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে একটি ট্রাক মোটরসাইকেলসহ তাকে চাপা দিলে তিনি ঘটনাস্থলেই মারা যান।

ফেনী : ফেনীর সোনাগাজীতে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে একটি নির্মাণাধীন ব্রিজের সঙ্গে ধাক্কা খেয়ে দুই মোটরসাইকেল আরোহী যুবক নিহত হয়েছেন। গভীর রাতে উপজেলার মতিগঞ্জ এলাকায় এ দুর্ঘটনাটি ঘটে।

পুলিশ জানায়, রাতে মোটরসাইকেলযোগে দুই আরোহী যুবক দ্রুত গতিতে ফেনীর সোনাগাজী থেকে চট্টগ্রাম জেলার মিরসরাই যাচ্ছিলেন। এ সময় তারা মতিগঞ্জ এলাকায় নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলেন এবং মোটরসাইকেল একটি নির্মাণাধীন ব্রিজের সঙ্গে ধাক্কা খায়। এতে মোটরসাইকেলে থাকা দুজন গুরুতর আহত হন।

কুমিল্লা : দাউদকান্দি উপজেলার জিংলাতলী স্থানে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে ঢাকাগামী একটি বাসের চাপায় মোটরসাইকেলের আরোহী এক ব্যক্তি (৩৫) ঘটনাস্থলেই নিহত হয়েছেন। তার পরিচয় পাওয়া যায়নি।

পঞ্চগড় : গতকাল সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে জেলার জগদল বাজার এলাকায় এবং তেঁতুলিয়া উপজেলার ভজনপুর ইউনিয়নের প্রধানগছ গ্রামে এসব দুর্ঘটনা ঘটে বলে পুলিশ জানিয়েছে। নিহত ময়ুরী আক্তার (১৬) তেঁতুলিয়া উপজেলার দেবনগর ইউনিয়নের আনারুল ইসলামের মেয়ে এবং দেবনগর উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্রী ছিল এবং রাজিউল ইসলাম (৫) তেঁতুলিয়া উপজেলার ভজনপুর ইউনিয়নের প্রধানগছ গ্রামের মানিক হোসেনের ছেলে। এ ছাড়া বিকালে শিশু রাজিউল ইসলাম বাড়ির সামনের সড়কে বাইসাইকেলের টায়ার নিয়ে খেলার সময় একটি ইজিবাইক ধাক্কা দিলে সে গুরুতর আহত হয়। পরিবারের লোকজন পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

ঢাকা : রাজধানীর বনানীতে সেতু ভবনের কাছে ফের  মোটরসাইকেলে বাসের ধাক্কায় একজন বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীর মৃত্যু হয়েছে। নিহত ফয়সাল আহমেদ (২৮) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সান্ধ্যকালীন এমবিএ কোর্সের শিক্ষার্থী ছিলেন। তার বাড়ি পিরোজপুরের কাউখালী উপজেলায়। গতকাল রাত সাড়ে ৮টার দিকে মোটরসাইকেল আরোহী ফয়সালকে পেছন থেকে একটি বাস ধাক্কা দিলে তিনি ছিটকে পড়েন বলে বনানী থানার এসআই শাহরিয়ার জালাল জানান।

তিনি বলেন, এনা পরিবহনের একটি বাস বনানী থেকে মহাখালীর দিকে যাওয়ার সময় পেছন থেকে একটি মোটরসাইকেলকে ধাক্কা দেয়। তখন ছিটকে পড়ে ঘটনাস্থলেই মোটরসাইকেলচালক ফয়সাল মারা যান।

বাসটি আটক হলেও চালক পালিয়ে গেছে বলে জানান এই পুলিশ কর্মকর্তা। বর্তমানে মিরপুর পীরেরবাগের বাসিন্দা ফয়সাল বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি থেকে অনার্স পাস করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে সান্ধ্যকালীন কোর্সে ভর্তি হন।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর