শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ২২ ডিসেম্বর, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ২১ ডিসেম্বর, ২০২০ ২২:৫৪

ব্যবসায়ীদের যুক্ত করে এশিয়ায় নজর দিন

-সৈয়দ নাসিম মঞ্জুর

ব্যবসায়ীদের যুক্ত করে এশিয়ায় নজর দিন

আগামী দিনে অর্থনৈতিক কূটনীতি সম্প্রসারণে বেসরকারি খাতের ব্যবসায়ীদের যুক্ত করতে সরকারকে পরামর্শ দিয়েছেন প্রাচীন বাণিজ্য সংগঠন এমসিসিআইর সাবেক সভাপতি সৈয়দ নাসিম মঞ্জুর।  তিনি বলেছেন, আমরা ঐতিহাসিকভাবে পশ্চিমাদের দিকে তাকিয়ে  থাকি। এখন বাঁক বদল দরকার। সময় এখন এশিয়ার। সামনের দিনে বিশ্ব অর্থনীতির নেতৃত্ব দেবে এশিয়া। সেই সুবিধা নিতে এখনি এশিয়ার দেশগুলোতে নজর দেওয়া প্রয়োজন। গতকাল বাংলাদেশ প্রতিদিনের সঙ্গে আলাপকালে এসব কথা বলেন মেট্রোপলিটন চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি- এমসিসিআইর সাবেক সভাপতি সৈয়দ নাসিম মঞ্জুর। তার মতে, করোনাকালে বিশ্বায়ন থেকে উল্টোগতিতে চলছে পুরো বিশ্ব। অনেক দেশ নিয়ন্ত্রণমূলক অর্থনৈতিক রক্ষণশীলতা অবলম্বন করেছে। সেই বিবেচনায় অর্থনৈতিক কূটনীতিতে ভালোই করেছে বাংলাদেশ। দেশে চামড়া প্রক্রিয়াজাতকরণ খাতের অন্যতম প্রতিষ্ঠান এপেক্স গ্রুপের অন্যতম এই কর্ণধার বলেন, করোনাকালে ভুটানের সঙ্গে মুক্ত বাণিজ্য চুক্তি করেছে বাংলাদেশ। এটা সক্ষমতার পরিচয়। এই চুক্তি আরও তড়িৎ গতিতে করা দরকার। বিশ্বের বিভিন্ন অঞ্চলে আঞ্চলিক, উপ-আঞ্চলিক জোট হয়েছে এবং হচ্ছে। এসব জোটে বাংলাদেশকেও ঢুকতে হবে। তিনি বলেন, আমাদের বড় প্রতিযোগী ভিয়েতনাম বিশ্বের ১৩টা দেশের সঙ্গে মুক্ত বাণিজ্য চুক্তি করেছে। তাই অর্থনৈতিক কূটনীতি বৃদ্ধি ও মুক্ত বাণিজ্য চুক্তির কথা বিবেচনায় নিয়ে কৌশল ও মনোযোগ বাড়াতে হবে। এক্ষেত্রে প্রধানমন্ত্রীর দফতরের অধীনে বেসরকারি খাতকে যুক্ত করে একটি ট্রেড নেগুসিয়েশন অফিস স্থাপন করতে হবে। এখানে বেসরকারি খাতের অংশগ্রহণ বৃদ্ধি ও নিশ্চিত করতে হবে। সৈয়দ নাসিম মঞ্জুর বলেন, আগামী দিনের বিশ্ব অর্থনীতিতে যে পালাবদল আমরা দেখছি, তাতে গভীর মনোযোগ দিয়ে এগোতে হবে বাংলাদেশের। এখানে কোনো ধরনের ভুল করা চলবে না। এশিয়ার অর্থনীতির উত্থান দেখছে বিশ্ব। সেই উত্থানের সুবিধা নিতে এখনি এশিয়ার দেশগুলোতে অর্থনৈতিক কূটনীতি বাড়াতে হবে। আমরা এপেক্স ফুডওয়্যার হিমালয়ের দেশ নেপালে শো- রুম চালু করেছি। কারণ নেপাল এখন সম্ভাবনাময় দিগন্ত। আগামী দিনে নেপালের উত্থান হবে। সেটাই স্পষ্ট। তাই ইউরোপের চেয়ে এশিয়াতে নজর দিতেই হবে। এক কথায় যাদের কথা আমরা আগে চিন্তা করিনি, তাদেরই এখন নজর বেশি দিতে হবে।

 


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর