শিরোনাম
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ২৯ এপ্রিল, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৮ এপ্রিল, ২০২১ ২৩:২৫

মানুষকে বাঁচিয়ে রাখাই বড় উন্নয়ন

নিজস্ব প্রতিবেদক

মানুষকে বাঁচিয়ে রাখাই বড় উন্নয়ন
Google News

নাগরিক ঐক্যের আহ্‌বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না বলেছেন, লকডাউন দেওয়া হলে সমাজের সব শ্রেণির মানুষের সাহায্য-সহযোগিতা নিশ্চিত করতে হবে। মানুষকে বাঁচাতে হবে। মানুষ বাঁচানোর চেয়ে বড় কোনো উন্নয়ন হতে পারে না। এ মুহুর্তে দেশের ২ কোটি পরিবারকে মাসে ১০ হাজার করে টাকা দিতে হবে। তবে সামাজিক কার্যক্রমে লুটপাটের আশঙ্কা থাকায় সেনাবাহিনীকে দিয়ে দ্রুত দরিদ্র মানুষের একটা সঠিক তালিকা তৈরি করাটা জরুরি হয়ে পড়েছে। এতেই সুষম বণ্টনের কাজটি সঠিকভাবে করা সম্ভব। গতকাল রাজধানীর তোপখানা রোডে নাগরিক ঐক্যের কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন। এতে নাগরিক ঐক্যের ছয় দফা দাবির কথাও উল্লেখ করেন মান্না।

এ সময় দলের সমন্বয়ক শহীদুল্লাহ কায়সার, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য মোমিনুল ইসলাম, সাকিব আনোয়ার, আবু তালেব দেওয়ান, ঢাকা মহানগরী উত্তরের সভাপতি আনিসুর রহমান খসরু, সাধারণ সম্পাদক রাজ্জাক সজীব প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, দেশের ২ কোটি পরিবারকে ১০ হাজার করে টাকা দিলে প্রয়োজন মাত্র ২০ হাজার কোটি টাকা। সেই সঙ্গে আরও কিছু ক্ষেত্র? যোগ করলে আরও কয়েক হাজার কোটি টাকা প্রয়োজন হতে পারে। এ বছর সরকারের পরিচালন ব্যয় নানা দিক থেকে কমানো হয়েছে এবং উন্নয়ন বাজেটেরও একটা বড় অংশ এখনো ব্যয় করা হয়নি। প্রয়োজনে অনেক উন্নয়ন ব্যয় বন্ধ রেখে টাকার সংস্থান করতে হবে। নাগরিক ঐক্যের আহ্‌বায়ক বলেন, এ টাকা একটা চমৎকার বিনিয়োগও বটে।

কারণ এ পরিবারগুলো বাজারে এ টাকা খরচ করলে যে চাহিদা তৈরি হবে তা সংশ্লিষ্ট অনেক খাত এবং শিল্প উৎপাদনের জন্য খুব বড় প্রভাব রাখবে। অনেক ব্যবসা ও শিল্প চাঙা হয়ে উঠবে। এ পদ্ধতিতে শিল্পে প্রণোদনা দেওয়ার পরিমাণ অনেক কমিয়ে আনতে পারবে সরকার।

ফ্রন্টলাইন যোদ্ধা হিসেবে চিকিৎসকদের সঙ্গে রীতিমতো প্রতারণা করে আসছে সরকার- অভিযোগ করে মান্না বলেন, করোনা যোদ্ধা কোনো চিকিৎসক মারা গেলে তাকে ৫০ লাখ টাকা দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছিল সরকার। কিন্তু এ পর্যন্ত মাত্র একজন চিকিৎসক সে টাকা পেয়েছেন, যিনি প্রথম মারা গিয়েছিলেন। এরপর এখন পর্যন্ত আরও ১৭০ জন চিকিৎসক মারা গেলেও তাদের পরিবারকে একটি টাকাও দেয়নি সরকার। এটা চিকিৎসকদের সঙ্গে প্রতারণা।

এই বিভাগের আরও খবর