শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ২৯ মে, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৯ মে, ২০২১ ০১:৫৮

চীনের সমপরিমাণ টিকা রাশিয়া থেকে কিনতে চায় বাংলাদেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক

Google News

চীনের সমপরিমাণ টিকা রাশিয়া থেকে কিনতে চায় বাংলাদেশ। দুই পক্ষের উচ্চপর্যায়ের বৈঠকে দেশে উৎপাদনের প্রস্তাব এসেছে। রাশিয়ার জবাব মিলবে শিগগিরই। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। রাশিয়ার টিকা কেনা ও উৎপাদন বিষয়ে গতকাল সন্ধ্যায় দুই দেশের উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তাদের ভার্চুয়াল বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। সেখানে এ প্রস্তাব এসেছে বলে জানা গেছে।  এর আগে গত বৃহস্পতিবার ফাইজার ও বায়োএনটেকের তৈরি করোনারভাইরাসের টিকা বাংলাদেশে জরুরি ব্যবহারের অনুমোদন দেয় ওষুধ প্রশাসন অধিদফতর। এ ছাড়া চীনের সিনোফার্ম থেকে প্রতি ডোজ ১০ ডলার দরে দেড় কোটি ডোজ করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন কেনার দরপ্রস্তাবে অনুমোদন দিয়েছে সরকার। এসব টিকা আগামী জুন-জুলাইয়ে দেশে আসবে বলে আশা করা হচ্ছে। ঔষধ প্রশাসন অধিদফতরের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ফাইজার ও বায়োএনটেকের টিকাসহ দেশে মোট চারটি টিকা অনুমোদন পেল। এর আগে ভারতের সিরাম ইনস্টিটিউটের তৈরি অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার কোভিশিল্ড, রাশিয়ার তৈরি স্পুৎনিক-ভি এবং চীনের সিনোফার্মের তৈরি টিকার অনুমোদন দিয়েছে ঔষধ প্রশাসন অধিদফতর। টিকার আন্তর্জাতিক প্ল্যাটফর্ম কোভ্যাক্স থেকে ফাইজার-বায়োএনটেকের তৈরি এক লাখ ছয় হাজার ডোজ টিকা পাচ্ছে বাংলাদেশ। ফাইজারের টিকার ওই চালান আগামী ২ জুন দেশে এসে পৌঁছবে বলে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক ইতিমধ্যে জানিয়েছেন। ফাইজার-বায়োএনটেকের টিকাও নিতে হবে দুই ডোজ করে।

প্রথম ডোজ দেওয়ার ৩  থেকে ৪ সপ্তাহ পর দিতে হবে দ্বিতীয় ডোজ। ১২ বছর বা তার বেশি বয়সীদের ওপর ফাইজারের টিকা প্রয়োগ করা যাবে।