শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ৭ এপ্রিল, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ৭ এপ্রিল, ২০২০ ০০:৪৪

জেনে রাখা ভালো

স্বাস্থ্য ডেস্ক

জেনে রাখা ভালো

১. ভয়াবহ মারণব্যাধি করোনা। মহামারীরূপে ছড়িয়ে পড়েছে সারা বিশ্বে। পৃথিবীর তাবৎ শক্তিশালী, উন্নত, অভিজাত, জ্ঞান-বিজ্ঞানে সমৃদ্ধ দেশগুলো পর্যুদস্ত হয়েছে করোনার কাছে। চীন, ইতালি, স্পেন, যুক্তরাজ্য, ফ্রান্স, জার্মানি, ইরানসহ প্রায় দুইশত দেশ প্রাণঘাতী করোনার মোকাবিলায় হিমশিম খাচ্ছে।

২. করোনা প্রতিরোধে কারও একার পক্ষে সম্ভব নয়। সম্ভব নয় শুধু সরকারের পক্ষেও। রাষ্ট্রযন্ত্র থেকে শুরু করে প্রতিটি মানুষ, প্রতিটি ঘরে করোনা প্রতিরোধে সচেতন হতে হবে। প্রতিটি ব্যক্তি নিজ নিজ অবস্থান থেকে করোনা প্রতিরোধে বিশাল এবং প্রয়োজনীয় ভূমিকা রাখতে পারেন। করোনা প্রতিরোধে একটি চমৎকার এবং সবার জন্য অবশ্য করণীয় পদ্ধতির নাম সামাজিক দূরত্ব (Social Distancing)। সামাজিক দূরত্বকে শারীরিক দূরত্ব ও বলা হয়ে থাকে। সামাজিক দূরত্ব হলো সংক্রমণ প্রতিরোধের একটি কার্যকর পদ্ধতি যার মূল উদ্দেশ্য হলো সংক্রমণ ছড়ানোকে থামানো কিংবা কমানো। সামাজিক দূরত্ব তৈরির মাধ্যমে সংক্রমিত ব্যক্তির কাছ থেকে অন্যের কাছে রোগ সংক্রমণ হবে না এবং অসংক্রমিত ব্যক্তি সংক্রমিত হবে না। যেসব রোগব্যাধি হাঁচি/কাশি   শারীরিক সংস্পর্শ, পরোক্ষ সংস্পর্শ (সংক্রমিত বস্তুর স্পর্শ) বা বাতাসে ছড়ায় সেসব রোগ সামাজিক দূরত্ব সৃষ্টির মাধ্যমে নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব। ৩. সামাজিক দূরত্ব সৃষ্টির মাধ্যমে সংক্রামক রোগ প্রতিরোধের বিষয়টি নতুন নয়।


আপনার মন্তব্য