Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ১৫ অক্টোবর, ২০১৯ ০১:৫৮
আপডেট : ১৫ অক্টোবর, ২০১৯ ০৫:২৬

নোবেল জয়ের প্রথম প্রতিক্রিয়ায় ভারত নিয়ে অভিজিতের হতাশা

অনলাইন ডেস্ক

নোবেল জয়ের প্রথম প্রতিক্রিয়ায় ভারত নিয়ে অভিজিতের হতাশা

কলকাতার বাসিন্দা ভারতীয় বংশোদ্ভূত অভিজিৎ বিনায়ক ব্যানার্জি অর্থনীতিতে নোবেল পুরস্কার পেয়েছেন। তার স্ত্রী এস্তার দুফলো এবং মাইকেল ক্রেমার যৌথভাবে ২০১৯ সালে অর্থনীতিতে নোবেল পুরস্কারের জন্য নির্বাচিত হয়েছেন। নোবেলে নির্বাচিত হওয়ার পরে অভিজিৎ ব্যানার্জির প্রথম প্রতিক্রিয়া প্রকাশ পেল। তিনি বলেন, ‘এই পুরস্কার পাওয়া আশ্চর্যজনক। এই পুরস্কার পুরো আন্দোলনের পুরস্কার।

অভিজিৎ ব্যানার্জি আরও বলেছেন, ‘আমি কখনই ভাবিনি যে ক্যারিয়ারের এত তাড়াতাড়ি নোবেল পাওয়া যাবে। আমার নাম ঘোষণার সময় আমি হতবাক হয়ে গিয়েছিলাম আমি ১০ বছর পরে এই পুরস্কার পাবেন আশা করেছিলাম। ’ অভিজিৎকে জিজ্ঞাসা করা হয়েছিল, এই সাফল্যের খবর পাওয়ার পরে প্রথম প্রতিক্রিয়াটি কী ছিল। উত্তরে তিনি বলেন, ‘আমি ৪০ মিনিটের জন্য ঘুমিয়ে পড়েছিলাম, কারণ আমি জানতাম যে, ঘুম থেকে ওঠার পরে প্রচুর কল রিসিভ করতে হবে।’ অভিজিৎ জানান, তিনি এখনও তার মায়ের সঙ্গে কথা বলতেও পারেননি।

তিনি আরও বলেন, ‘আমার স্ত্রী এস্তার দুফলো এবং অন্যান্য সঙ্গীরা গত ২০ বছর ধরে এই বিষয়ে কাজ করে যাচ্ছি। আমরা দারিদ্র্যের অবসানের জন্য সমাধান দেওয়ার চেষ্টা করেছি। কলকাতায় কাটানো দিনগুলো এর সঙ্গে সম্পর্কিত বিভিন্ন দিক বুঝতে সহায়তা করেছিল। ’ অন্যদিকে, ভারতের অর্থনীতি সম্পর্কে অভিজিৎ বলেন, ‘ভারতীয় অর্থনীতির ভিত্তি অস্থিতিশীল। বর্তমান বিকাশের তথ্যের ভিত্তিতে অদূর ভবিষ্যতে অর্থনীতির উন্নতি হবে মনে হয় না। বিগত ৫-৬ বছরে খুব ভালো কিছু দেখা যায়নি। তবে এখন এই আত্মবিশ্বাসও হারাতে বসেছে।

অভিজিৎ ব্যানার্জি আরও বলেছেন, গত পাঁচ-ছয় বছরে আমরা ন্যূনতম কিছু উন্নয়ন দেখেছি, কিন্তু এখন সেই আশ্বাসও শেষ হয়ে গিয়েছে। তিনি জানান, জীবনে কখনও ভাবেননি যে এত তাড়াতাড়ি তিনি নোবেল পেয়ে যাবেন। তিনি বলেন, ‘আমি গত ২০ বছর ধরে গবেষণা করছি। আমরা দারিদ্র্য বিমোচনের সমাধান দেওয়ার চেষ্টা করেছি। সূত্র : কলকাতা টাইমস।

বিডি-প্রতিদিন/শফিক

 


আপনার মন্তব্য