শিরোনাম
প্রকাশ : ১২ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০৮:৪১
আপডেট : ১২ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০৯:৪৪

টাইম ম্যাগাজিনের 'পারসন অব দ্য ইয়ার' গ্রেটা থানবার্গ

অনলাইন ডেস্ক

টাইম ম্যাগাজিনের 'পারসন অব দ্য ইয়ার' গ্রেটা থানবার্গ

জলবায়ু পরিবর্তন এবং প্রাণ ও প্রকৃতি ধ্বংসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে বিশ্বব্যাপী আন্দোলন সৃষ্টি করা সুইডেনের স্কুলছাত্রী গ্রেটা থানবার্গ বিশ্বখ্যাত আমেরিকান ম্যাগাজিন টাইমের বিচারে ২০১৯ সালের ‘পার্সন অব দ্য ইয়ার’ নির্বাচিত হয়েছেন। 

১৯২৭ সাল থেকে শুরু হওয়া টাইম ম্যাগাজিনের এই নির্বাচনে এবারই প্রথম ১৬ বছর বয়সী কেউ জয়ী হলো। এর আগে, গত বছর সবচেয়ে প্রভাবশালী ২৫ কিশোর-কিশোরীর স্থান গ্রেটা থানবার্গকে স্থান দিয়েছিল এই সাপ্তাহিক ম্যাগাজিনটি।

জলবায়ু পরিবর্তনের বিষয়ে বাস্তব পদক্ষেপ এড়াতে বিশ্ব নেতাদের দায়িত্বহীন আচরণ বন্ধ করার আহ্বান জানিয়ে আসছেন এই গ্রেটা থানবার্গ।

টাইম ম্যাগাজিন লিখেছে, জলবায়ু সংকট থেকে উত্তরণের জন্য আরো ব্যবস্থা নেওয়ার দাবিতে ২০১৮ সালের অগাস্টে স্কুল বাদ দিয়ে সুইডিশ পার্লামেন্টের সামনে একাকী অবস্থান নিয়ে যে আন্দোলনের সূচনা শুরু করেছিল এই কিশোরী, এক বছরের মধ্যে তা একটি বৈশ্বিক আন্দোলনের রূপ পেয়েছে।

২০১৮ সালে ১৫ বছর বয়সী গ্রেটা থানবার্গ নবম শ্রেণিতে পড়ার সময় ২০ আগস্ট সিদ্ধান্ত নেন ক্লাসে না গিয়ে ৯ সেপ্টেম্বরের সাধারণ নির্বাচন পর্যন্ত আন্দোলন করবেন তিনি। জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবেলায় উপযুক্ত পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে না বলেই প্রকৃতি এত প্রতিকূল হয়ে উঠছে বলে বিশ্বনেতাদের দায়ী করে আন্দোলন করেন তিনি।

গ্রেটার দাবি ছিল, সুইডিশ সরকারকে অবিলম্বে প্যারিস চুক্তির সঙ্গে সঙ্গতি রেখে দেশে কার্বন নিঃসরণ কমাতে হবে। এজন্য তিনি দেশের পার্লামেন্ট ‘রিকসদাগ’র সামনে টানা তিন সপ্তাহ বসে আন্দোলন করেছেন। হাতে ছিল ‘জলবায়ুর জন্য স্কুল ধর্মঘট’ লেখা প্ল্যাকার্ড। এমনকি তিনি আশপাশ দিয়ে যাওয়া সবাইকে লিফলেটও বিতরণ করছিলেন, যেখানে লেখা ছিল: আমি এটা করছি কারণ তোমরা বড়রা আমার ভবিষ্যৎ ধূলিস্যাৎ করে দিচ্ছো।

বিডি-প্রতিদিন/মাহবুব


আপনার মন্তব্য