শিরোনাম
প্রকাশ : ৯ জুলাই, ২০২০ ০৯:৫৪
আপডেট : ৯ জুলাই, ২০২০ ০৯:৫৫

দুর্নীতির অভিযোগে তদন্তের মুখে গান্ধী পরিবার

অনলাইন ডেস্ক

দুর্নীতির অভিযোগে তদন্তের মুখে গান্ধী পরিবার
ফাইল ছবি

ভারতের গান্ধী পরিবারের সঙ্গে যুক্ত তিনটি ট্রাস্টের বিরুদ্ধে তদন্ত শুরুর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। তদন্ত হবে নানাবিধ আর্থিক অনিয়মের, যার মধ্যে রয়েছে বিদেশি অনুদান গ্রহণ করে সরকারি সহায়তা পাইয়ে দেওয়ার মতো অভিযোগ। বুধবার দেশটির কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় তদন্তের এ তথ্য জানিয়েছে।

যে তিনটি ট্রাস্টের বিরুদ্ধে তদন্তের কথা বলা হয়েছে সেগুলো হলো, রাজীব গান্ধী ফাউন্ডেশন, রাজীব গান্ধী চ্যারিটেবল ট্রাস্ট এবং ইন্দিরা গান্ধী মেমোরিয়াল ট্রাস্ট। 

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় অভিযোগ তুলেছে যে, এই ট্রাস্টগুলো আইন ভেঙে বিদেশ থেকে টাকা নিয়েছে। আয়কর দেয়ার ক্ষেত্রেও গরমিল করেছে। এমনকী, টাকা নয়-ছয় বা মানি লন্ডারিংয়ের অভিযোগও রয়েছে।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, এনফোর্সমেন্ট ডিরোক্টোরেটের একজন স্পেশাল অফিসার তদন্ত করবে।

কংগ্রেসের পাল্টা অভিযোগ, লাদাখ সমস্যা থেকে দৃষ্টি ঘোরানোর জন্যই সরকার এ কাজ করেছে। খবর এনডিটিভি ও ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের।

নেহরু-গান্ধী পরিবার স্বাধীন ভারতের ইতিহাসের সঙ্গে জড়িয়ে রয়েছে। দেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী জওহরলাল নেহেরু। পরে তার মেয়ে ইন্দিরা গান্ধী দেশের প্রধানমন্ত্রী হন। ইন্দিরাপুত্র রাজীব গান্ধীও প্রধানমন্ত্রী ছিলেন। সোনিয়া গান্ধী এখন কংগ্রেসের সভাপতি। অনেকেরই অভিযোগ, স্বাধীনতার পর থেকে কংগ্রেসকে কুক্ষিগত করে রেখেছে এই গান্ধী পরিবার। কংগ্রেস টানা দুই মেয়াদে বিরোধী দল হলেও এখনও কংগ্রেসের প্রধান সোনিয়া গান্ধী। তার দুই সন্তান রাহুল গান্ধী এবং প্রিয়াঙ্কা গান্ধীও দলে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকায় রয়েছেন। গান্ধী পরিবার নিয়ে বিতর্ক বহুদিনের। তবে নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বে বিজেপি ক্ষমতায় আসার পর থেকে গান্ধী পরিবারের বিরুদ্ধে একাধিকবার ব্যক্তিগত আক্রমণের ঘটনা ঘটেছে। মোদিসহ বিজেপি নেতারা সরাসরি আক্রমণ করেছেন রাহুল, প্রিয়াঙ্কা ও সোনিয়াকে। তবে রাজীব গান্ধী এবং ইন্দিরা গান্ধী নামে তৈরি হওয়া ট্রাস্টের বিরুদ্ধে এর আগে কখনও ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বলা হয়নি। রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের অনেকেই মনে করছেন, এটাও কার্যত ব্যক্তিগত আক্রমণেরই শামিল।

বিডি প্রতিদিন/এনায়েত করিম


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর