শিরোনাম
প্রকাশ : ১৩ আগস্ট, ২০২০ ২১:৪৭

ব্রিটেনে এ-লেভেলে’র ফলাফলে আপিল করবে প্রায় ৩ লাখ পরীক্ষার্থী

যুক্তরাজ্য প্রতিনিধি

ব্রিটেনে এ-লেভেলে’র ফলাফলে আপিল করবে প্রায় ৩ লাখ পরীক্ষার্থী

ইংল্যান্ড, ওয়েলস এবং নর্দার্ন আয়ারল্যান্ডের এ লেভেল পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশিত হয়েছে বৃহস্পতিবার। ফলাফলে প্রায় ৩৬ শতাংশ শিক্ষার্থীকে তাদের কাঙ্খিত ফলাফলের চাইতে এক দাপ বা এক গ্রেড নিচে নামিয়ে ফলাফল দেওয়া হয়েছে। আর ৩ শতাংশ শিক্ষার্থীকে কাঙ্খিত ফলাফলের চাইতে দুই গ্রেড নিচে নামিয়ে দেওয়া হয়েছে। ফলাফল হাতে পেয়ে অনেক শিক্ষার্থী এবং শিক্ষক হতবাক হয়ে গেছেন! 

ফলাফলের আরেকটি বিতর্কিত বিষয় হল, দরিদ্র এলাকার স্টেইট স্কুলের চাইতে ভালো করেছে দেশের প্রাইভেট এবং একাডেমি বা সিক্সফর্মগুলো। কম্পিউটারের মাধ্যমে ফলাফল নির্ধারণের কারণে এই বিশৃঙ্খলার সৃষ্টি হয়েছে। অন্তত ২ লাখ ৮০ হাজারের বেশি পরীক্ষার্থী তাদের প্রত্যাশা বা মক এক্সামের ফলাফলের চাইতে এক বা দুই গ্রেড নিচে ফলাফল পেয়েছেন। এসব শিক্ষার্থীরা আপিলের প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

করোনা মহামারির কারণে এবার শিক্ষার্থীরা চূড়ান্ত পরীক্ষার টেবিলে বসতে পারেননি। ফলে শিক্ষার্থীদের মক এক্সামে শিক্ষকদের দেওয়া নাম্বারের উপর ভিত্তি করেই চূড়ান্ত ফলাফল প্রদানের কথা ছিল। কিন্তু শেষ পর্যন্ত কম্পিউটারের মাধ্যমে ফলাফল নির্ধারণের ক্ষেত্রে এই বিশৃঙ্খলার সৃষ্টি হয়। স্ট্যান্ডার্ড বজায় রাখতে গিয়ে স্টেইট সিক্সফর্ম বিশেষ তুলনামূলক দরিদ্র এলাকার কলেজগুলোকে কম্পিউটার সিস্টেমেই গ্রেড কমিয়ে দেওয়া হয়।

ফলাফল প্রকাশের আগের দিন, স্কটল্যান্ডের ফলাফল বিতর্কের মুখে এডুকেশন সেক্রেটারি বলেছেন, শিক্ষার্থীদের মক এক্সামের ফলাফলের উপর ভিত্তি করেই চূড়ান্ত ফলাফল নির্ধারণ করা হবে। কিন্তু তা ছিল একেবারে শেষ মুহূর্তে ততক্ষণে সবকিছু চূড়ান্ত হয়ে গেছে।

যদিও স্কটল্যান্ডে কম্পিউটারাইজ ফলাফল নিয়ে বিশৃঙ্খলার পর ক্ষমা চেয়ে প্রায় ১ লাখ ৩০ হাজার শিক্ষার্থীকে তাদের কাঙ্খিত গ্রেডে উন্নীত করার ঘোষণা দিয়েছেন স্কটিশ এডুকেশন সেক্রেটারি। কিন্তু ইংলিশ এডুকেশন সেক্রেটারি গেভিন উলিয়ানসন স্কটিশ এডুকেশন সেক্রেটারিকে অনুসরণ করবেন না বলে জানিয়েছেন।

এদিকে লেবার লিডার স্যার কিয়ার স্টারমার ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেছেন, এবারের পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশের ক্ষেত্রে কিছু একটা ভুল ছিল তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না। পোস্টকোড লটারির মতো পরীক্ষার ফলাফল নির্ধারণ করা ভুল বলে উল্লেখ করে স্যার কিয়ার স্টারমার বলেন, হাজার হাজার শিক্ষার্থীর ভবিষৎ স্বপ্ন ভেঙ্গে চুরমার করা হয়েছে এবারের ভুল ফলাফলের কারণে।

বিডি-প্রতিদিন/বাজিত হোসেন


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর