শিরোনাম
প্রকাশ : ২৩ নভেম্বর, ২০২০ ২০:৪৯
আপডেট : ২৩ নভেম্বর, ২০২০ ২১:০৪
প্রিন্ট করুন printer

পবিত্র ভূমিতে ‘খুনি’ নেতানিয়াহুর সফর, প্রশ্নের ‍মুখে সৌদি আরব

অনলাইন ডেস্ক

পবিত্র ভূমিতে ‘খুনি’ নেতানিয়াহুর সফর, প্রশ্নের ‍মুখে সৌদি আরব

মুসলমানদের পবিত্রতম স্থান মক্কা ও মদিনার সৌদি আরবে দখলদার ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুকে সফরের অনুমতি দেয়ার ব্যাখ্যা চেয়েছে ফিলিস্তিনের ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলন হামাস।

আজ সোমবার হামাসের প্রভাবশালী নেতা সামি আবুযুহরি বলেছেন, সৌদি আরবে দখলদার ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর গোপন সফর গোটা মুসলিম উম্মাহর প্রতি অবমাননা। এর মাধ্যমে গোটা মুসলিম বিশ্বকে অপমান করা হয়েছে‌। একইসঙ্গে এর মাধ্যমে ফিলিস্তিনি জাতির সব অধিকারকে পুরোপুরি উপেক্ষা করা হয়েছে। এ বিষয়ে সৌদি আরবকে অবশ্যই ব্যাখ্যা দিতে হবে। তিনি আরও বলেছেন, ‘খুনি নেতানিয়াহুর এই সফরের ঘটনা অত্যন্ত বিপজ্জনক।’

সৌদি আরবে মুসলমানদের পবিত্রতম স্থান মক্কা ও মদিনা অবস্থিত। মক্কায় রয়েছে কাবা শরিফ। সৌদি ভূখণ্ডেই মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) এর জন্ম। এ কারণেই ইসলামী বিশেষজ্ঞরা মুসলমানদের প্রকাশ্য শত্রু ও তৃতীয় পবিত্রতম স্থান মসজিদুল আকসার দখলকারী ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুকে রাসূল (সা.) এর  জন্মভূমিতে প্রবেশ করতে দেওয়াকে সব মুসলমানের জন্য অপমানজনক বলে মনে করছেন।

ফিলিস্তিনে প্রায় প্রতিদিনই মুসলমানদের হত্যা করছে নেতানিয়াহুর সরকার। নেতানিয়াহুসহ ইসরায়েলি নেতাদেরকে মুসলমানেরা ভয়াবহ খুনি হিসেবেই চেনে। ইসরায়েলি পত্রিকাগুলো খবর দিয়েছে, দখলদার ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু গতকাল গোপনে সৌদি আরব সফর করেছেন। সেখানে তিনি সৌদি যুবরাজ মুহাম্মদ বিন সালমানের সঙ্গেও বৈঠক করেন। দখলদার ইসরায়েলের গুপ্তচর সংস্থা মোসাদের প্রধান ইউসি কোহেনও এ বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।

ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রীর সৌদি আরব সফরের সত্যতা স্বীকার করে দখলদার শিক্ষামন্ত্রী ইউভ গ্যালান্ট বলেছেন,সত্যিই সফর ও বৈঠক হয়েছে। এটা ইসরায়েলের জন্য চমৎকার অর্জন। ইসরায়েলি এই মন্ত্রী যখন এ বিষয়ে কথা বলছিলেন তখন তাকে বেশ উল্লসিত মনে হচ্ছিল। সূত্র : পার্সটুডে।

বিডি-প্রতিদিন/শফিক


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৭ জানুয়ারি, ২০২১ ১৯:১৩
প্রিন্ট করুন printer

স্বামীর মোবাইলে থাকা নিজের পুরনো ছবি চিনতে পারলেন না স্ত্রী, অতঃপর...

অনলাইন ডেস্ক

স্বামীর মোবাইলে থাকা নিজের পুরনো ছবি চিনতে পারলেন না স্ত্রী, অতঃপর...
প্রতীকী ছবি

সম্পর্কের সবচেয়ে বড় শত্রু সন্দেহ। ছোট ছোট অবিশ্বাসের পাথর জমা হতে হতে কখন যে সন্দেহের কঠিন পর্বতে পরিণত হয়, কেউ বলতে পারে না, যার ফলও হয় মারাত্মক। যেমন নিছক সন্দেহের বশে একটি ছবি দেখে স্বামীকে ছুরি দিয়ে কোপালেন মেক্সিকোর লিওনোরা নামের এক নারী। পরে জানা গেল, ছবিটি আদতে তারই যৌবন বয়সের ছিল। ঘটনার তদন্ত করতে গিয়ে হতবাক পুলিশও।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, সন্দেহের বশেই স্বামীর মোবাইল নিয়মিত চেক করতে মেক্সিকোর ওই নারী। আচমকা সেখানে অল্প বয়সের এক নারীর সঙ্গে স্বামীর ছবি দেখতে পান। এতেই ক্ষেপে ওঠেন। রান্নাঘরের ছুরি নিয়েই স্বামী জুয়ানের ওপর ঝাঁপিয়ে পড়েন। এলোপাতাড়ি কোপ দিতে থাকেন।

পরে রক্তাক্ত অবস্থাতে কোনোভাবে স্ত্রীর হাত থেকে ছুরি ছিনিয়ে নিতে সক্ষম হন জুয়ান। তারপরই প্রকাশ্যে আসে আসল সত্য। জুয়ানই লিওনোরাকে জানান, ছবির নারী আসলে তিনিই। ছবিটি সেই সময়ের যখন তারা প্রথম প্রথম প্রেম করতে শুরু করেছিলেন।

জুয়ানের কথা প্রথমে কিছুতেই বিশ্বাস করতে চাননি লিওনোরা। কিন্তু ঠান্ডা মাথায় কথা বলে তাকে ক্ষান্ত করেন জুয়ান। ইতিমধ্যে তাদের চিৎকার শুনে পুলিশে খবর দিয়েছিলেন এক প্রতিবেশী। সেই খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে এসে পৌঁছায় পুলিশ। জুয়ানকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠানো হয়। আর লিওনোরাকে গ্রেফতার করা হয়।

পুলিশের এক প্রশ্নে জুয়ান জানান, পুরনো ছবিটি একটু এডিট করে ফোনে স্টোর করেছিলেন তিনি। সেই সময় এমনিতেই লিওনোরা অনেকটা রোগা ছিলেন। তাই নিজের ছবি নিজেই চিনতে পারেননি। স্ত্রীর বিরুদ্ধে জুয়ান এখনো পর্যন্ত কোনো অভিযোগ করেননি বলেই খবর। তবে লিওনোরা মানসিক রোগে আক্রান্ত কি না, তা জানতে মনোবিদের সাহায্য নিচ্ছে পুলিশ।

সূত্র : সংবাদ প্রতিদিন

বিডি প্রতিদিন/এমআই


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৭ জানুয়ারি, ২০২১ ১৮:০০
প্রিন্ট করুন printer

ইরানে ইসরায়েলের হামলার পরিকল্পনা নিয়ে কি বলছে তেহরান

অনলাইন ডেস্ক

ইরানে ইসরায়েলের হামলার পরিকল্পনা নিয়ে কি বলছে তেহরান
প্রতীকী ছবি

ইরানে হামলার শক্তি দখলদার ইসরায়েলের নেই। তাদের এ ধরণের কোনো পরিকল্পনাও নেই বলে জানিয়েছেন ইসলামী প্রজাতন্ত্র ইরানের প্রেসিডেন্টের দপ্তরের প্রধান মাহমুদ ওয়ায়েজি। তিনি বলেন, ইরানসহ এই অঞ্চলের মানুষ দখলদার ইসরায়েলের কর্মকর্তাদের বক্তব্যের ভাষা সম্পর্কে অবহিত। তারা আসলে এ ধরণের বক্তব্যের মাধ্যমে মনস্তাত্ত্বিক যুদ্ধ চালাতে চায়। মনস্তাত্ত্বিক সুবিধা নিতে চায়।

আজ বুধবার ইসরায়েলের সামরিক বাহিনীর প্রধানের হুমকির জবাবে এ কথা বলেছেন তিনি। ওয়ায়েজি বলেন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নতুন সরকার দখলদার ইসরায়েলের মাধ্যমে প্রভাবিত না হয়ে অন্য দেশগুলোর সরকারের মতো স্বাধীনভাবে সিদ্ধান্ত নেবে বলে আশা করা যায়। যাইহোক ইসরায়েলের বর্তমান হুমকি কেবলি তাদের মনস্তাত্ত্বিক যুদ্ধের অংশ।

এর আগে, গতকাল মঙ্গলবার বর্ণবাদী ইসরায়েলের সামরিক বাহিনীর প্রধান লেফটেন্যান্ট জেনারেল আবিব কোহাবি দাবি করেছেন, তিনি প্রতিরক্ষা বাহিনীকে ইরানে হামলার ব্যাপারে বিদ্যমান পরিকল্পনার পাশাপাশি বাড়তি অনেকগুলো অভিযান পরিকল্পনা তৈরির নির্দেশনা দিয়েছেন। এর পরই ইরান ইসরায়েলের এই দাবি নিয়ে মুখ খুললো। সূত্র : পার্সটুডে।

বিডি-প্রতিদিন/শফিক


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৭ জানুয়ারি, ২০২১ ১৭:৫৮
প্রিন্ট করুন printer

করোনা ঠেকাতে হংকংয়ের রোবট ব্যবহারের উদ্যোগ

অনলাইন ডেস্ক

করোনা ঠেকাতে হংকংয়ের রোবট ব্যবহারের উদ্যোগ

সারাবিশ্বে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে মৃতের সংখ্যাও। আর এই প্রাণঘাতী ভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে রোবট ব্যবহারের উদ্যোগ নিয়েছে হংকংভিত্তিক প্রতিষ্ঠান হ্যান্সন রোবটিক্স। খবর রয়টার্সের।

প্রতিষ্ঠানটি জানিয়েছে, ২০২১ সালের মধ্যেই তারা এমন কিছু রোবট বাজারে আনবে, যেগুলো মানুষের মতোই স্বাস্থ্যসেবায় অগ্রণী ভূমিকা পালন করবে।

২০১৬ সালে হিউমেনয়েড রোবট সোফিয়া তৈরি করে সাড়া ফেলেছিল হ্যান্সন রোবটিক্স। এবার করোনা মহামারির সময়ে সোফিয়ার মতো রোবট স্বাস্থ্য খাতে ব্যবহারের কথা ভাবছে এর নির্মাতা প্রতিষ্ঠান।

প্রতিষ্ঠানের আশা চলতি বছরই কয়েকশ মানবিক বুদ্ধিসম্পন্ন রোবট প্রস্তুত করা হবে, যেগুলো অসুস্থ ও বয়স্ক মানুষদের সেবা করতে পারবে।

হ্যান্সন রোবটিক্স প্রতিষ্ঠাতা ডেভিড হ্যানসন জানান, প্রাথমিক পর্যায়ে স্বাস্থ্যসেবার জন্য আমরা ২০২১ সালেই বেশ কয়েকশ রোবট বাজারে আনতে যাচ্ছি। তবে এসব রোবট মহামারির সময়ে কেবল স্বাস্থ্যসেবাতেই সীমাবদ্ধ থাকবে না, পরবর্তী সময়ে শিল্প এবং বিমান গ্রাহকদের সহায়তায়ও আমাদের রোবটগুলো কাজ করতে পারবে।

বিডি প্রতিদিন/এমআই


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৭ জানুয়ারি, ২০২১ ১৬:৩২
আপডেট : ২৭ জানুয়ারি, ২০২১ ১৯:৫০
প্রিন্ট করুন printer

স্ত্রী ছেড়ে যাওয়ার পর ১৮ নারীকে খুন, পুলিশের জালে সিরিয়াল কিলার

অনলাইন ডেস্ক

স্ত্রী ছেড়ে যাওয়ার পর ১৮ নারীকে খুন, পুলিশের জালে সিরিয়াল কিলার
প্রতীকী ছবি

একজন বা দুজন নয়, মোট ১৬ জন নারীকে খুনের অভিযোগ ছিল তার বিরুদ্ধে। তা সত্ত্বেও জেলের বাইরে অবাধে ঘুরছিলেন এক সিরিয়াল কিলার। এমনকি তারপরেও দুজন নারীকে খুন করার অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। অবশেষে ভারতের হায়দরাবাদের সেই সিরিয়াল কিলারকে এবার গ্রেফতার করল পুলিশ।

মঙ্গলবার মাইনা রামুলু নামের ৪৫ বছর বয়সি ওই সিরিয়াল কিলারকে গ্রেফতার করা হয়। তার বিরুদ্ধে এর আগে ২১টি মামলা ঝুলছিল, যার মধ্যে ১৬টি খুনের মামলা, ৪টি সম্পত্তি সংক্রান্ত জালিয়াতি এবং পুলিশের হাত ছাড়িয়ে পালিয়ে যাওয়ার মতো মামলাও ছিল।

যে ১৬টি খুনের মামলা ছিল রামুলুর বিরুদ্ধে, তাতে নিহতেরা সকলেই নারী। সেই মামলায় আদালতে দোষী সাব্যস্ত হয় রামুলু। তারপরেও তেলঙ্গানা হাইকোর্টে আবেদন জানিয়ে জেলের বাইরে বেরিয়ে আসেন তিনি।

সম্প্রতি সিদ্দিপেট কমিশানেরেটের অন্তর্গত মুলুগু থানা এবং গটকেশ্বর থানায় দাখিল হওয়া ২টি খুনের মামলায় তার নাম উঠে আসে। তাতেই তাকে গ্রেফতার করা হয়।

হায়দরাবাদ সিটি পুলিশের কমিশনার অঞ্জনি কুমার জানান, ৩০ ডিসেম্বর সকাল থেকে স্ত্রী নিখোঁজ বলে গত ১ জানুয়ারি এক ব্যক্তি অভিযোগ করেন। তল্লাশি চলাকালীন ৪ জানুয়ারি রেললাইনের কাছ থেকে ওই নারীর দেহ উদ্ধার হয়। তার আগে সাইবারাবাদের বলানগরেও এক নারীর দেহ উদ্ধার হয়েছিল। সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখা যায়, ২টি ঘটনাতেই রামুলুর যুক্ত থাকার খবর মেলে। তারপর তার তল্লাশি শুরু হয়।

অঞ্জনি কুমার আরও জানান, আদতে সাঙ্গা জেলার আরুতলা গ্রামের বাসিন্দা রামুলু ২১ বছর বয়সে বাবা-মায়ের পছন্দের মেয়েকে বিয়ে করেন। কিন্তু বিয়ের পর কয়েক দিন পেরোতে না পেরোতেই স্ত্রী অন্য পুরুষের সঙ্গে পালিয়ে যায়। সেই থেকেই নারীদের প্রতি তার মনে বিদ্বেষ জন্ম নেয়।

যৌন সম্পর্ক স্থাপন করে নারীদের খুশি করার টোপ দিতেন তিনি। তারপর নেশা করিয়ে ওই নারীদের খুন করতেন। খুন করে নিহতদের টাকা, গয়না এবং মূল্যবান জিনিসও তিনি আত্মসাৎ করতেন বলে অভিযোগ। ওই ১৮ জন ছাড়াও রামুলু আর কোনো খুনের ঘটনা ঘটিয়েছে কি না, তা জানতে তদন্ত শুরু হয়েছে বলেও জানান তিনি।

সূত্র : আনন্দবাজার

বিডি প্রতিদিন/এমআই


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৭ জানুয়ারি, ২০২১ ১৬:০০
আপডেট : ২৭ জানুয়ারি, ২০২১ ১৬:৩১
প্রিন্ট করুন printer

ভ্যাকসিন আপনাদের জীবন রক্ষা করবে: কমলা হ্যারিস

অনলাইন ডেস্ক

ভ্যাকসিন আপনাদের জীবন রক্ষা করবে: কমলা হ্যারিস

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিস করোনাভাইরাস প্রতিরোধে তৈরি ভ্যাকসিনের দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন। মঙ্গলবার দেশটির জাতীয় স্বাস্থ্য সংস্থায় (এনআইএইচ) ভাইরাসটির ভ্যাকসিন গ্রহণ করেছেন তিনি। এ সময় কমলা মার্কিন নাগরিকদের করোনার প্রতিষেধক গ্রহণে তৎপর হওয়ার নির্দেশনা দিয়েছেন বলে জানিয়েছে এনডিটিভি।

তার ভ্যাকসিন গ্রহণ টেলিভিশনে সরাসরি সম্প্রচার করা হয়েছে। এসময় তিনি বলেন, সবাইকে আমি ভ্যাকসিন নেয়ার অনুরোধ করছি। এটি আপনাদের জীবন রক্ষা করবে।

জানা যায়, করোনা ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজটি গত ২৯ ডিসেম্বর গ্রহণ করেছিলেন কমলা।

নতুন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনও মার্কিন নাগরিকদের ভ্যাকসিন প্রদানে দৃঢ় প্রতিজ্ঞ। তিনি তার প্রথম ১০০ কার্দিবিসের মধ্যেই ১০ কোটি নাগরিককে ভ্যাকসিন দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।


বিডি প্রতিদিন/ ওয়াসিফ


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর