সোমবার, ২৬ এপ্রিল, ২০২১ ০০:০০ টা

আর্মেনিয় হত্যাকান্ডকে ‘গণহত্যা’ ঘোষণা বাইডেনের

প্রথম বিশ্বযুদ্ধে অটোমানদের হাতে বিপুল সংখ্যক আর্মেনীয়র মৃত্যুর ঘটনাকে ‘গণহত্যা’ হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়ার পর আঙ্কারায় নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূতকে তলব করেছে তুর্কি সরকার। রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আর্মেনিয়ায় তুরস্কের সেনাবাহিনী গণহত্যা চালিয়েছে বলে স্বীকৃতি দেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। দেশটির সরকার জানিয়েছে, অটোমান সেনারা প্রথম বিশ্বযুদ্ধের সময় আর্মেনিয়ায় গণহত্যা চালিয়েছে। শনিবার জো বাইডেন বলেন, মেডস ইয়েগহার্নে নিহতদের প্রতি আমরা সম্মান প্রদর্শন করি। সেখানে যে বীভৎস ঘটনা ঘটেছে তা কখনো ইতিহাস থেকে মুছে যাবে না। জো বাইডেন প্রথম মার্কিন প্রেসিডেন্ট যিনি আর্মেনিয়ার হত্যাকান্ডকে কথিত গণহত্যা বলে আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা দিলেন।

যদিও মার্কিন প্রেসিডেন্টের এই বক্তব্যকে কড়া ভাষায় প্রত্যাখ্যান করেছে তুরস্কের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। তারা জানিয়েছে, বাইডেনের বক্তব্যের কোনো পান্ডিত্যপূর্ণ ও আইনগত ভিত্তি নেই; এটি কোনো তথ্য-প্রমাণ দ্বারাও সমর্থিত নয়। আমরা মার্কিন প্রেসিডেন্টের এই বড় রকমের ভুল সংশোধনের আহ্বান জানাই। তুর্কি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় আরও জানিয়েছে, আঙ্কারায় নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূতকে তলব করা হয়েছে। তাকে তলব করে তুরস্কের উপ-পররাষ্ট্রমন্ত্রী সাদাত ওনাল বলেছেন, বাইডেনের এই পদক্ষেপে দুই  দেশের মধ্যকার সম্পর্ক মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হবে যা ঠিক করা কঠিন হবে। জবাবে তুরস্কের মার্কিন দূতাবাস থেকে বলা হয়েছে, তাদের কূটনৈতিক মিশন ২৬ থেকে ২৭ এপ্রিল পর্যন্ত বন্ধ থাকবে। এদিকে, তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেপ এরদোগান বলেছেন, তৃতীয় কোনো পক্ষের হস্তক্ষেপের কারণে বাইডেন সরকার এই উদ্যোগ নিয়েছে। তুর্কি প্রেসিডেন্ট আরও বলেছেন, এই বিতর্কে কেউ লাভবান হবে না। তবে আর্মেনিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় যুক্তরাষ্ট্রের এই ঘোষণাকে স্বাগত জানিয়েছে।