রবিবার, ৪ জুলাই, ২০২১ ০০:০০ টা

দাবদাহে পুড়ছে কানাডা মৃত্যু বেড়ে সহস্রাধিক

সর্বোচ্চ তাপমাত্রার রেকর্ড ফের ভাঙল কুয়েত

দাবদাহে পুড়ছে কানাডা মৃত্যু বেড়ে সহস্রাধিক

তীব্র দাবদাহে সৃষ্ট দাবানলে পুড়ছে ব্রিটিশ কলম্বিয়ার পাহাড় -এএফপি

তীব্র দাবদাহে পুড়ছে কানাডা। একদিকে দাবানল অন্যদিকে বাড়ছে মৃত্যুর সংখ্যা। তীব্র দাবদাহে কানাডার ব্রিটিশ কলম্বিয়া প্রদেশে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে সহস্রাধিক। সূত্র : বিবিসি।

কর্তৃপক্ষ বলেছে, অতিরিক্ত তাপমাত্রায় অস্বাভাবিক মৃত্যুর হার বেড়ে গেছে। রেকর্ড ভাঙা তাপমাত্রায়  ভোগান্তিতে সাধারণ মানুষ। চলতি সপ্তাহে দেশটিতে ৪৬ দশমিক ৬ ডিগ্রি থেকে ৫০ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে। বিশেষ করে মধ্য কানাডার ব্রিটিশ কলম্বিয়ার পরিস্থিতি নাজুক।  সেখানকার প্রধান লিসা লাপয়েন্তে গত শুক্রবার দেশটির বাসিন্দাদের বলেন, ‘অনুগ্রহ করে পরিবার, বন্ধু-বান্ধব, প্রতিবেশী এবং বিশেষ করে যারা একা থাকেন তাদের  খোঁজ নিন’।

এদিকে দাবদাহের মধ্যেই যুক্ত হয়েছে দাবানল। এতে ঝুঁকিতে পড়েছেন বহু মানুষ। কলম্বিয়ার ফায়ার সার্ভিস একাধিক দাবানলের কথা জানিয়েছে। এরই মধ্যে পুড়ে  গেছে অনেক জায়গায়। সেখানকার দমকল বাহিনীর মুখপাত্র এরিক বার্গ জানিয়েছেন, ‘দাবানল নতুন নতুন জায়গায় দেখা দিচ্ছে’। ঝুঁকিপূর্ণ এলাকা থেকে প্রায় ১ হাজার মানুষকে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।

‘হিট ডোম’-এর প্রভাবে কানাডার ইতিহাসে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে। বায়ুমন্ডলে সাগরের উষ্ণ বায়ু আটকে পড়লে যে উচ্চচাপ তৈরি হয় তাকে হিট  ডোম বলা হয়। মারাত্মক এই তাপদাহের কারণে  সেখানকার শত শত মানুষের মৃত্যুর কথা জানিয়েছেন কর্মকর্তারা। এ অবস্থায় নাগরিকদের সতর্ক থাকার পরামর্শ দিচ্ছে সরকার। প্রাপ্ত খবরে আরও জানা গেছে, পশ্চিমাঞ্চলে তীব্র দাবদাহ এবং বজ্রপাত থেকে দাবানল ছড়িয়ে পড়েছে। ১৩০টির বেশি ছোটবড় দাবানলের কারণে লোকজনের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। দাবানল নিয়ন্ত্রণ কর্মকর্তাদের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, ব্রিটিশ, কলম্বিয়া প্রদেশে কমপক্ষে শতাধিক দাবানল সক্রিয় রয়েছে। এর মধ্যে ৭৭টি সৃষ্টি হয়েছে গত দুদিনে। এগুলোর বেশির ভাগই বজ্রপাত থেকে সৃষ্টি। দাবানলের আগুন নেভাতে স্থানীয় দমকল কর্মীদের ঘটনাস্থলে পাঠানো হয়েছে। এছাড়া ব্রিটিশ কলম্বিয়ার প্রায় ১ হাজার বাসিন্দা দাবানল  থেকে বাঁচতে ঘরবাড়ি ছেড়ে পালিয়েছে। এখনো অনেকেই নিখোঁজ রয়েছে।

তাপমাত্রার রেকর্ড ফের ভাঙল কুয়েত : কুয়েতের উত্তরাঞ্চলীয় শহর আল জাহরার তাপমাত্রা শনিবার ৫৩ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসে পৌঁছেছে, যা চলতি বছরে গোটা বিশ্বের মধ্যে সর্বোচ্চ। এর আগের  রেকর্ডটিও ছিল কুয়েতের। গত ২২ জুন দেশটির নুওয়াইসিব শহরে চলতি বছরের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৫৩ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়েছিল। প্রতিবেশী দেশগুলোর তুলনায় ২০২১ সালে কুয়েতের তাপমাত্রা অনেক বেশি লক্ষ্য করা যাচ্ছে।

গত ১ জুলাই ইরাকের তাপমাত্রা উঠেছিল ৫১ দশমিক ৬ ডিগ্রিতে, একই সময় ইরানের ওমিদিয়া শহরের তাপমাত্রা ছিল সর্বোচ্চ ৫১ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এ ছাড়া সংযুক্ত আরব আমিরাত, ওমান ও সৌদি আরবের মতো দেশগুলোতেও গত জুন মাসে ৫০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের বেশি তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে।

 

মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলো বরাবরই উষ্ণ আবহাওয়ার দেশ হিসেবে পরিচিত। সেখানে গ্রীষ্মকালে তাপমাত্রা স্বাভাবিকভাবেই ৪০ ডিগ্রির ওপরে থাকে। তবে চলতি বছর তুলনামূলক বেশি গরম পড়ছে অঞ্চলটিতে। নরওয়েজিয় পর্যবেক্ষক সংস্থা টাইম অ্যান্ড ডেটের হিসাবে, গত ৫ জুন কুয়েত এবং দোহা ছিল পৃথিবীর উষ্ণতম রাজধানী। সেদিন এ দুটি শহরের তাপমাত্রা ৪৮ ডিগ্রিতে  পৌঁছেছিল।

এই বিভাগের আরও খবর