শিরোনাম
প্রকাশ : সোমবার, ২৬ জুলাই, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৬ জুলাই, ২০২১ ০০:০০

তালেবান রুখতে আফগানিস্তানে কারফিউ

তালেবান রুখতে আফগানিস্তানে কারফিউ
Google News

তালেবান বাহিনীর অগ্রযাত্রা ঠেকাতে আফগানিস্তানজুড়ে কারফিউ জারি করেছে দেশটির সরকার। তালেবানরা যেন শহর দখল করতে না পারে, মূলত সে লক্ষ্যেই এই কারফিউ। দেশটিতে রাত ১০টা থেকে ভোর ৪টা পর্যন্ত সব ধরনের চলাফেরায় নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছে।

বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, শনিবার থেকে এই কারফিউ জারি করা হয়েছে। শুধু রাজধানী কাবুল এবং দুটি প্রাদেশিক শহর নানগরহর ও পাঞ্জশির এই নিষেধাজ্ঞার বাইরে থাকছে। আফগান স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে জানানো হয়, সহিংসতা রোধে এবং তালেবানের চলাচল সীমিত করতে ৩১টি প্রদেশে কারফিউ জারি করা হয়েছে। তবে রাজধানী কাবুলসহ পাঞ্জশির ও নানগরহর এর বাইরে থাকবে।

ধারণা করা হচ্ছে, উগ্র গোষ্ঠীটি আফগানিস্তানের প্রায় অর্ধেক অংশের দখল নিয়েছে। আফগানিস্তান থেকে মার্কিন সৈন্য প্রত্যাহারের পরপরই তালেবানরা দেশটির সীমান্ত অঞ্চলসহ বেশকিছু এলাকা দখল করে। বেশ কয়েকটি প্রধান সড়কপথও দখল করেছে তারা। ২০ বছর আগে আফগানিস্তানে যুক্তরাষ্ট্রের আক্রমণের পর ক্ষমতাচ্যুত হয় কট্টর ইসলামপন্থি জঙ্গি গোষ্ঠী তালেবান। আফগানিস্তানের অভ্যন্তরীণ মন্ত্রী এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, ‘সহিংসতা কমানো এবং তালেবানদের চলাচল সীমিত রাখার উদ্দেশ্যে ৩১টি প্রদেশে কারফিউ জারি করা হয়েছে।’

২০০১ সালের অক্টোবরে যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্বাধীন বাহিনী আফগানিস্তানের ক্ষমতা থেকে তালেবানদের উৎখাত করে। যুক্তরাষ্ট্রে ২০০১ সালের ১১ সেপ্টেম্বরের বিমান হামলার সঙ্গে জড়িত থাকা সংগঠন আল-কায়েদা ও দলটির নেতা ওসামা বিন লাদেনকে জঙ্গি সংগঠনটি সহযোগিতা করছিল। মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন সম্প্রতি মন্তব্য করেছেন, আফগানিস্তান থেকে যুক্তরাষ্ট্রের সেনা প্রত্যাহার যৌক্তিক কারণ তারা নিশ্চিত করেছেন যে আফগানিস্তান পশ্চিমাদের আক্রমণ করার পরিকল্পনা করা জঙ্গি গোষ্ঠীদের ঘাঁটি হতে পারবে না।

এই মাসের শুরুতে বাগরাম বিমান ঘাঁটি ত্যাগ করে মার্কিন সেনা সদস্যরা। আফগানিস্তানে মার্কিন কার্যক্রমের প্রধান কেন্দ্র ছিল এই বাগরাম ঘাঁটি। যুক্তরাষ্ট্রের গোয়েন্দা সংস্থার বিশেষজ্ঞদের তৈরি এক প্রতিবেদনে আশঙ্কা প্রকাশ করা হয় যে, ছয় মাসের মধ্যে তালেবান আফগানিস্তানের ক্ষমতা দখল করতে পারে।