সোমবার, ২৬ জুলাই, ২০২১ ০০:০০ টা

বন্যায় মহারাষ্ট্রে মৃত্যু বেড়ে ১১২, কর্ণাটকে ৯

ভারতের দক্ষিণ-পশ্চিম অংশে ভারী বৃষ্টি চলছেই। তার জের বন্যা, ধস। গত বৃহস্পতিবার থেকে কর্নাটকে লাগাতার চলছে বৃষ্টি। তার জেরে মৃত্যু হয়েছে ৯ জনের। নিখোঁজ ৩ জন। মহারাষ্ট্রে বন্যা ও ভূমিধসে এ পর্যন্ত ১৩৮ জনের প্রাণহানির খবর পাওয়া গেছে। এই রাজ্যের ৮৪ হাজার বাসিন্দাকে অন্যত্র সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। গোয়ায় কয়েক শ’ ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত হয়েছে। অন্যত্র সরিয়ে নেওয়া হয়েছে চারশ’র বেশি মানুষকে। এদিকে, মুম্বাইয়ে এখনো জারি রয়েছে রেড এলার্ট। বিভিন্ন আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

এদিকে মহারাষ্ট্রে রায়গড় জেলার মহাদ এলাকায় ধস নেমে মাটিতে মিশে গেছে শত শত বাড়ি। ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার হয়েছে ৭৩ জনের দেহ। ৪৭ জন এখনো নিখোঁজ। ৪৪ জনের দেহই মিলেছে মহাদের তালিয়ে গ্রামে। সেখানে পরিস্থিতি পরিদর্শন করেছেন মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে।

আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে, গোয়া, কর্নাটক, মহারাষ্ট্রে আরও ভারী বৃষ্টি হবে। আগামী ২৪ ঘণ্টায় হিমাচল প্রদেশ, উত্তরাখন্ড, হরিয়ানা, উত্তরপ্রদেশে ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে। কিছু জায়গায় হতে পারে বন্যা।

এদিকে শনিবার সন্ধেবেলা মধ্যপ্রদেশের শেওপুর জেলায় জলমগ্ন সেতাউর ওপর দিয়ে যাওয়ার সময় পিছলে যায় যাত্রীসমেত বাস। বাসে সওয়ার ছিলেন ৫০ জন। বারগাভান গ্রামে মিঠি নদীর ওপর ওই সেতু ছিল। পুলিশি তৎপরতায় সব যাত্রীদেরই বাস থেকে নিরাপদে বের করে আনা হয়েছে। এদিকে, নতুন করে বন্যা পরিস্থিতি দেখা দিয়েছে গোয়ায়। টানা ভারী বর্ষণে ভূমিধসের ঘটনাও ঘটছে রাজ্যটিতে। বন্যার পানিতে ডুবে গেছে বহু ঘরবাড়িসহ নানা স্থাপনা। মা-বী, দুধসাগর, খান্দেপার, চাপোরা, বলবন্তীর মতো বেশ কয়েকটি নদীর পানি বিপদসীমার ওপর দিয়ে বইছে।