শিরোনাম
প্রকাশ : ১৪ জুন, ২০২১ ২০:০৯
প্রিন্ট করুন printer

১ জুলাই পর্যন্ত বাড়ল পশ্চিমবঙ্গের বিধিনিষেধ এর মেয়াদ

অনলাইন ডেস্ক

১ জুলাই পর্যন্ত বাড়ল পশ্চিমবঙ্গের বিধিনিষেধ এর মেয়াদ
Google News

করোনা সংক্রমণ রুখতে পশ্চিমবঙ্গে চলমান বিধিনিষেধ এর মেয়াদ বাড়িয়ে আগামী ১ জুলাই পর্যন্ত করা হয়েছে। এই সংক্রমণ রোধে আগামী ১৫ জুন পর্যন্ত যে বিধিনিষেধ চালু আছে, আগামী ১৬ জুন থেকে সেই মেয়াদ বাড়িয়ে ১ জুলাই পর্যন্ত করানো হয়েছে। তবে ধীরে ধীরে পশ্চিমবঙ্গে করোনায় আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা কমায় আগামী ১৬ জুন থেকে একাধিক বিধিনিষেধে শিথিল আনা হচ্ছে।

সোমবার রাজ্য সরকারের সচিবালয় নবান্নে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির উপস্থিতিতে রাজ্যটির মুখ্যসচিব এইচ.কে.দ্বিবেদী নতুন বিধিনিষেধ ঘোষণা করেন। নতুন বিধিনিষেধ অনুযায়ী ১৬ জুন থেকে ২৫ শতাংশ কর্মী নিয়ে চালু হবে সরকারি অফিস। সকাল ১০ টা থেকে বিকাল ৪ টা পর্যন্ত খোলা থাকবে বেসরকারি সংস্থা। ২৫ শতাংশ কর্মী নিয়ে অফিস খুলতে পারবে বেসরকারি সংস্থাগুলি। 

যদিও এখনই লোকাল ট্রেন, মেট্রো বা বাস পরিষেবা চালু করা হচ্ছে না, তবে স্টাফ স্পেশাল চালু থাকবে। স্বাস্থ্য পরিষেবার ক্ষেত্রে অটো (সিএনজি) পরিষেবায় ছাড় দেওয়া হয়েছে। সকার ১০ টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত ব্যঙ্ক খোলা থাকবে। আগের মতোই এই সময়কালে রাত ৯ টা থেকে ভোর ৫ টা পর্যন্ত জারি থাকবে নাইট কারফিউ অর্থাৎ জরুরি কারণ ছাড়া যানবাহন, রাস্তায় বেরনোর ওপরও কড়া নিষেধাজ্ঞা জারি থাকছে। 
টিকাকারণের দুইটি ডোজ নেওয়া থাকলে একমাত্র তবেই সকাল ৬ টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত পার্কে প্রবেশের অনুমতি পাবেন। দর্শক শূন্য আসন নিয়ে স্টেডিয়ামে খেলা হবে। বন্ধ থাকবে সমস্ত ধরনের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। বাজার, হাট, সবজি, দুধ, ডিম, মাংসের দোকান খোলা থাকবে সকাল ৭ টা থেকে ১১ টা পর্যন্ত। অন্যান্য দোকান খোলা থাকবে সকাল ১১ টা থেকে বিকাল ৬ পর্যন্ত। ৫০ শতাংশ উপস্থিতি রেস্তোরাঁ, হোটেল, বার বেলা ১২ টা থেকে রাত ৮ টা পর্যন্ত খোলা যাবে।  

মাত্র ৫০ শতাংশ উপস্থিতি নিয়ে ইন্ডোর-আউটডোর শ্যুটিং ও সেই সম্পর্কিত কাজ করার অনুমতি দেওয়া হয়েছে। সকাল ১১ টা থেকে সন্ধ্যা ৭ টা পর্যন্ত খোলা থাকবে শপিং মল, তবে সেক্ষেত্রে ৩০ শতাংশের বেশি গ্রাহককে ভিতরে প্রবেশ করানো যাবে না। সমস্ত ধরনের রাজনৈতিক সমাবেশ, সামাজিক, সাংস্কৃতিক, শিক্ষা, বিনোদনমূলক জমায়েতও নিষিদ্ধ করা হয়েছে। বন্ধ থাকবে স্পা, জিম এবং মাল্টিপ্লেক্স ও সিনেমা হল। 
যদিও স্বাস্থ্য, দুধ, যদিও মেডিকেল, চশমার দোকান, টিকাকরণ কেন্দ্র, বিদুৎ, ফায়ার সার্ভিস, গণমাধ্যম সহ সমস্ত জরুরি পরিষেবা চালু রাখা হবে। 
রবিবার প্রকাশিত স্বাস্থ্য বুলেটিন অনুযায়ী গত চব্বিশ ঘণ্টায় করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন ৩৯৮৪, সবমিলিয়ে এখনও পর্যন্ত রাজ্যে আক্রান্তের সংখ্যা ১৪,৬১,২৫৭। রবিবার পর্যন্ত এই ভাইরাসে রাজ্যে মৃত্যুর সংখ্যা ১৬,৮৯৬ জন, এর মধ্যে গত চব্বিশ ঘন্টায় মৃত্যু হয়েছে ৮৪ জনের।  

বিডি-প্রতিদিন/সালাহ উদ্দীন

এই বিভাগের আরও খবর