Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ২৩:৪৩

অষ্টম কলাম

শতকেজির বাঘইর ১০ কেজির মিষ্টি

আবদুর রহমান টুলু, বগুড়া

শতকেজির বাঘইর ১০ কেজির মিষ্টি

মিষ্টি, ফার্নিচার, মেলার হাঁকডাক আর মাছ কেনাকাটার মধ্য দিয়ে শেষ হলো ২০০ বছরের ঐতিহ্যবাহী পোড়াদহ মেলা। ১০০ ও ৮০ কেজির বাঘাইড়, ৩০ কেজির কাতল, ৩৭ কেজির সিলভার কার্প, ১৮ কেজির বোয়াল, ১২ কেজির গাঙচিতলসহ নানা নামের নানা ওজনের মাছে মাছে ভরে ছিল এ মেলা। এর পাশাপাশি মিষ্টি ও ফার্নিচারের মেলাও জমজমাট। মেলা ঘিরে প্রায় ৩০ গ্রামের মেয়ে ও মেয়েজামাইদের বড় মাছ ও মিষ্টি দিয়ে আপ্যায়ন করা হয়। কোটি কোটি টাকার কেনাবেচা হয় এ মেলায়। শত কেজি ওজনের বাঘাইড়ের দাম ১ লাখ ২০ হাজার টাকা। তবে কেউ এককভাবে মাছটি না কেনায় কেটে বিক্রি করা হয়। প্রতি কেজি বিক্রি হয় ১২৫০ টাকায়। গতকাল সকাল ১০টার দিকে মাছটি কেটে বিক্রি শুরু হয়। স্থানীয় ছয় মাছ ব্যবসায়ী গাবতলীর চকমড়িয়ার ভোলা, কাশেম, লাল মিয়া, নান্নু, জলিল ও মোস্তা বিশালাকৃতির মাছ মেলায় নিয়ে এসেছেন। যমুনা নদীর ৮০ কেজি ওজনের বাঘাইড় কেটে বিক্রি করছেন ১২০০ টাকা কেজি দরে। আর ১০০ কেজি ওজনের বিশালাকৃতির বাঘাইড় বিক্রি করেন ১২৫০ টাকা কেজিতে। এ ছাড়া এই মেলায় ১৭ কেজি ওজনের বোয়াল মাছের দাম হাঁকা হয়েছে প্রতি কেজি ১৬০০ টাকা, ১৫ থেকে ১৮ কেজি ওজনের কাতল ২২০০ টাকা, ৮ থেকে ১০ কেজি ওজনের কাতলা ১২০০ টাকা, ১০ কেজির ওপরে আইড় মাছ ১২০০ থেকে ১৫০০ টাকা কেজি বিক্রি হচ্ছে। এ ছাড়া রুই, পাঙ্গাশ, ব্রিগেডসহ অন্যান্য জাতের মাছ উঠেছে মেলায়। মেলায় আসা বগুড়া শহরের ফুলবাড়ী এলাকার ব্যবসায়ী তরুণ রাজনীতিবিদ রাশেদুল আলম শাওন জানান, তিনি সকালে ৮ কেজি ওজনের একটি কাতল মাছ প্রতি কেজি ১২০০ টাকা দরে কিনেছেন। মেলা ঘিরেই শুধু মাছ বিক্রি হচ্ছে না। এই মেলার দিনে বগুড়া শহরের ফতেহ আলী বাজারেও ১০০ কেজি ওজনের চারটি বাঘাইড় মাছ নিয়ে আসা হয়। মাছেল দোকানগুলো বিভিন্ন রঙের কাগজ দিয়ে সাজানো হয়। মাছ ব্যবসায়ীরা জানান, মেলায় স্থানসংকুলান না হওয়ায় প্রায় ১ কোটি টাকার মাছ বাজারে নেওয়া হয়েছে। এ মাছ এখানেই বিক্রি হবে। বগুড়া শহরের মারতিনগরের আলমগীর হোসেন জানান, পোড়াদহ মেলায় স্থান না পাওয়ায় ফতেহ আলী বাজারে তারা মাছ বিক্রি শুরু করেছেন। মেলায় ১০০ কেজির পাশাপাশি এই বাজারেও বিভিন্ন ধরনের ও সাইজের মাছ বিক্রি হচ্ছে। মেলার জন্য ১০ কেজি ওজনের মাছ আকৃতির মিষ্টি তৈরি করেছেন ব্যবসায়ী আনছার আলী। এ মিষ্টির দাম হাঁকা হয়েছে ৪ হাজার টাকা। এ ছাড়া ১ কেজি, ২ কেজি, ৩ কেজি, ৪ কেজি ওজনের মিষ্টিও মেলায় পাওয়া যাচ্ছে প্রায় সব দোকানে।


আপনার মন্তব্য