শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ১৫ মে, ২০১৮ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৪ মে, ২০১৮ ২৩:১০

শেষ মুহূর্তে অভিযোগের শেষ নেই

নিজস্ব প্রতিবেদক, খুলনা থেকে

শেষ মুহূর্তে অভিযোগের শেষ নেই

খুলনা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে শেষ মুহূর্তেও অভিযোগের শেষ নেই প্রার্থীদের। এই নির্বাচনে মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী প্রধান দুই প্রার্থী তালুকদার আবদুল খালেক ও নজরুল ইসলাম মঞ্জু গতকালও পাল্টাপাল্টি সংবাদ সম্মেলন করেছেন। সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি প্রার্থী মঞ্জু নিজের নানা শঙ্কার কথা জানালেও আওয়ামী লীগ প্রার্থী খালেক আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন। প্রার্থীরা  জানিয়েছেন নিজ কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ শুরুর প্রথম ঘণ্টায়ই ভোট দেবেন তারা। মেয়র পদে আরেকবার জনগণের সমর্থন চেয়েছেন আওয়ামী লীগের প্রার্থী তালুকদার আবদুল খালেক। ভোটের আগের দিন গতকাল পুরাতন যশোর রোডের মহানগর আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্যের এক পর্যায়ে কেঁদে ফেলেন দক্ষিণাঞ্চলের বর্ষীয়ান এই আওয়ামী লীগ নেতা। তিনি বলেন, ‘আমি পাঁচ বছর দায়িত্ব পালন করে হেরেছি। আমি আর নির্বাচন করব না ভেবেছি। আমার দল, আমার নেত্রী আমাকে ভালো লাগায় (মনোনয়ন) দিয়েছেন। আমি সারাজীবন এই খুলনার উন্নতি করতে চাই। খুলনার মানুষের সঙ্গে আমার শেষ জীবন আমি থাকতে চাই।’ তালুকদার খালেক অভিযোগ করেন, পাঁচ বছর ধরে মেয়রের দায়িত্ব পালন করলেও সিটি করপোরেশনে জলাবদ্ধতা নিরসন, রাস্তাঘাট ঠিক করার মতো সেবামূলক কাজ বিএনপির মনি করতে পারেননি। বিএনপি মনোনীত ধানের শীষ প্রতীকের মেয়র প্রার্থী নজরুল ইসলাম মঞ্জু অভিযোগ করেন, সরকার কেসিসিতে আওয়ামী লীগ প্রার্থীকে জয়ী করতে ‘ইলেকশন ইঞ্জিনিয়ারিং’ করছে। পুলিশের নেতৃত্বে রাতেই ব্যালট পেপারে সিল মেরে বাক্স ভরার ষড়যন্ত্র চলছে। একই সঙ্গে পুলিশ শেষ রাতে বিএনপির ভোট ব্যাংক হিসেবে পরিচিত এলাকায় ব্লক রেইডের নামে হিংস  রূপে হানা দেওয়ারও পরিকল্পনা করেছে। সরকারের মন্ত্রী এবং এমপিসহ সিনিয়র নেতারাও এর সঙ্গে যুক্ত হয়েছেন। মঞ্জু বলেন, ‘আওয়ামী লীগ বহিরাগত সন্ত্রাসীদের এনে শহরের হোটেল, রেস্ট হাউস ও আবাসিক কোয়ার্টারসহ বিভিন্ন এলাকায় ভাগ ভাগ করে রেখেছে।

মেয়র প্রার্থীরা কে কোথায় ভোট দেবেন : আওয়ামী লীগ প্রার্থী তালুকদার আবদুল খালেক সকাল ৮টায় মহানগরীর পাইওনিয়ার বালিকা বিদ্যালয়ের ভোট কেন্দ্রে ভোট প্রদান করবেন বলে জানিয়েছে আওয়ামী লীগের নির্বাচন পরিচালনা মিডিয়া উপ-কমিটির অফিস সেক্রেটারি খুলনা জেলা যুবলীগের দফতর সম্পাদক আসাদুজ্জামান রিয়াজ।

অন্যদিকে বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী নজরুল ইসলাম মঞ্জু মহানগরীর রহিমা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে সকাল সাড়ে ৮টায় ভোট প্রদান করবেন বলে জানিয়েছেন বিএনপির নির্বাচন পরিচালনা মিডিয়া উপ-কমিটির সদস্য সচিব এহতেশামুল হক শাওন। জাতীয় পার্টির প্রার্থী এস এম শফিকুর রহমান মুশফিক সকাল ৯টায় ভোট প্রদান করবেন খুলনা আলিয়া মাদ্রাসা কেন্দ্রে। ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ মনোনীত প্রার্থী মাওলানা মুজাম্মিল হক মহানগরীর রেভা. পলস্ হাইস্কুল কেন্দ্রে ভোট প্রদান করবেন। আর সিপিবি মনোনীত প্রার্থী মো. মিজানুর রহমান বাবু ভোট প্রদান করবেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী কলেজ কেন্দ্রে।

দুটি ভোট কেন্দ্রে নতুন ইলেকট্রনিক  ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোটগ্রহণ করা হবে। কেন্দ্র দুটি হলো— ২৪ নম্বর ওয়ার্ডের ২০৬ নম্বর কেন্দ্র ও ২৭ নম্বর ওয়ার্ডের ২৩৯ নম্বর কেন্দ্র। প্রায় ২০০ পর্যবেক্ষক নির্বাচন পর্যবেক্ষণ করবেন।


আপনার মন্তব্য