শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ১৫ মে, ২০১৮ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৪ মে, ২০১৮ ২৩:১৩

গ্রেফতার আসামি ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত

কুমিল্লায় ডাকাত নিহত

ময়মনসিংহ প্রতিনিধি

ময়মনসিংহে চাঞ্চল্যকর পিউ বাবু হত্যা মামলার প্রধান আসামি সারফান ইসলাম ওরফে বাবু (২৮) পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছেন। ডিবি পুলিশ জানায়, গতকাল রাত আড়াইটার দিকে নগরীর তিন কোণা পুকুরপাড় এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। আগেরদিন বাবুকে গ্রেফতার করা হয়েছিল। পুলিশ জানিয়েছে, বাবু একাধিক হত্যা ও পাঁচটি অস্ত্র মামলার আসামি ছিলেন। তিনি নগরীর কাঁচিঝুলি এলাকার মৃত সামছুল হকের ছেলে। এসআই পরিমল জানান, ময়মনসিংহ ডিবি পুলিশ রবিবার বাবুকে ঢাকা থেকে গ্রেফতার করে। পরে তাকে নিয়ে ডিবির একটি যৌথ টিম তিনকোণা পুকুর পাড়ে অভিযান চালায়। এ সময় বাবুর ৮-১০ জন অনুসারী পুলিশের ওপর গুলি চালায়। তখন পুলিশও পাল্টা গুলি চালায় এবং এ সুযোগে বাবু পালানোর চেষ্টা করে। তখন গোলাগুলির মধ্যে পড়ে তিনি গুলিবিদ্ধ হন। পরে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তিনি মারা যান। বন্দুকযুদ্ধে পুলিশের দুই সদস্যও আহত হয়েছেন।

কুমিল্লায় ডাকাত নিহত : কুমিল্লা প্রতিনিধি পুলিশের বরাত দিয়ে জানিয়েছেন, ডাকাতের গুলিতে দেলোয়ার হোসেন (২৫) নামে এক ডাকাত নিহত হয়েছে। নাঙ্গলকোট উপজেলার গোমকোট গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে। নিহত দেলোয়ার নোয়াখালী জেলার হাতিয়া উপজেলার আহমেদপুর গ্রামের সেলিম উদ্দিনের ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, গতকাল ভোর রাতে নাঙ্গলকোট উপজেলার গোমকোট গ্রামে প্রফুল্ল চন্দ্র দেবনাথের বাড়িতে ডাকাতদল হানা দেয়। এ সময় লোকজনের চিৎকারে স্থানীয় লোকজন মসজিদের মাইকে ঘোষণা দিলে গ্রামবাসী ডাকাত দেলোয়ারকে আটক করে গণপিটুনি দেয়। অন্য ডাকাতরা তাকে ছিনিয়ে নেওয়ার জন্য গুলি চালাতে থাকে। গুলিতে বাড়ির বিধান চন্দ্র দেবনাথ, রিগান চন্দ্র দেবনাথসহ তার দুই ভাই এবং আটককৃত ডাকাত দেলোয়ার আহত হয়। পরে তাদের নাঙ্গলকোট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। নাঙ্গলকোট থানার ওসি মোহাম্মদ আইয়ুব জানান, দেলোয়ারকে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে সে মারা যায়।


আপনার মন্তব্য