প্রকাশ : শুক্রবার, ১৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০২:১৩

ডাকসু নির্বাচন নিয়ে আলোচনায় বসছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন

নিজস্ব প্রতিবেদক

ডাকসু নির্বাচন নিয়ে আলোচনায় বসছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) নির্বাচন নিয়ে আলোচনা করতে ছাত্র সংগঠনগুলোকে চিঠি দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। ১৬ সেপ্টেম্বর বেলা সাড়ে ১১টায় ভিসি অফিস-সংলগ্ন একটি কক্ষে এ সভা অনুষ্ঠিত হবে। চিঠিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় পরিবেশ পরিষদের সভা হিসেবে সভাটি আহ্বান করা হলেও চিঠির আলোচ্যসূচিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) ও হল সংসদ নির্বাচন প্রসঙ্গে আলোচনার উল্লেখ রয়েছে। ডাকসু নির্বাচন না করায় আদালত অবমাননার মামলা হওয়ার পর গতকাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসে সক্রিয় ছাত্র সংগঠনগুলোর সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক বরাবরে এ চিঠি পাঠানো হয়। ওই চিঠিতে স্বাক্ষর করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক এ কে এম গোলাম রাব্বানী। চিঠিতে বলা হয়, ‘সার্বিক বিষয় বিবেচনায় শুধু ক্রিয়াশীল ছাত্রসংগঠনের কেন্দ্রীয় ও বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক সভায় যোগদানের জন্য আমন্ত্রিত। সভায় উপস্থিত থাকার জন্য আপনাকে অনুরোধ করছি।’ প্রতি বছর ডাকসু নির্বাচন হওয়ার কথা থাকলেও দেশ স্বাধীন হওয়ার পর ভোট হয়েছে মাত্র ছয়বার। সর্বশেষ ১৯৯০ সালের ৬ জুন ডাকসু নির্বাচনের পর বেশ কয়েকবার উদ্যোগ নেওয়া হলেও সে নির্বাচন আর হয়নি।

 ছয় বছর আগের একটি রিট আবেদনের নিষ্পত্তি করে চলতি বছর ১৭ জানুয়ারি এক রায়ে হাই কোর্ট ছয় মাসের মধ্যে ডাকসু নির্বাচনের ব্যবস্থা করতে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দেয়। কিন্তু সাত মাসেও নির্বাচনের কোনো আয়োজন দৃশ্যমান না হওয়ায় গত ৪ সেপ্টেম্বর বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে উকিল নোটিস পাঠান রিটকারীদের আইনজীবী মনজিল মোরসেদ। তার জবাব না পেয়ে গত বুধবার তিনি হাই কোর্টে আদালত অবমাননার অভিযোগ আনেন উপাচার্যসহ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে।

আগামী রবিবার বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি কে এম হাফিজুল আলমের বেঞ্চে মামলাটি শুনানির জন্য উঠতে পারে বলে মনজিল মোরসেদ জানিয়েছেন।


আপনার মন্তব্য