শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ১৯ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৮ মার্চ, ২০১৯ ২৩:৩৮

শুদ্ধসুরে জাতীয় সংগীত

সাংস্কৃতিক প্রতিবেদক

শুদ্ধসুরে জাতীয় সংগীত

শিল্পকলা একাডেমিতে অনুষ্ঠিত হয়েছে দেশব্যাপী শুদ্ধসুরে জাতীয় সংগীত প্রতিযোগিতার চূড়ান্ত পর্ব। দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে জাতীয় সংগীত চর্চাকে অনুপ্রাণিত করার লক্ষ্যে সারা দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীর অংশগ্রহণে দলগত জাতীয় সংগীত পরিবেশনার এই প্রতিযোগিতার আয়োজন করে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ। দ্বিতীয়বারের মতো এই প্রতিযোগিতার ব্যবস্থাপনায় ছিল সংস্কৃতি মন্ত্রণালয় ও সার্বিক সহযোগিতায় ছিল বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি।

গতকাল একাডেমির জাতীয় চিত্রশালা মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত চূড়ান্ত প্রতিযোগিতায় অংশ নেয় ২৪টি দল। চূড়ান্ত পর্যায়ের প্রতিযোগিতায় বিচারক ছিলেন শিল্পী বুলবুল ইসলাম, লিলি ইসলাম, ফাহিম  হোসেন চৌধুরী, সাজেদ আকবর এবং সালমা আকবর। প্রতিটি পর্যায়ে প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থান নির্ধারণ করা হয়েছে। প্রাথমিক পর্যায়ে প্রথম স্থান অর্জন করেছে মোহাম্মদপুর প্রিপারেটরি স্কুল অ্যান্ড কলেজ-ঢাকা; দ্বিতীয় স্থান অর্জন করেছে কুড়িগ্রাম সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়-কুড়িগ্রাম; তৃতীয় স্থান অর্জন করেছে মেঘলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়-বান্দরবান। মাধ্যমিক পর্যায়ে প্রথম স্থান অর্জন করেছে সরকারি করোনেশন মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়-খুলনা; দ্বিতীয় স্থান অর্জন করেছে সরকারি এস সি বালিকা উচ্চবিদ্যালয়-সুনামগঞ্জ; তৃতীয় স্থান অর্জন করেছে খাগড়াছড়ি সরকারি উচ্চবিদ্যালয়-খাগড়াছড়ি। এর পরের পর্যায়ে প্রথম স্থান অর্জন করেছে কালেক্টরেট স্কুল অ্যান্ড কলেজ-রংপুর; দ্বিতীয় স্থান অর্জন করেছে মহিলা কলেজ-চট্টগ্রাম; তৃতীয় স্থান অর্জন করেছে শ্রীপুর সরকারি কলেজ-মাগুরা। দুপুর ২টায় চূড়ান্ত পর্বের ফলাফল ঘোষণা ও সমাপনী অনুষ্ঠানে ফলাফল ঘোষণা করেন একাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকী। এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব ড. মো. আবু হেনা মোস্তফা কামাল এনডিসি ও অতিরিক্ত সচিব মো. আবদুল মান্নান ইলিয়াস এবং মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের উপসচিব মো. সাইদুর রহমান। প্রসঙ্গত, আগামী ২৬ মার্চ চূড়ান্ত পর্যায়ের বিজয়ীদের পুরস্কার প্রদান করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বই প্রকাশে বইসাঁকোর যাত্রা : বাংলাদেশের অন্যপ্রকাশ ও ভারতের পশ্চিমবঙ্গের পত্রভারতী একসঙ্গে পথচলা শুরু করেছে। ‘বইসাঁকো’ প্রবর্তনের মাধ্যমে বাংলাদেশ ও পশ্চিমবঙ্গের লেখকদের বই প্রকাশ করবে এই প্রতিষ্ঠান। এ উদ্যোগের অংশ হিসেবে ফেব্রুয়ারিতে কলকাতা আন্তর্জাতিক বইমেলায় বাংলাদেশের চার ও ভারতের তিন  লেখকের বই প্রকাশ করা হয়। গতকাল জাতীয় জাদুঘরের সিনেপ্লেক্সে বইগুলোর প্রকাশনা উৎসব অনুষ্ঠিত হয়। জাতীয় অধ্যাপক আনিসুজ্জামানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক কবি হাবীবুল্লাহ সিরাজী ও পশ্চিমবঙ্গের গবেষক অধ্যাপক ইমানুল হক। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন অন্যপ্রকাশের প্রধান নির্বাহী মাজহারুল ইসলাম এবং পত্রভারতীর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ত্রিদিব চট্টোপাধ্যায়। দেশঘরের গান : ছায়ানটের প্রতিষ্ঠাতা ওয়াহিদুল হক স্মরণে ‘ওয়াহিদল হক স্মারক দেশঘরের গান-১৪২৫’ এর আয়োজন করেছে প্রতিষ্ঠানটি।

 গতকাল সন্ধ্যায় ছায়ানট মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত এই সুরের আসরে সংগীত পরিবেশন করেন পঞ্চগড়ের সতীশ চন্দ্র পাল, সুনামগঞ্জের মুকুলকান্তি দে, কুষ্টিয়ার ফকির বলাই শাহ্?। এতে দলীয় সংগীত হালুই গান পরিবেশন করে নড়াইলের অরুণ কুমার দাস ও তার দল, কিচ্ছাপালা পরিবেশন করে নওগাঁর মো. সাইদুল ইসলাম ও তার দল।


আপনার মন্তব্য