Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ২৪ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৪ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০

কৃষি সংবাদ

সোনালি হাসি কৃষকের মুখে

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী

সোনালি হাসি কৃষকের মুখে

রাজশাহী অঞ্চলে পাট কাটা শেষ হয়েছে। এখন জাগ দেওয়া, আঁশ ছড়ানো ও শুকানো চলছে পুরোদমে। আবহাওয়া ছিল অনুকূলে, ফলনও হয়েছে ভালো। এখন বাজার দরটাও ভালো যাচ্ছে। তাই সোনালি হাসি কৃষকের মুখে। এ বছর রাজশাহীতে পাটের আবাদ বেড়েছে প্রায় সাড়ে ৭ হাজার বিঘা। সোনালি আঁশের সুদিন ফিরতে শুরু করেছে বলে মনে করছেন কৃষিবিদরা। প্রতি মণ পাট বিক্রি হচ্ছে এক হাজার ৮০০ টাকা থেকে দুই হাজার টাকা। রাজশাহী জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতর থেকে জানা গেছে, এবার জেলার বিভিন্ন উপজেলায় লক্ষ্যমাত্রার বেশি জমিতে পাটের আবাদ হয়েছে। আর গতবারের চেয়ে এক হাজার ২১ হেক্টর (সাত হাজার ৬০০ বিঘা) বেশি জমিতে আবাদ হয়েছে। গতবার আবাদ হয়েছিল ১২ হাজার ৮২৫ হেক্টর। এবার হয়েছে ১৩ হাজার ৮৪৬ হেক্টর। এবার লক্ষ্যমাত্রা ছিল ১৩ হাজার ৫৭৫ হেক্টর। উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে এক লাখ ৬০ হাজার ৫৭৭ বেল (১ বেল সমান প্রায় ৫ মণ বা প্রায় ১৮৭ কেজি)। পাটচাষি ও কৃষিবিদদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, সরকারিভাবে খাদ্যশস্যে পাটের বস্তা ব্যবহার বাধ্যতামূলক ঘোষণাসহ পাটপণ্যের ব্যবহার বৃদ্ধি পাওয়ায় কদর বেড়েছে পাটের। গত ২ বছর ধরে ভালো দাম পাওয়ায় রাজশাহী অঞ্চলে পাটের সুদিন ফিরতে শুরু করেছে। রাজশাহীতে বৃদ্ধি পেয়েছে পাটের আবাদ। রাজশাহী জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের উপ-পরিচালক সামছুল হক বলেন, পাট চাষের অনুকূল আবহাওয়া বিরাজ করায় এবার আবাদ ভালো হয়েছে। উৎপাদনও ভালো হবে বলে আশা করছেন। এখন বাজারদর ঠিক থাকলে কৃষকরা আর্থিকভাবে লাভবান হবেন। আর দাম ভালো পেলে আবারও সোনালি আঁশের সুদিন ফিরবে। আগামীতে আরও বেশি জমিতে পাটের আবাদ হবে।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর