শিরোনাম
প্রকাশ : রবিবার, ১০ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১০ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:১৪

মঈন উদ্দীন খান বাদলের দাফন সম্পন্ন

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম

মঈন উদ্দীন খান বাদলের দাফন সম্পন্ন

প্রবীণ রাজনীতিবিদ চট্টগ্রাম-৮ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা মঈন উদ্দীন খান বাদলের দ্বিতীয় জানাজা চট্টগ্রামের জমিয়তুল ফালাহ মসজিদে অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল বাদ মাগরিব তার জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। এই নেতার জানাজায় বৃষ্টি উপেক্ষা করে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দ, প্রশাসনের কর্মকর্তা এবং সর্বস্তরের মানুষ উপস্থিত ছিলেন। এ সময় তাকে চট্টগ্রামের প্রশাসনের পক্ষ থেকে রাষ্ট্রীয় মর্যাদা দেওয়া হয়। গত রাতে এশার নামাজ শেষে তৃতীয় জানাজার পর চট্টগ্রামের বোয়ালখালীতে তাকে মা-বাবার পাশে পারিবারিক কবরস্থানে সমাহিত করা হয়। চট্টগ্রাম নগরীতে অনুষ্ঠিত জানাজায় আওয়ামী লীগের  প্রেসিডিয়াম সদস্য সাবেক মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন, ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ, জাতীয় সংসদের হুইপ সামশুল হক চৌধুরী, সংসদ সদস্য এ বি এম ফজলে করিম চৌধুরী, আবু রেজা মোহাম্মদ নিজামুদ্দিন নদভী, মাহফুজুর রহমান মিতা, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এম এ সালাম, সিডিএর সাবেক চেয়ারম্যান আবদুচ ছালাম, বিভাগীয় কমিশনার মো. আবদুল মান্নান, সিএমপি কমিশনার মো. মাহাবুবর রহমান, জেলা প্রশাসক মো. ইলিয়াস হোসেন প্রমুখ অংশ নেন। এর আগে জাসদ (আম্বিয়া) অংশের কার্যকরী সভাপতি, সংসদ সদস্য মঈন উদ্দীন খান বাদলের মরদেহ দেশে আনা হয় শুক্রবার  সন্ধ্যায়। ভারতের একটি বিমানে করে তার মরদেহ ঢাকায় আনা হয়। শনিবার সকাল ১০টার দিকে জাতীয় সংসদ ভবনের দক্ষিণ প্লাজায় তার প্রথম জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। পরে মুক্তিযোদ্ধা বাদলকে রাষ্ট্রীয় শ্রদ্ধা জানানো হয়। এ সময় তার মরদেহে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী। উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার সকাল ৭টা ৪৫ মিনিটে ভারতের বেঙ্গালুরুর দেবী শেঠি নারায়ণ হাসপাতালে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, তিন ছেলে, এক মেয়েসহ অসংখ্য আত্মীয়স্বজন রেখে গেছেন। মঈন উদ্দীন খান বাদলের ছোটভাই মুকুল খান বলেন, গত ১৮ অক্টোবর হৃদরোগের চিকিৎসার জন্য ভারতে যান তিনি। এনজিওগ্রাম করার পর তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হয়। মঙ্গলবার তাকে আইসিইউতে স্থানান্তর করা হয়। বৃহস্পতিবার  ভোরে তার মৃত্যু হয়।


আপনার মন্তব্য