শিরোনাম
প্রকাশ : শুক্রবার, ২৭ মার্চ, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৬ মার্চ, ২০২০ ২৩:২৩

সাংবাদিক নির্যাতন

সেই ডিসিসহ ৪ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক

সেই ডিসিসহ ৪ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা

মধ্যরাতে স্থানীয় এক সাংবাদিককে ধরে নিয়ে অমানবিক নির্যাতন ও ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে এক বছরের বিনাশ্রম কারাদন্ডের সাজা দেওয়ার ঘটনায় প্রত্যাহার হওয়া কুড়িগ্রামের সেই জেলা প্রশাসক (ডিসি) মোছা. সুলতানা পারভীনসহ জেলা প্রশাসনের চার কর্মকর্তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা করা হয়েছে। একই সঙ্গে কেন তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে না, এ জন্য ১০ দিনের মধ্যে জবাব দিতে নোটিস দিয়েছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়। এ বিষয়ে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন জানান, কুড়িগ্রামের ওই ডিসিসহ চারজনকে জনপ্রশাসনে নিয়ে আসা হয়েছে। তাদের ওএসডি (বিশেষ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা) করা হয়েছে। ওএসডি থাকাকালে তাদের বেতন বন্ধ থাকবে। তাদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা হয়েছে। ওখান (কুড়িগ্রাম) থেকেও একটি মামলা হবে। জানা গেছে, এর আগে ১৫ ও ১৬ মার্চ ওই চার কর্মকর্তাকে কুড়িগ্রাম থেকে প্রত্যাহার করে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে ন্যস্ত করা হয়। সুলতানা পারভীন ছাড়া বাকি কর্মকর্তারা হলেন- কুড়িগ্রাম জেলা প্রশাসনের সাবেক সিনিয়র সহকারী কমিশনার (আরডিসি) নাজিম উদ্দিন, সহকারী কমিশনার রিন্টু বিকাশ চাকমা ও এস এম রাহাতুল ইসলাম।

প্রসঙ্গত, ১৩ মার্চ মধ্যরাতে কুড়িগ্রামের সাংবাদিক আরিফুল ইসলামকে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে পরে মাদক মামলায় সাজা দেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। সে সময় দাবি করা হয় তার কাছ থেকে ওই রাতে আধা বোতল মদ ও দেড়শ গ্রাম গাজা উদ্ধার করা হয়। পরে সারা দেশে এর প্রতিবাদে ফেটে পড়েন সাংবাদিকরা। তার প্রেক্ষিতে পরে অবশ্য জামিনে মুক্ত হন তিনি। তাকে অমানবিকভাবে নির্যাতন করা হয় বলে অভিযোগ করেন আরিফুল ইসলাম। তার অভিযোগ, জেলা প্রশাসনের আরডিসি (সিনিয়র সহকারী কমিশনার) নাজিম উদ্দিন ৪০ জনের বহর নিয়ে মধ্যরাতে আরিফুলের বাড়ির দরজা ভেঙ্গে ভিতরে ঢুকে তাকে বেধড়ক পেটান। পরে চোখ বেঁধে তাকে গাড়িতে তুলে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে এনকাউন্টারে দেওয়ারও হুমকি দেন। জেলা প্রশাসক (ডিসি) সরকারি টাকায় একটি পুকুর সংস্কার করে নিজের নামে নামকরণ করেন এমন একটি নিউজ করায় তার প্রতি ক্ষুব্ধ হয়ে সুলতানা পারভীন আরিফুলে ওপর প্রতিশোধ নিতে এই অত্যাচার চালান বলে ওই সাংবাদিকের অভিযোগ। ঘটনার পর জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন সাংবাদিকদের জানিয়েছিলেন, সাবেক ডিসিকে প্রত্যাহারসহ অভিযুক্ত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


আপনার মন্তব্য