শিরোনাম
প্রকাশ : শুক্রবার, ২৩ অক্টোবর, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ২২ অক্টোবর, ২০২০ ২৩:৪০

নতুন বছরের শুরুতেই দুটি টিকা মিলবে : বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

গ্লোবের করোনা ভ্যাকসিনের ট্রায়ালে আগ্রহী নেপাল

প্রতিদিন ডেস্ক

আগামী বছরের শুরুতে কমপক্ষে দুটি করোনাভাইরাসের টিকা মিলবে বলে জানিয়েছেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান বৈজ্ঞানিক সৌম্যা স্বামীনাথন। এদিকে গ্লোবের করোনা ভ্যাকসিনের ট্রায়ালে আগ্রহের কথা জানিয়েছে নেপাল।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধানের বক্তব্য সম্পর্কে গতকাল হিন্দুস্তান টাইমস জানিয়েছে, একটি ওয়েবিনারে বক্তব্য দিতে গিয়ে বৈজ্ঞানিক সৌম্যা স্বামীনাথন বলেছেন, করোনাকালে যেভাবে বিজ্ঞানীরা সমন্বয়ের মাধ্যমে কাজ করছেন সেটি ইতিবাচক। হাতে হাত মিলিয়ে বিশ্বজুড়ে কাজ চলায় দ্রুত জ্ঞানলাভ হচ্ছে। তিনি আরও বলেন, অভূতপূর্ব গতিতে কাজ হচ্ছে। টিকা নিয়ে কাজ হচ্ছে ও আগামী বছরের শুরুর মধ্যে কমপক্ষে দুটি নিরাপদ ও কার্যকর টিকা পাওয়া যাবে।

গ্লোবের ভ্যাকসিন নিয়ে নেপালের সঙ্গে সমঝোতা : গ্লোব বায়োটেকের টিকা ‘ব্যানকভিড’-এর ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালে আগ্রহী প্রতিবেশী দেশ নেপাল। এ ছাড়া সফল প্রমাণিত হলে ব্যানকভিডের ২০ লাখ (২ মিলিয়ন) ডোজ নেবে দেশটি। এ নিয়ে গতকাল রাজধানী ঢাকার তেজগাঁওয়ে গ্লোবের করপোরেট অফিসে এক সমঝোতা হয়। নেপালের রাষ্ট্রদূত ডা. বংশীধর মিশ্র ও গ্লোবের চেয়ারম্যান হারুনুর রশীদের মধ্যে এ সমঝোতা হয়।

ডা. বংশীধর মিশ্র বলেন, নেপাল ব্যানকভিডের ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালে আগ্রহী। এটি একটি বিরাট অর্জন। নেপালের ‘আনমোল’ নামের একটি কোম্পানি গ্লোব বায়োটেকের টিকা নেবে। নেপালের রাষ্ট্রদূত আরও বলেন, আমরা গ্লোবের ভ্যাকসিনের বিষয়ে খুবই আগ্রহী। আমাদের দুই দেশের সংস্কৃতি-আবহাওয়া একই। গ্লোবের ভ্যাকসিন সফল হলে এটা বাংলাদেশের জন্য একটা বিরাট অ্যাচিভমেন্ট হবে। আর বাংলাদেশের অ্যাচিভমেন্ট মানে এটা আমাদেরও অ্যাচিভমেন্ট। হারুনুর রশীদ জানান, এ ছাড়া আরও একটি দেশ এ ভ্যাকসিনের ২০ মিলিয়ন ডোজ নিতে চেয়েছে। তবে তিনি এ দেশটির নাম বলেননি। উল্লেখ্য, এরই মধ্যে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার কভিড-১৯-এর ভ্যাকসিন ক্যান্ডিডেট তালিকায় গ্লোব বায়োটেক লিমিটেডের আবিষ্কৃত তিনটি ভ্যাকসিনকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। গত ১৭ অক্টোবর গ্লোব ফার্মাসিউটিক্যাল গ্রুপ অব কোম্পানি লিমিটেডের চেয়ারম্যান মো. হারুনুর রশীদ ও গ্লোব বায়োটেক লিমিটেডের প্রধান নির্বাহী ড. কাঁকন নাগ স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। এতে আরও জানানো হয়, বাংলাদেশের গ্লোব বায়োটেকই বিশ্বের একমাত্র প্রতিষ্ঠান, যাদের সর্বোচ্চ তিনটি ভ্যাকসিনের নাম বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার ভ্যাকসিন ক্যান্ডিডেটের তালিকায় রয়েছে।

 


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর