শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ২ ডিসেম্বর, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ১ ডিসেম্বর, ২০২০ ২৩:৫৬

উদ্ভাবন

গাভীর কৃত্রিম প্রজননে কামালের ডিভাইস

দিনাজপুর প্রতিনিধি

গাভীর কৃত্রিম প্রজননে কামালের ডিভাইস

গাভীর কৃত্রিম প্রজননে কামালের উদ্ভাবিত ডিভাইস দিনাজপুর অঞ্চলে ব্যাপক সাড়া ফেলেছে। গাভীর প্রচলিত কৃত্রিম প্রজননে সাধারণত হাত ব্যবহার করে সিমেন প্রবেশ করানো হয়। আন্দাজ করে সিমেন স্থাপনের ক্ষেত্রে অনেক সময় প্রজনন ব্যর্থ হয়। কিন্তু এই প্রযুক্তি ব্যবহারে নির্ভুলভাবে সিমেন স্থাপন করা যায়। উদ্ভাবিত প্রযুক্তিতে ব্যবহার করা হয়েছে এয়ার প্রেসার টিউব, ওয়াইফাই ডিভাইস, উচ্চ ক্ষমতার অ্যানডোসকপি, ক্যামেরা, স্পেকুলাম, এআই গান, স্পেকুলাম এবং স্মার্ট ফোন।

কৃত্রিম প্রজনন প্রাণিসম্পদ অধিদফতর, দিনাজপুরের ভারপ্রাপ্ত সহকারী পরিচালক ডা. আকলিমা খাতুন আঁখি জানান, পার্বতীপুর প্রাণিসম্পদ বিভাগের কৃত্রিম  প্রজনন (এআই) টেকনিশিয়ান আবু হেনা মোস্তফা কামাল একটি ডিভাইস উদ্ভাবন করেছেন। এই ডিভাইসে নির্ভুলভাবে সিমেন স্থাপন করা যায়। উন্নত বিশ্বে এরকম ডিভাইস থাকলেও এটি বাংলাদেশে প্রথম। এই প্রযুক্তির ব্যবহার দেখার জন্য এরই মধ্যে বাংলাদেশ প্রাণিসম্পদ অধিদফতরের সহকারী পরিচালক (প্রশাসন) ডা. মো. জসিম উদ্দিন, সহকারী পরিচালক (কৃত্রিম প্রজনন) ডা. নজরুল ইসলামসহ প্রাণিসম্পদ বিভাগের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা দেখে গেছেন। আবু হেনা মোস্তফা কামাল বলেন, এই ডিভাইসের মাধ্যমে জানা যাবে- গাভীর জরায়ুর ভিতর কোনো ক্ষত বা রোগ জিবাণু আছে কি না। গাভীর গলার মধ্যে কোনো খাদ্য আটকে গেলেও জানা যাবে এই ডিভাইসের মাধ্যমে। এই ডিভাইস বিদেশ থেকে আমদানি করতে খরচ হবে দেড়-দুই লাখ টাকা। স্থানীয় প্রযুক্তি দিয়ে এটি তৈরি করতে খরচ হয়েছে মাত্র ১০ হাজার টাকা। শুধুমাত্র বিদেশ থেকে ক্যামেরাটি আনা হয়েছে। পার্বতীপুর প্রাণিসম্পদ বিভাগের কৃত্রিম প্রজনন (এআই) টেকনিশিয়ান আবু হেনা মোস্তফা কামাল জানান, এক বছর আগে অনলাইনে কৃত্রিম প্রজননের ক্ষেত্রে একটি ডিভাইস ব্যবহার দেখতে পাই। এরপর চেষ্টা করি এই প্রযুক্তি বাংলাদেশে ব্যবহার করা যায় কি না। যোগাযোগ করে জানতে পারি এটি আনতে খরচ পড়বে বাংলাদেশি টাকায় দেড় থেকে দুই লাখ টাকা। চিন্তা করি এটি দেশীয় সরঞ্জাম দিয়ে প্রস্তুত করা যায় কি না। এরপর এটি তৈরিতে অনেক শ্রম দেই। এক সময় এটি তৈরিতে সক্ষম হই। ৩০টি গাভীতে পরীক্ষামূলক ব্যবহার করি। এতে শতভাগ সফলতা পাই। নতুন এই প্রযুক্তি ব্যবহারে নির্ভুলভাবে প্রজনন সম্ভব।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর