শিরোনাম
প্রকাশ : রবিবার, ৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ২৩:৪৯

সংক্রমণের গতি কমছেই

২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ৮ আক্রান্ত ৩০৫

নিজস্ব প্রতিবেদক

সংক্রমণের গতি কমছেই

দেশে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে সংক্রমণের গতি ধারাবাহিকভাবে কমছে। এক সপ্তাহে নতুন রোগী শনাক্তের হার প্রায় ১৩ শতাংশ কমেছে, মৃত্যুর হার কমেছে ২৬ শতাংশ। দৈনিক শনাক্তের হারও ৩ শতাংশের নিচেই রয়েছে। দেশে করোনাভাইরাস সংক্রমণ নিয়ে স্বাস্থ্য অধিদফতর গতকাল যে বিজ্ঞপ্তি দিয়েছে, তাতে এ তথ্য পাওয়া যায়। বুলেটিনে ২৪ থেকে ৩০ জানুয়ারি এবং ৩১ জানুয়ারি থেকে ৬ ফেব্রুয়ারির সংক্রমণ পরিস্থিতির তুলনা করে বলা হয়, এক সপ্তাহের ব্যবধানে নতুন শনাক্ত রোগী কমেছে ১২ দশমিক ৮৯ শতাংশ, মৃত্যু কমেছে ২৬ দশমিক ৮৫ শতাংশ।

এই সময়কালে নমুনা পরীক্ষাও ১ দশমিক শূন্য ২ শতাংশ কম হয়েছে বলে জানানো হয়। অন্যদিকে সুস্থতার হার বেড়েছে ৪ দশমিক ৩ শতাংশ। গত সাত দিনে ৯৭ হাজার ১১১টি নমুনা পরীক্ষা করে ৩ হাজার রোগী শনাক্ত হয়, মারা যান ৭৯ জন। তার আগের সপ্তাহে ৯৮ হাজার ১০৮টি নমুনা পরীক্ষা করে ৩ হাজার ৪৪৪ জনের মধ্যে সংক্রমণ ধরা পড়েছিল। মারা গিয়েছিল ১০৮ জন। স্বাস্থ্য অধিদফতর জানিয়েছে, ঢাকায় করোনায় আক্রান্ত রোগীদের জন্য নির্ধারিত হাসপাতালগুলোর ৩ হাজার ২৩৩টি শয্যার মধ্যে ২ হাজার ৫৩টিই এখন খালি। ২৫৭টি আইসিইউ শয্যার মধ্যে খালি আছে ১৭৫টি। আর সারা দেশ মিলিয়ে হাসপাতালগুলোতে ১০ হাজারের কভিড-১৯ শয্যার মধ্যে প্রায় ৯ হাজারই খালি আছে, রোগী আছে দেড় হাজার শয্যায়। আর ৫৮২টি আইসিইউ শয্যার মধ্যে কভিড-১৯ রোগী আছে ১৮৯টিতে, ৩৯৩টিই এখন খালি।

গত এক দিনে যারা মারা গেছেন, তাদের মধ্যে ৬ জন পুরুষ আর নারী ২ জন। তাদের প্রত্যেকেই হাসপাতালে মারা গেছেন। তাদের মধ্যে ৪ জনের বয়স ছিল ৬০ বছরের বেশি, ১ জনের বয়স ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে, ১ জনের বয়স ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে এবং ২ জনের বয়স ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে ছিল। মৃতদের মধ্যে ৫ জন ঢাকা বিভাগের, ২ জন চট্টগ্রাম বিভাগের এবং ১ জন খুলনা বিভাগের বাসিন্দা ছিলেন। স্বাস্থ্য অধিদফতরের হিসাবে বাসা ও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আরও ৪১৭ জন রোগী সুস্থ হয়ে উঠেছেন গত এক দিনে। তাতে এ পর্যন্ত সুস্থ রোগীর মোট সংখ্যা বেড়ে ৪ লাখ ৮২ হাজার ৮৪১ জন হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় সারা দেশে ২০৬টি ল্যাবে ১২ হাজার ১৩৫টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এ পর্যন্ত পরীক্ষিত নমুনার সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩৭ লাখ ৩৬ হাজার ৬০৮টি। ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষার বিবেচনায় শনাক্তের হার ২ দশমিক ৫১ শতাংশ। এ পর্যন্ত মোট শনাক্তের হার ১৪ দশমিক ৩৯ শতাংশ।