শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ৯ জুন, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ৮ জুন, ২০২১ ২৩:৫১

সাততলা বস্তিতে আগুন

খোলা আকাশের নিচে মানুষ

নিজস্ব প্রতিবেদক

খোলা আকাশের নিচে মানুষ
ঘর হারিয়ে খোলা আকাশের নিচে -বাংলাদেশ প্রতিদিন
Google News

আগুনে ক্ষতিগ্রস্ত মহাখালী সাততলা বস্তির মানুষের দিন কাটছে খোলা আকাশের নিচে। গতকাল সকালের বৃষ্টিতে তাদের ভোগান্তি বাড়ে আরও কয়েকগুণ। অনেকেই আশপাশের ভবনগুলোতে আশ্রয় নেন। আবার কেউ ত্রিপল টানিয়ে অবস্থান করছেন। রোদে পুড়ে বৃষ্টিতে ভিজে এক কাপড়েই দিন কাটছে তাদের। ঘরহীন মানুষগুলোর অভিযোগ, এখন পর্যন্ত যে ত্রাণ সহায়তা তারা পেয়েছেন তা পর্যাপ্ত নয়। খেয়ে না খেয়ে দিন কাটছে তাদের। এদিকে, সিটি করপোরেশনের পক্ষ থেকে তাদের জন্য মোবাইল টয়লেটের ব্যবস্থা করা হয়েছে। সোমবার ভোররাতে লাগা আগুনে নিঃস্ব হয় অনেক পরিবার। সাততলা বস্তিতে অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্তদের সহায়তা দিতে গিয়ে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম অগ্নিকান্ড প্রতিরোধে বস্তিগুলোতে ফায়ার হাইড্রেন্ট বসানোর কথা জানান। তিনি বলেন, এজন্য সিটি করপোরেশনের আসন্ন বাজেটে বরাদ্দ রাখা হয়েছে। মেয়র বলেন, বস্তিগুলোতে আমি ফায়ার হাইড্রেন্ট করে দেব। এ জন্য আমি একটা বাজেট রেখেছি। আমরা প্রত্যেকটি বস্তির বিভিন্ন অংশে রাস্তায় এটা বসিয়ে দেব।

তিনি বলেন, আগুন লাগলে ফায়ার সার্ভিস আসতে কিছুটা সময় লাগে। তারা যদি (বস্তিবাসী) ট্রেইনড হয় ভলান্টিয়ারের মাধ্যমে বস্তিবাসীর দায়িত্ব নেয়, তাহলে ফায়ার হাইড্রেন্ট দিয়েই আগুন নেভাতে পারবে। তখন ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ অনেক কমে যাবে।

বস্তিবাসীদের সহায়তা দিতে গিয়ে আতিকুল ইসলাম বলেন, ক্ষতিগ্রস্ত প্রত্যেক পরিবারের জন্য সিটি করপোরেশনের পক্ষ থেকে পাঁচ হাজার করে টাকা করে দেওয়া হবে।

এ ছাড়া দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় থেকে তিন বেলার খাবার, ঢেউটিন এবং প্রায় দুই হাজার টাকার শুকনো খাবারের ব্যবস্থা করা হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্ত কেউই অভুক্ত থাকবে না। তাদের সহায়তায় প্রয়োজনীয় সব ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

এই বিভাগের আরও খবর