শিরোনাম
প্রকাশ : ৯ মে, ২০২১ ১৮:২০
আপডেট : ৯ মে, ২০২১ ২১:৪৯
প্রিন্ট করুন printer

সেরামের বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপের বিষয়ে ভাবতে বললো সংসদীয় কমিটি

নিজস্ব প্রতিবেদক

সেরামের বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপের বিষয়ে ভাবতে বললো সংসদীয় কমিটি
প্রতীকী ছবি
Google News

করোনা টিকার চলমান সংকট নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছে সংসদীয় কমিটি। এসময় চুক্তি অনুযায়ী সময় মতো অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা সরবরাহ করতে না পারায় ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউটের বিরুদ্ধে আইনগত পদক্ষেপ নেওয়া হবে কীনা, জানতে চেয়েছে কমিটি। একইসঙ্গে ভারতে করোনার ভয়বহতা বৃদ্ধি ও বাংলাদেশে ভারতের ভাইরাসের ধরন পাওয়ার কারণে উভয় দেশের সীমান্ত  লকডাউনটা আরও শক্তিশালী করার সুপারিশ করা হয়। 

পাশাপাশি চীনের সিনোফার্ম ভ্যাক্সিন পাওয়া নিশ্চিত করাসহ একাধিক সোর্স থেকে টিকা সংগ্রহের সুপারিশ করা হয়। টিকার দ্বিতীয় ডোজের চাহিদা পূরণের জন্য যুক্তরাষ্ট্র ও ভারত থেকে ভ্যাকসিন আনার প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখার সুপারিশ করা হয়। এছাড়া ভাসানচরে রোহিঙ্গাদের অবস্থা সরেজমিনে পরিদর্শনের সুপারিশ করা হয়।

সংসদ ভবনে আজ অনুষ্ঠিত পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির বৈঠকে এসব সুপারিশ করা হয়। বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন কমিটির সভাপতি মুহাম্মদ ফারুক খান। পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন, কমিটির সদস্য নুরুল ইসলাম নাহিদ, হাবিবে মিল্লাত ও কাজী নাবিল আহমেদ বৈঠকে অংশ গ্রহণ করেন।

বৈঠক শেষে কমিটির সভাপতি মুহাম্মদ ফারুক খান সংবাদিকদের বলেন, কোভিডের ভ্যাকসিন কেন আনা যাচ্ছে না এটা নিয়ে আমরা প্রশ্ন তুলেছিলাম, উনারা চেষ্টা করার কথা বলেছেন। গত ফেব্রুয়ারি মাসেই সংসদীয় কমিটি বলেছিল, একাধিক সোর্স থেকে টিকা আনার ব্যবস্থা করতে হবে। মন্ত্রণালয় ব্যাখ্যা দিয়েছে এটা স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বিষয়। তবে এখন একের অধিক সোর্স থেকে টিকা আনার চেষ্টা করা হচ্ছে। রাশিয়া ও চায়না থেকে আনার চেষ্টা তো করছে। ভারত থেকেও আশা করছে জুলাইয়ে পাবে। আমেরিকা থেকে পাওয়ার চেষ্টা করছে। তিনি আরও বলেন, আমরা সেকেন্ড ডোজ কমপ্লিট করার জন্য ভারতের যে টিকা যুক্তরাষ্ট্রের কাছে অতিরিক্ত আছে, সেটা দ্রুততার সঙ্গে নিতে বলেছি।

সংসদের গণসংযোগ বিভাগ জানায়, বৈঠকে ইরাকের সাথে বাণিজ্যিক সম্পর্ক জোরদার করাসহ সেখানে কর্মরত বাংলাদেশি মানবসম্পদকে সব ধরনের সহযোগিতা দিতে ব্যবস্থা নেয়ার সুপারিশ করা হয়। বৈঠকে কোভিড-১৯ ভ্যাক্সিন প্রাপ্তির সর্বশেষ অবস্থা,  বিদেশী সরকারপ্রধান ও রাষ্ট্রপ্রধানের উপস্থিতিতে স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উদযাপন অনুষ্ঠানের মূল্যায়ন প্রতিবেদন উপস্থাপন করা হয়। বৈঠকে পররাষ্ট্র সচিব, ইরাকের নবনিযুক্ত রাষ্ট্রদূতসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।


বিডি প্রতিদিন/হিমেল

এই বিভাগের আরও খবর