Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : সোমবার, ২১ নভেম্বর, ২০১৬ ০০:০০ টা
আপলোড : ২১ নভেম্বর, ২০১৬ ০৩:০২

অ্যাটর্নি জেনারেল পদ নিয়ে রিটের শুনানিতে বিব্রত হাইকোর্ট

নিজস্ব প্রতিবেদক

অ্যাটর্নি জেনারেল পদ নিয়ে রিটের শুনানিতে বিব্রত হাইকোর্ট

৬৭ বছর বয়স পেরিয়েও বাংলাদেশের অ্যাটর্নি জেনারেল পদে অ্যাডভোকেট মাহবুবে আলমের দায়িত্ব পালনের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে দায়ের করা একটি রিটের শুনানিতে বিব্রত বোধ করেছেন হাইকোর্ট। গতকাল বিচারপতি কাজী রেজাউল হক ও বিচারপতি মোহাম্মদ উল্লাহর সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ রিটের শুনানিতে বিব্রত বোধের কথা জানান। এখন এ রিট নিষ্পত্তিতে প্রধান বিচারপতি তৃতীয় বেঞ্চ গঠন করবেন।

আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনারেল মুরাদ রেজা। রিটের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী ইউনুস আলী আকন্দ। এর আগে ১০ নভেম্বর তিনি রিটটি করেন। পরে ইউনুস আলী সাংবাদিকদের বলেন, ‘আদালত বলেছেন, এই রিটের শুনানি করতে আমাদের মধ্যে একজন বিব্রত বোধ করেছেন। রিট আবেদনটি প্রধান বিচারপতির কাছে পাঠানোর আদেশ দেওয়া হলো।’

আইনজীবী ইউনুস আলী সাংবাদিকদের বলেন, ১৬ ফেব্রুয়ারি মাহবুবে আলমের বয়স ৬৭ বছর পূর্ণ হয়েছে। সংবিধানের ৬৪(১) ও ৯৬(১) অনুচ্ছেদ অনুযায়ী ৬৭ বছর পূর্ণ হওয়ার পর তিনি আর ওই পদে নেই। ৬৪(১) অনুচ্ছেদ অনুযায়ী, সুপ্রিম কোর্টের বিচারক হওয়ার যোগ্য কোনো ব্যক্তিকে রাষ্ট্রপতি বাংলাদেশের অ্যাটর্নি জেনারেল পদে নিয়োগ দেন। ৯৬(১) অনুচ্ছেদের বিধানাবলি সাপেক্ষে কোনো বিচারক ৬৭ বছর পূর্ণ হওয়া পর্যন্ত স্বীয় পদে বহাল থাকবেন। বিচারপতিদের ৬৭ বছর বয়স হলেও তারা ওই পদে আর থাকেন না। ইউনুস আলী বলেন, অ্যাটর্নি জেনারেল পদটি সাংবিধানিক। তাই সংবিধান মেনে চলা সবারই দায়িত্ব ও কর্তব্য। সাংবিধানিক অন্য সব পদেই নির্ধারিত সময় পরে আর কেউ বহাল থাকেন না। সংবিধানের ৬৪(৪) অনুচ্ছেদে রাষ্ট্রপতির সন্তোষানুযায়ী সময়সীমা পর্যন্ত অ্যাটর্নি জেনারেলের দায়িত্ব পালনের কথা বলা হয়েছে। কিন্তু এর অর্থ এই নয় যে, অনির্ধারিত সীমা। এখানে সংবিধানের ৯৬(১) অনুচ্ছেদ ও লিগ্যাল রিমেমব্রান্সের ম্যানুয়াল, ১৯৬০-এ সময় বেঁধে দেওয়া হয়েছে। রাষ্ট্রপতির সন্তোষানুযায়ী বলতে বোঝাবে, ৬৭ বছর পূর্ণ হওয়ার পূর্বে বা দুই বছর পূর্ণ হওয়ার পূর্বেও অ্যাটর্নি জেনারেল পদধারীকে রাষ্ট্রপতি অপসারণ করতে পারবেন। ওই ম্যানুয়াল এখনো বাতিল হয়নি। ওই আইনেই সব সরকারি প্রতিষ্ঠানে দুই বছরের চুক্তিতে আইন উপদেষ্টা, আইন কর্মকর্তা ও পাবলিক প্রসিকিউটর নিয়োগ হচ্ছে। সংবিধানের ১৩৪ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী প্রজাতন্ত্রের কর্মে নিযুক্ত প্রত্যেক ব্যক্তি রাষ্ট্রপতির সন্তোষানুযায়ী কর্মে বহাল থাকবেন বলা হলেও তারা ৫৯ বছর বয়স পূর্ণ হলেই অবসরে যান।


আপনার মন্তব্য