শিরোনাম
প্রকাশ : সোমবার, ২১ নভেম্বর, ২০১৬ ০০:০০ টা
আপলোড : ২১ নভেম্বর, ২০১৬ ০৩:০৪

মেয়েদের বিয়ের বয়স ১৮ বহাল রাখুন

দুই প্রতিষ্ঠানের দাবি

নিজস্ব প্রতিবেদক

শর্তহীনভাবে মেয়েদের ন্যূনতম বিয়ের বয়স ১৮ বছর বহাল রাখার দাবি জানিয়েছে জাতীয় কন্যাশিশু অ্যাডভোকেসি ফোরাম ও বাংলাদেশ নারী সাংবাদিক কেন্দ্র। একই সঙ্গে মেয়েদের বিয়ের বয়স শর্তসাপেক্ষে ন্যূনতম ১৬ বছর রেখে নতুন আইন পাস না করারও দাবি জানায় সংগঠন দুটি। গতকাল জাতীয় প্রেসক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে ‘আইনে কন্যাশিশুর বিয়ের বয়স শর্তহীনভাবে ১৮ বছর রাখার দাবিতে’ আয়োজিত গোলটেবিল বৈঠকে এ দাবি জানানো হয়। বাংলাদেশ নারী সাংবাদিক কেন্দ্রের সভাপতি নাসিমুন আরা হক মিনুর সভাপতিত্বে এবং সঞ্চালনায় বৈঠকে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন জাতীয় কন্যাশিশু অ্যাডভোকেসি ফোরামের সম্পাদক নাছিমা আক্তার জলি। তিনি বলেন, সরকার মেয়েদের বিয়ের বয়স শর্তসাপেক্ষে ১৬ বছর রেখে শিগগিরই বাল্যবিবাহ নিরোধ আইন পাস করবে বলে জানতে পেরেছি। কিন্তু আমরা মনে করি, আইনটি পাস হলে নারীর ক্ষমতায়ন ও অধিকার প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রে এটি বিরাট প্রতিবন্ধক হবে। এতে টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা (এসডিজি) অর্জন বাধাগ্রস্ত হবে। তিনি বলেন, প্রায় ১০০ বছর আগে মেয়েদের বিয়ের ন্যূনতম বয়স ২১ বছর করার জন্য আন্দোলন করেছিলেন বেগম রোকেয়া। সেই আন্দোলনে সফলতাও পেয়েছিলেন তিনি। দীর্ঘদিন দেশে মেয়েদের বিয়ের বয়স ১৮ ছিল কিন্তু এখন তা ১৮ থেকে কমিয়ে ১৬ বছর করার পাঁয়তারা করছে সরকার। আমরা এটা কোনোভাবেই মেনে নিতে পারি না। আমাদের মেয়েদের জীবন হুমকির মুখে ফেলতে চাই না। যেখানে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে, সেখানে আমরা ১০০ বছর পেছনে ফিরে যাব কেন? ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উইমেন ও জেণ্ডার স্ট্যাডিজ বিভাগের সহকারী অধ্যাপক তানিয়া হক বলেন, বাল্যবিবাহের শিকার হওয়া কন্যাশিশুরা মানসম্মত শিক্ষা, পুষ্টি ও তথ্য-প্রযুক্তির ব্যবহারের অধিকার থেকে বঞ্চিত হয়। অল্প বয়সে মা হতে গিয়ে অনাকাক্ষিত মৃত্যুর মুখে পতিত হয়। একই সঙ্গে অপুষ্ট শিশুর জন্ম হয়।

বৈঠকে আরও বক্তব্য রাখেন সুশাসনের জন্য নাগরিকের (সুজন) সম্পাদক ও জাতীয় কন্যাশিশু অ্যাডভোকেসি ফোরামের সভাপতি ড. বদিউল আলম মজুমদার, আমাদের সময় ডটকমের সম্পাদক নাঈমুল ইসলাম খান প্রমুখ।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর