শিরোনাম
প্রকাশ : সোমবার, ১১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ২৩:৪৪

চট্টগ্রামে বইমেলার উদ্বোধন

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম

চট্টগ্রামে বইমেলার উদ্বোধন

দীর্ঘদিন পর সমন্বিত উদ্যোগে নগরীর এম এ আজিজ স্টেডিয়ামের জিমনেসিয়াম মাঠে শুরু হয়েছে অমর একুশে বইমেলা। গতকাল বিকালে তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ মেলার উদ্বোধন করেন। চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন (চসিক) ও চট্টগ্রাম সৃজনশীল প্রকাশক পরিষদের সহায়তায় ১৯ দিনব্যাপী এ বইমেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ড. হাছান মাহমুদ বলেন, বইপড়ার নেশা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে চলে যাওয়ায় সমাজে বিরূপ প্রভাব পড়ছে।

মন্ত্রী বলেন, আমরা বাঙালিরা মেধাবী। ইউরোপের বাইরে সাহিত্যে প্রথম নোবেল পুরস্কার পেয়েছেন কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ। গাছের যে প্রাণ আছে প্রথম  সেটা আবিষ্কার করেন বাঙালি বিজ্ঞানী স্যার জগদীশ চন্দ্র বসু। বাংলা সাহিত্য এখন পৃথিবীর অন্যতম সমৃদ্ধ সাহিত্য। অনেক বই অন্য ভাষায় অনূদিত হয়েছে। সমগ্র পৃথিবীতে সমাদৃত হচ্ছে। যারা বই লেখেন তারা বেঁচে থাকেন। বাংলাদেশে অনেক রাজনীতিবিদ ছিলেন। সবাইকে মানুষ মনে রাখেনি। যারা জীবনী লিখে গেছেন, বই লিখে  গেছেন তারা কিন্তু বেঁচে আছেন। সমাজে অনেক গুণী মানুষ ছিলেন। অনেকে হারিয়ে গেছেন। কিন্তু যাদের সম্পর্কে কোনো পুস্তিকা বেরিয়েছে তারা  বেঁচে আছেন। বই শুধু সুকোমল বৃত্তি প্রকাশ করার জন্য নয়, সমাজকে পরিশীলিত করার জন্য নয়, নিজেকে বাঁচিয়ে রাখতে বইয়ের বিকল্প নেই।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, আজ তথ্যপ্রযুক্তির অবাধ প্রবাহ, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিপ্লব। গত ১০ বছরে দেশে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিপ্লব ঘটে গেছে। এখন ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা ৮ কোটির বেশি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার করে সমসংখ্যক মানুষ। দেশে কয়েক হাজার অনলাইন মিডিয়া আছে। স্থানীয় পত্রিকাসহ প্রায় ২ হাজারের কাছাকাছি পত্রিকা। ৩০টির বেশি টেলিভিশন অন এয়ারে আছে। ৪০টি লাইসেন্স পেয়েছে। আরও কয়েকটি অন এয়ারে আসবে। ব্যাপক পরিবর্তন ঘটেছে।

উদ্বোধন অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে চসিক মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন বলেন, প্রতি বছর নির্ধারিত সময়ে নির্দিষ্ট স্থানে বইমেলা শুরু হবে। আগামীতে আরও বড় পরিসরে বইমেলা হবে।

স্বাগত বক্তব্য দেন চসিকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সামশুদ্দোহা। বইমেলার আহ্বায়ক কাউন্সিলর নাজমুল হক ডিউক, যুগ্ম আহ্বায়ক মহিউদ্দিন শাহ আলম নিপু, সচিব সুমন বড়ুয়া ও যুগ্ম সচিব জামাল উদ্দিন।

শুরুতে তথ্যমন্ত্রী জাতীয় পতাকা, মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন চসিকের পতাকা উত্তোলন করেন। এ সময় জাতীয় সংগীত পরিবেশন করে কাপাসগোলা সিটি করপোরেশন কলেজের ছাত্রীরা।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর