শিরোনাম
প্রকাশ : সোমবার, ৯ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ৮ ডিসেম্বর, ২০১৯ ২৩:৩৮

বিজ্ঞান এবং বিজ্ঞানী

তাসলিমা নীলু

বিজ্ঞান এবং বিজ্ঞানী

ধরুন হঠাৎ করে আপনি একটা ল্যাবে ঢুকে একটা এক্সপেরিমেন্ট দেখতে লাগলেন। কীভাবে বুঝবেন আপনি কোন ল্যাবে ঢুকেছেন।

যদি এক্সপেরিমেন্টের বিষয়বস্তু হয় সবুজ আর জীবন্ত, বুঝবেন এটা বায়োলজি ল্যাব।

যদি এক্সপেরিমেন্টের উপাদানগুলো থেকে বিচিত্র সব গন্ধ নাকে আসে তাহলে বুঝবেন এটা কেমিস্ট্রি ল্যাব।

যদি দেখেন এক্সপেরিমেন্টটা কোনোভাবেই কাজ করছে না, তাহলে বুঝবেন এটা একটা ফিজিক্স ল্যাব।

ল্যাবে থাকা একটা গিনিপিগ আরেকটা গিনিপিগকে কী বলে?

বলে, আমি বিজ্ঞানীটাকে এমনভাবে ট্রেইন করেছি যে চিউ করে একটা আওয়াজ দিলেই খাবার নিয়ে হাজির হয়!

সায়েন্স ল্যাবের নিয়ম কানুন-

যদি কোনো এক্সপেরিমেন্ট একবারেই শেষ হয় তাহলে বুঝবেন কোথাও একটা কিন্তু আছে।

যদি এক্সপেরিমেন্ট করতে করতে শেষ দিকে এসে কী করছিলেন এটাই ভুলে যান, তাহলে চেপে যান। পৃথিবীর মহান সব আবিষ্কার ভুল এক্সপেরিমেন্ট থেকেই হয়েছে।

এক্সপেরিমেন্ট ভুলের সমানুপাতিক অর্থাৎ যতবার এক্সপেরিমেন্ট ততবারই ভুল রেজাল্ট- এটা মেনে নিয়ে কাজ শুরু করুন। কষ্ট কম পাবেন।

যতবারই এক্সপেরিমেন্ট করবেন ডাটা লিখে রাখুন- কারণ এক্সপেরিমেন্ট শেষে কাক্সিক্ষত ফলাফল না পেলে ডাটা তো দেখাতে পারবেন।

ল্যাবে কাজ করার সময় ভুলে যান যে মিরাকল বলে কিছু আছে, মিরাকলি কোনো কিছুই হবে না। আপনাকেই কাজ করে এক্সপেরিমেন্টা শেষ করতে হবে।

টিম নিয়ে ল্যাবে কাজ করুন, অন্তত দোষ দেওয়ার জন্য কাউকে না কাউকে পাবেন।

ল্যাবের সবচেয়ে দামি জিনিসটাই আপনার হাতে ভাঙবে। সুতরাং আগে থেকেই কিন্তু টাকা-পয়সা জমিয়ে রাখুন- জরিমানাটা আপনাকেই দিতে হবে কিনা।

 

কয়েকজন বিজ্ঞানী ঠিক করলেন একটা  তেলাপোকা নিয়ে গবেষণা করবেন।

গবেষণার অংশ হিসেবে প্রথমে  তেলাপোকার একটা পা কেটে বাদ দিলেন তারা, তারপর তেলাপোকাকে হাঁটতে বললেন।

কুকুর উঁঠে দাঁড়িয়ে হাঁটল।

এই পরীক্ষার ফলাফল হিসেবে বিজ্ঞানীরা লিখলেন : তেলাপোকা  পাঁচ পায়েও হাঁটতে পারে।

গবেষণার দ্বিতীয় অংশে তেলাপোকার আরও একটা পা কেটে বাদ দিলেন এবং হাঁটতে বললেন তেলাপোকাকে।

কোনোরকমে টেনেহিঁচড়ে হেঁটে গেল তেলাপোকাটা।

দ্বিতীয় পরীক্ষার ফলাফলে তারা লিখলেন এ করম : তেলাপোকা চার পা দিয়েও হাঁটতে পারে।

গবেষণার তৃতীয় অংশ হিসেবে তেলাপোকার তিন নম্বর পা-টা কেটে বাদ দেওয়া হলো এবং তেলাপোকাকে আদেশ দেওয়া হলো হাঁটতে।

এক পায়ে হাঁটতে না পারায় চুপচাপ বসে থাকল তেলাপোকা।

তৃতীয় পরীক্ষার ফলাফল হিসেবে বিজ্ঞানীরা লিখলেন- তিন নম্বর পা-টা কেটে ফেলার পর তেলাপোকা শ্রবণ শক্তি হারিয়ে ফেলে!


আপনার মন্তব্য

close