Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
প্রকাশ : সোমবার, ১৮ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৭ মার্চ, ২০১৯ ২৩:২৪

নিরাপত্তা বিষয়ে বিসিবির ভাবনা

ক্রীড়া প্রতিবেদক

নিরাপত্তা বিষয়ে বিসিবির ভাবনা

ক্রাইস্টচার্চের আল নূর মসজিদের বর্বোরোচিত ঘটনায় স্তম্ভিত পুরো বিশ্ব। শ্বেতাঙ্গ সন্ত্রাসী ব্রেন্ট ট্যারেন্টের গুলিবর্ষণে নিহতের সংখ্যা ৫০ এবং পাঁচজনই বাংলাদেশের। এই ঘটনায় বাকরুদ্ধ বাংলাদেশের জনগণ। প্রভাব ফেলেছে ব্যাপক। এই ঘটনা থেকে অল্পের জন্য বেঁচে গেছেন ক্রিকেটাররা। ওই মসজিদেই জুমার নামাজ পড়তে গিয়েছিলেন মাহমুদুল্লাহরা। কিন্তু পাঁচ মিনিট এদিক-ওদিক হওয়ায় মসজিদের ভিতর যাওয়া হয়নি ক্রিকেটারদের। তাই নৃশংস হামলার শিকার হননি। ভাগ্যগুণে বেঁচে যাওয়ার পরও যে মানসিক ধাক্কা পেয়েছে টাইগাররা, সেটা কাটিয়ে উঠতে সময় লাগবে। এই ঘটনার পর বিসিবি নড়েচড়ে বসেছে দেশের বাইরে ক্রিকেটারদের নিরাপত্তার বিষয় নিয়ে। বিসিবি চাইছে, আয়ারল্যান্ড ও বিশ্বকাপের আগে সেখানকার নিরাপত্তা ব্যবস্থা পর্যবেক্ষণ করতে।

নিরাপত্তা ব্যবস্থা পর্যবেক্ষণ করেও ২০১৫ সালে শেষ মুহূর্তে বাংলাদেশ সফর বাতিল করেছিল অস্ট্রেলিয়া। বাংলাদেশের আসার আগে ইংল্যান্ড, দক্ষিণ আফ্রিকা, নিউজিল্যান্ডও পর্যবেক্ষক পাঠাতো নিরাপত্তা ব্যবস্থা দেখতে। বিদেশি ক্রিকেট দলগুলোকে যে নিরাপত্তা দেয় বাংলাদেশের প্রশাসন, সেটা ভিভিআইপি ক্যাটাগরির। তারপরও সন্তুষ্ট করতে পারে না দেশগুলোকে। ক্রাইস্টচার্চের নারকীয় ঘটনার পর নিউজিল্যান্ডের নিরাপত্তা ব্যবস্থা এখন প্রশ্নের সম্মুখীন। বাংলাদেশে জনমত গড়ে উঠতে শুরু করছে, ক্রিকেটারদের বিদেশে পাঠানোর আগে সেখানকার নিরাপত্তা ব্যবস্থা দেখতে পরিদর্শন করে আসতে। বিসিবির পরিচালক ও সাবেক টেস্ট অধিনায়ক খালেদ মাহমুদ সুজন বলেন, ‘বাংলাদেশে যখন ইংল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া কিংবা নিউজিল্যান্ড সফর করে, তখন নিরাপত্তা দল নিয়ে আসে। আমাদের হোটেল, রাস্তাঘাট-সবকিছু দেখে থাকে পুঙ্খানুুপুঙ্খ। আমার মনে হয়, এখন আমাদেরও এমন করা উচিত।’ আইসিসি এর মধ্যে বিসিবিকে কঠোর নিরাপত্তা পরিকল্পনা পাঠিয়েছে জানান বিসিবি সিইও নিজাম উদ্দীন সুজন,‘ আইসিসি সবসময়ই কঠোর নিরাপত্তার ব্যবস্থা করে থাকে। তারা আমাদের কাছে কঠোর নিরাপত্তা পরিকল্পনা পাঠিয়েছে। সব সদস্য দেশের সঙ্গে কথা বলছে। ক্রাইস্টচার্চ ঘটনার আইসিসি আরও সতর্ক ও সচেতন হবে।’ বিশ্বকাপে সবগুলো দলকেই কঠোর নিরাপত্তা দেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে ইংল্যান্ডের। তারপরও মাশরাফি, সাকিব, মুশফিক, তামিম, মাহমুদুল্লাহদের নিরাপত্তা দেখতে বাংলাদেশের পরিদর্শক যাওয়া উচিত ইংল্যান্ডে।


আপনার মন্তব্য