Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : রবিবার, ১৮ নভেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৮ নভেম্বর, ২০১৮ ০০:০৫

সম্ভাব্য প্রার্থী ও সমর্থকরা এখন মসজিদমুখী

সাঈদুর রহমান রিমন

সম্ভাব্য প্রার্থী ও সমর্থকরা এখন মসজিদমুখী

নির্বাচনের দিন যতই ঘনিয়ে আসছে ততই মসজিদে বেড়ে চলেছে মুসল্লির সংখ্যা। নতুন নামাজিদের ভিড়ে মসজিদগুলোতে এখন ঠাঁই নেই অবস্থা। শুক্রবারের জুমার জামাতে রাজধানীর প্রতিটি মসজিদ এবং সংলগ্ন রাস্তাঘাটজুড়ে মুসল্লিদের ভিড় লক্ষ করা গেছে। নির্বাচনে সম্ভাব্য প্রার্থীরাও এখন মসজিদমুখী। তাদের ঘনিষ্ঠ সমর্থক প্রচারকর্মীরাও এখন রুটিন বেঁধে ওয়াক্তের নামাজ মসজিদে আদায় করছেন। নামাজের আগে-পরে মসজিদের বাইরে নির্বাচন, প্রার্থী, এলাকার নানা বিষয় নিয়ে কথা বলছেন। মুসলিমপ্রধান দেশ হওয়ায় নিয়মিত জনসমাগমস্থল হচ্ছে মসজিদ। এ কারণে সহজেই ভোটারদের কাছাকাছি যাওয়ার উপায় হিসেবে প্রার্থীরাও এখন মসজিদমুখী। শুক্রবার জুমার নামাজ ছাড়াও দিনের পাঁচ ওয়াক্ত নামাজও তারা নির্বাচনী এলাকার মসজিদে আদায় করছেন। মুসল্লিদের সঙ্গে কুশল বিনিময় করছেন, নামাজ শেষে কোলাকুলিও করছেন। নিয়মিত মুসল্লিদের অনেকে বলেছেন, ভোট এলেই প্রার্থীরা মসজিদমুখী হন। পাঞ্জাবি-টুপি পরা শুরু করেন। ধর্মপ্রাণ মানুষের মন জয় করতেই তাদের এ কৌশল। রাজধানীর বাইরে গ্রামাঞ্চলেও মুসলিম প্রার্থীরা জুমার নামাজের দিনটিকে বেশি গুরুত্ব দিচ্ছেন। তারা মসজিদে যাচ্ছেন আগেভাগে। আশপাশের মুসল্লিদের সঙ্গে কুশল বিনিময় করছেন। নামাজের আগে ইমামের মাধ্যমে সবার দোয়া চাচ্ছেন। নামাজ শেষে এরা সবাই মসজিদের সামনে গণসংযোগও করেন। জুমার নামাজের সময় পাড়া-মহল্লার অধিকাংশ মানুষ ও মুরব্বিদের একসঙ্গে পাওয়া যায়। প্রার্থীরা এ সুযোগটা কাজে লাগাতে চান। যদিও আচরণবিধিতে ধর্মীয় উপাসনালয়, মসজিদ, মন্দির, গির্জায় প্রচারণা চালানো নিষিদ্ধ।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর