শিরোনাম
প্রকাশ : ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ১৯:৩০
আপডেট : ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ১৯:৪০

এসএসসি পাসের পর পড়ার বিষয় ট্যুরিজম অ্যান্ড হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট

প্রেস বিজ্ঞপ্তি

এসএসসি পাসের পর পড়ার বিষয় ট্যুরিজম অ্যান্ড হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট
ট্যুরিজম অ্যান্ড হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট কী
 
পর্যটনের সঙ্গে একান্তভাবে যে পড়াটির যোগসূত্র রয়েছে তা হলো হোটেল ম্যানেজমেন্ট। বলা যায়, আগামীর পেশা ট্যুরিজম অ্যান্ড হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট হলো পর্যটন ও সেবাবিষয়ক প্রাকটিক্যাল জ্ঞানের পাঠ।
 
ট্যুরিজম অ্যান্ড হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট শুধু পর্যটন বা হোটেল ব্যবস্থাপনা নিয়েই সীমাবদ্ধ নয়, বরং একই সঙ্গে রাজনীতি, অর্থনীতি ও সংস্কৃতির সমন্বয় ঘটিয়ে কীভাবে এই শিল্পের উন্নয়ন করা যায়, তা নিয়েও আলোচনা করা হয় এতে। এ ছাড়া দক্ষ জনশক্তি তৈরি করে পর্যটনশিল্প এগিয়ে নিতে সহায়তা করে ট্যুরিজম অ্যান্ড হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট।
 
কেন পড়বেন
 
বিশ্বের প্রতি ১১টি চাকরির মধ্যে একটি পর্যটন শিল্পে হয়ে থাকে, যেখানে গ্লোবাল জিডিপিতে অবদান ১০.৩ শতাংশ। পর্যটন বিশেষজ্ঞরা তাদের গবেষণা দ্বারা ধারণা করছেন, আগামী দিনে বিশ্ব পর্যটকের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াবে ১৬০ কোটি। এই বিপুল সংখ্যক পর্যটকের ৭৩ শতাংশই ভ্রমণ করবেন এশিয়ার দেশগুলোতে। পর্যটন শিক্ষা শতভাগ কর্মমুখী শিক্ষা। বাংলাদেশে ট্যুরিজম অ্যান্ড হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট অথবা হোটেল ম্যানেজমেন্ট বিষয়টি নতুন হলেও বিশ্বের অনেক দেশে অনেক আগ থেকে প্রচলিত একটি পড়ার বিষয়। 
 
উন্নত দেশগুলোর পাশাপাশি বাংলাদেশেও পর্যটন শিল্পের অনেক বিকাশ ঘটেছে। বর্তমানে বাংলাদেশে প্রায় ৭টি পাঁচ তারকা এবং ৫টি চার তারকা বিশিষ্ট হোটেল ছাড়াও প্রায় অর্ধশত তিন তারকা বিশিষ্ট হোটেল রয়েছে। ফলে এই শিল্পে কাজ করার জন্য প্রয়োজন দক্ষ জনবলের।
 
কর্মক্ষেত্র
 
বিশ্বায়নের জোয়ারে চাকরির বাজার এখন আর শুধু দেশেই সীমাবদ্ধ নয়, দেশের বাইরেও কাজের অবারিত সুযোগ রয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে হোটেল, মোটেল, হাসপাতাল, ট্র্যাভেল অ্যান্ড টুরিজম সংস্থা, এয়ারলাইন্স, শিপ, কাস্টমার কেয়ার সার্ভিস সেন্টার প্রভৃতি। 
 
সারা পৃথিবীতে অসংখ্য ফাইভ স্টার বা পাঁচতারা হোটেল রয়েছে। উদাহরণ হিসেবে যদি একটি মাত্র হোটেলের আয়তনকে বিশ্লেষণ করা যায়, তাহলেই বোঝা যাবে কী বিপুল পরিমাণ কর্মীর দরকার হয়, এরকম একটি হোটেল পরিচালনা করতে।
 
কোথায় পড়বেন
 
বাংলাদেশ টেকনিক্যাল এডুকেশন বোর্ড (বিটিইবি)-এর অধীনে ড্যাফোডিল পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট ২০১৮ সাল থেকে ট্যুরিজম অ্যান্ড হসপিটালিটি টেকনোলোজির ওপর ৪ বছর মেয়াদী ডিপ্লোমা প্রোগ্রাম পরিচালনা করে আসছে। ৪ বছর মেয়াদী কোর্সে ৮টি পর্ব/সেমিস্টার সম্পন্ন করতে হয়। 
 
সপ্তাহে ৬ দিন ক্লাশ অনুষ্ঠিত হয়। তাছাড়া এখানে শুধুমাত্র ডে-শিফট-এ ক্লাস হয়ে থাকে। ফলে শিক্ষার্থীরা পার্ট টাইম কাজ করার সুযোগ পায়।
 
কেন ড্যাফোডিল পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট 
 
ড্যাফোডিল পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট-এর ট্যুরিজম অ্যান্ড হসপিটালিটি টেকনোলোজির কোর্স কারিকুলাম একটু ভিন্নভাবে সাজানো। শিক্ষার্থীদের চার বছরের শিক্ষাজীবনকে চারটি সেগমেন্টে ভাগ করা হয়। প্রথম সেগমেন্ট হচ্ছে রেগুলার বা নিয়মিত কোর্সের আওতাধীন পড়াশোনা, দ্বিতীয় সেগমেন্ট হচ্ছে কো-কারিকুলাম বা সহশিক্ষা কার্যক্রম, তৃতীয় সেগমেন্ট ল্যাব ও অন অ্যাকুকেশন ট্রেনিং এবং চতুর্থ সেগমেন্ট হচ্ছে ক্যারিয়ার।
 
এ চারটি সেগমেন্টের ভেতর দিয়ে একজন শিক্ষার্থীকে ডিপ্লোমা সম্পন্ন করতে হয় বলে তার পক্ষে কর্মজীবনের জন্য দক্ষ মানবসম্পদ রূপে গড়ে ওঠা ছাড়া বিকল্প থাকে না। ৪ বছরে মোট ৮টি সেমিস্টারের ৪র্থ ও ৮ম সেমিস্টার ইন্টার্নশিপ। ফলে শিক্ষার্থীরা অতি দ্রুত ক্যারিয়ার শুরু করার সুযোগ পেয়ে থাকে। কোর্স শেষে নিজস্ব জব প্লেসমেন্ট সেলের মাধ্যমে দেশে-বিদেশে রয়েছে কর্মসংস্থানের সুযোগ।
 
১. প্রযুক্তি নির্ভর চাকরি বাজারের জন্য তথ্য-প্রযুক্তিতে দক্ষ ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার গড়ার লক্ষ্যে One Student One Laptop.
২. আর্থিক সুবিধাসহ সল্পতম সময়ে উচ্চ শিক্ষার জন্য নিজস্ব বিশ্ববিদ্যালয় Daffodil International University পড়ার  সুযোগ।  
৩. বিদেশে ভর্তি, ক্রেডিট ট্রান্সফার, মাইগ্রেশন ও ভর্তির সর্বোচ্চ সহযোগিতায় Admission.ac
৪. শিক্ষার্থীদের জন্য রয়েছে তরুণ উদ্যোক্তা ফান্ড Bangladesh Venture Capital
৫.  চাকরি প্রাপ্তির নিশ্চয়তায় Job Placement cell  
৬. Work Based Scholarship 
৭. সরকারি বৃত্তি
 
এছাড়াও রয়েছে দক্ষ ও অভিঙ্গ শিক্ষক-শিক্ষিকামণ্ডলী, যারা সার্বক্ষণিক শিক্ষার মান উন্নয়ন ও শিক্ষার্থীদের দক্ষতা বৃদ্বির লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে।   
 
বর্তমানে ২০২০-২১ শিক্ষা বর্ষে বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের অধীনে ডিপ্লোমা ট্যুরিজম অ্যান্ড হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্টে প্রোগ্রামে ভর্তি চলছে।
 
যোগাযোগ : ০১৭১৩৪৯৩২৪৬, ০১৭১৩৪৯৩২৪৩। Web: www.dpi.ac, Email: [email protected]  
 
বিডি প্রতিদিন/এমআই

আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর