শিরোনাম
প্রকাশ : ৩ মে, ২০২১ ১৯:৩২
প্রিন্ট করুন printer

অতীশ দীপঙ্কর ইউনিভার্সিটিতে করোনা বিষয়ক ওয়েবিনার

প্রেস বিজ্ঞপ্তি

অতীশ দীপঙ্কর ইউনিভার্সিটিতে করোনা বিষয়ক ওয়েবিনার

অতীশ দীপঙ্কর ইউনিভার্সিটি অফ সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি মাস্টার অব পাবলিক হেলথ প্রোগ্রাম কর্তৃক ‘বাংলাদেশে কোভিড-১৯ পরিস্থিতি: প্রতিরোধে করণীয়’ শীর্ষক ওয়েবিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার ভার্চুয়াল প্ল্যাটফর্মে এটি অনুষ্ঠিত হয়।

ঢাকা বিশ্ববদ্যিালয়ের সমাজকল্যাণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের অধ্যাপক ড. এম শাহীন খানের সঞ্চালনায় ওয়েবিনারে সভাপতিত্ব করেন বিশ্ববদ্যিলয় ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান মো. লিয়াকত আলী সিকদার।

মুখ্য আলোচক হিসেবে অনুষ্ঠানে সংযুক্ত ছিলেন কোভিড-১৯ বিষয়ক জাতীয় পরামর্শক কমিটির অন্যতম সদস্য প্রফেসর ডা. কাজী তরিকুল ইসলাম। আলোচক হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রের নিউ জার্সি থেকে অংশগ্রহণ করেন মনমাউত ইউনিভার্সিটি’র স্কুল অব সোশ্যাল ওয়ার্কের অধ্যাপক ড. গোলাম মো. মাদবর এবং ন্যাশনাল হেলথ সার্ভিস, ইউকে-তে ইমার্জেন্সী মেডিসিন বিশেষজ্ঞ হিসেবে কর্মরত ডা. গোলাম রাহাত খান।

ওয়েবিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন গ্লোবাল এপিডেমিওলোজী ডিরেক্টর, আস্ট্রাজেনেকা ফার্মাসিউটিক্যালস, সুইডেনে কর্মরত ডা. ফরহাদ আলী খান।

তিনি সামগ্রিক বৈশ্বিক পরিস্থিতি তুলে ধরেন। জনস্বাস্থ্য বিষয়ক বিশেষজ্ঞ হিসেবে তিনি এই পরিস্থিতি সামাল দিতে ভৌগলিক ও সামাজিক প্রেক্ষাপট আমলে নিয়ে বাংলাদেশের জন্য প্রাসঙ্গিক পদক্ষেপ নেওয়ার ব্যাপারে গুরুত্ব আরোপ করেন। সংক্রমণ কমানোর লক্ষ্যে আর্থ-সামাজিক প্রেক্ষাপটে লকডাউনের পাশাপাশি স্বাস্থ্যবিধি মেনে জীবন-জীবিকার প্রয়োজনে চলাচল করতে নাগরিকদের প্রতি আহ্বান জানান। 

ডা. গোলাম রাহাত খান ইউকে’র কোভিড-১৯ পরিস্থিতির আলোকে বাংলাদেশের করণীয় নিয়ে আলোচনা করেন।
জনগণকে আতঙ্কিত না হয়ে, চিকিৎসকের পরামর্শ মেনে কোভিড-১৯ রোগের চিকিৎসা নিশ্চিতকরণে স্বাস্থ্য ব্যবস্থার কার্যকর প্রয়োগের প্রতি গুরুত্ব আরোপ করেন। এছাড়া ট্রায়াজ পদ্ধতি অনুসরণ করে গুরুতর অসুস্থ রোগীদের জন্য স্বাস্থ্য সংশ্লিষ্ট সম্পদের সঠিক ব্যবহার নিশ্চিত করার ব্যাপারে বিশেষ গুরুত্ব আরোপ করেন তিনি। সেই সাথে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে উদ্বুদ্ধ করতে জনপ্রতিনিধিদের আরো জোড়ালো পদক্ষেপ নিতে আহ্বান জানান।

আমেরিকার নিউ জার্সি থেকে আলোচনায় যুক্ত হয়ে প্রফেসর ড. গোলাম মো. মাদবর কোভিড-১৯ এর সামাজিক প্রভাবের বৈশ্বিক চিত্র তুলে ধরেন। দীর্ঘ সময় ধরে বিশ্বের বিভিন্ন স্থানে জনমনে যে ভয় ও আতঙ্ক বিরাজ করছে, সে অবস্থায় সামাজিক দূরত্বের বিরূপ প্রভাব ও তার থেকে উত্তরণের সম্ভাব্য সকল দিক তুলে ধরেন।

অনুষ্ঠানের মুখ্য আলোচক বাংলাদেশের কোভিড-১৯ বিষয়ক জাতীয় পরামর্শক কমিটির অন্যতম সদস্য প্রফেসর ডা. কাজী তরিকুল ইসলাম দেশের করোনা পরিস্থিতির নিয়ন্ত্রণ ও সংক্রমণ রোধে কমিটির বিভিন্ন সফল পদক্ষেপ এবং এক্ষেত্রে সরকারের সহযোগিতার প্রশংসা করেন। পাশাপাশি ব্যক্তি সুরক্ষা নিশ্চিত করতে জাতীয় গাইডলাইন মেনে চলতে সবাইকে বিশেষভাবে অনুরোধ করেন। তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন যে, সকল সমস্যা থেকে দ্রুততম সময়ে সকলের সামাজিক প্রচেষ্টার মাধ্যমে বাংলাদেশ এই সংকট কাটিয়ে উঠবে।

অনুষ্ঠানের শেষ পর্যায়ে অতীশ দীপঙ্কর ইউনিভার্সিটি অফ সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান মো. লিয়াকত আলী সিকদার সভাপতির বক্তব্যে ওয়েবিনারে সংযুক্ত সবাইকে বিশেষ ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। ব্যক্তি সুরক্ষা নিশ্চিতকরণের প্রতি আরো বেশি গুরুত্ব দিয়ে লকডাউন পরিস্থিতির ইতি টেনে, জীবন-জীবিকার গতি স্বাভাবিক রাখার ব্যাপারে সরকারের সকল পদক্ষেপের প্রশংসা করেন।

সবশেষে আলোচকদের বিষয়ভিত্তিক আলোচনার জন্য বিশেষ ধন্যবাদ জ্ঞাপন করে সবাইকে স্বাস্থ্য সুরক্ষা মেনে চলার আহ্বান জানিয়ে অনুষ্ঠানের সঞ্চালক ড. শাহীন খান অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষণা করেন। 

বিডি প্রতিদিন/এমআই

এই বিভাগের আরও খবর