শিরোনাম
প্রকাশ : ১১ জুলাই, ২০২০ ২০:২২

গোয়েন্দা কর্মকর্তা পরিচয়ে প্রতারণার অভিযোগে চিকিৎসকসহ আটক ২

নিজস্ব প্রতিবেদক, সিলেট

গোয়েন্দা কর্মকর্তা পরিচয়ে প্রতারণার অভিযোগে চিকিৎসকসহ আটক ২

সিলেটে গোয়েন্দা কর্মকর্তার পরিচয়ে প্রতারণার অভিযোগে এক চিকিৎসক ও তার সহযোগীকে আটক করেছে পুলিশ। আজ শনিবার তাদেরকে আদালতে হাজির করা হলে ওই চিকিৎসক স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয়। গতকাল শুক্রবার (১০ জুলাই) রাতে দুই প্রতারককে আটক করা হয়।

আটক প্রতারকরা হলেন- জৈন্তাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক ডা. মুহিবুর রহমান রুবেল ও তার সহযোগী সিলেট সদর উপজেলার শাহপরাণ থানাধীন বাহরটিলার সৈয়দ দারা মিয়ার ছেলে শাহেদ আহমদ। 

পুলিশ জানায়, গত কয়েকদিন ধরে নগরীর আম্বরখানা ইলেকট্রিক সাপ্লাইরোডের ওসমান ফার্মেসিতে ওষুধ কেনার জন্য আসা যাওয়া করে ডা. মুহিবুর রহমান রুবেল। শুক্রবার বিকেলে সে ফার্মেসিতে গিয়ে নিজেকে গোয়েন্দা সংস্থার ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা পরিচয় দিয়ে ফার্মেসির মালিককে ভয়ভীতি দেখিয়ে তিন লাখ টাকা দাবি করে। টাকা না দিলে ফার্মেসির লাইসেন্স জব্দ ও মালিককে জেলে পাঠানোর হুমকি দেয়। 

রাত ১০টার দিকে ডা. রুবেল ফোন করে টাকা আনতে ফার্মেসিতে পাঠায় তার সহযোগী শাহেদ আহমদকে। শাহেদ টাকা আনতে গেলে ফার্মেসির মালিক সাদ্দাম হোসেন তাকে আটক করে পুলিশে সোর্পদ করেন। তার দেয়া তথ্য মতে, পুলিশ রাত ১টার দিকে নগরীর শিবগঞ্জ থেকে প্রতারক ডা. রুবেলকে আটক করে। এ ঘটনায় ওসমানী ফার্মেসির মালিক সাদ্দাম হোসেন বাদি হয়ে কোতোয়ালী থানায় মামলা দায়ের করেন। 

সিলেট কোতোয়ালী থানার ওসি মো. সেলিম মিয়া জানান, আটক ডা. মুহিবুর রহমান গোয়েন্দা সংস্থার কর্মকর্তার পরিচয় দিয়ে প্রতারণার বিষয়টি আদালতে স্বীকার করেছে। তাকে ও তার সহযোগী শাহেদকে আজ শনিবার আদালতে হাজির করে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। 


বিডি-প্রতিদিন/আব্দুল্লাহ তাফসীর


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর