শিরোনাম
প্রকাশ : ২ এপ্রিল, ২০২০ ১৫:৩৫

বরিশালে জনসমাগম রোধে সেনাবাহিনীর জোড়দার টহল

নিজস্ব প্রতিবেদক, বরিশাল

বরিশালে জনসমাগম রোধে সেনাবাহিনীর জোড়দার টহল

করোনা সংক্রামন এড়াতে ঘরে থাকার সরকারি নির্দেশ বরিশালের জনগন প্রথম কয়েকদিন মানলেও গত ৩ দিন ধরে প্রচুর সংখ্যক মানুষ রাস্তায় বেড়িয়ে পড়ে। এতে করোনা সংক্রামন ঝুঁকি বেড়ে যায়। এ অবস্থায় আজ বৃহস্পতিবার বরিশালে জনসমাগম রোধে কঠোর অবস্থান নিয়েছে প্রশাসন এবং আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। 

আজ সকাল থেকে জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নাজমুল হুদার নেতৃত্বে সেনাবাহিনীর একটি দল নগরীর বিভিন্ন সড়কে জোড়ালো টহল দেয়। এসময় বিভিন্ন স্থানে থেমে থেমে অযথ রাস্তায় জমায়েত না করা, জরুরী প্রয়োজন ছাড়া ঘর থেকে বের না হওয়া এবং মুদী ও ওষুধের দোকান ব্যতিত কোন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খোলা না রাখার নির্দেশনা দেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বাধীন সেনা বাহিনী।

বরিশাল বিভাগে জনসমাগম রোধে সেনাবাহিনীর ১৭টি দল জোড়দার টহল দিচ্ছে বলে জানিয়েছেন শেখ হাসিনা সেনানিবাসের কর্মকর্তা মেজর সিদ্দিক মোবিন। 

এদিকে, সেনাবাহিনীর টহল ছাড়াও পুলিশ সদস্যরা নগরীসহ বিভিন্ন স্থানে গুরুত্বপূর্ন সড়কে চেকপোস্ট স্থাপন করে সরকারী নির্দেশ অমান্য করে চলা যানবাহন আটকে দেয়। মোটরসাইকেলে কিংবা রিকসায় ২ বা ততোধিক যাত্রী থাকলে একজন ব্যতিত অন্যদের নামিয়ে দেয় পুলিশ। এসময় তারা বিভিন্ন যানবাহনের বিরুদ্ধে মামলা দেয়। 

এছাড়া পুলিশ এবং র‌্যাবের একাধিক দল জনগসমাগম রোধে এবং জনগনকে নিজ নিজ ঘরে রাখতে নগরীসহ সর্বত্র জোড়দার টহল দিচ্ছে। 

মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মো. শাহাবুদ্দিন খান জানান, করোনা এড়াতে সরকার সবাইকে নিজ নিজ ঘরে থাকার নির্দেশ দিয়েছে। এরপরও কিছু সংখ্যক মানুষ অপ্রয়োজনে রাস্তায় বের হচ্ছে। সরকারী নির্দেশ বাস্তাবায়নে বরিশালের আইন শৃঙ্খলা বাহিনী কঠোর হয়েছে। অপ্রয়োজনে কেউ রাস্তায় বের হলে তাকে জবাবদিহীতা করতে হবে। এমনকি তাদের শাস্তিও পেতে হবে। সরকারী নির্দেশ মেনে সবাইকে নিজ নিজ ঘরে থাকার আহ্বান জানান পুলিশ কমিশনার।


বিডি-প্রতিদিন/সিফাত আব্দুল্লাহ


আপনার মন্তব্য