Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ১৩ এপ্রিল, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৩ এপ্রিল, ২০১৯ ০১:২৫

বৈশাখ দোহাইয়ে পণ্যের দাম চড়া

নিজস্ব প্রতিবেদক

বৈশাখ দোহাইয়ে পণ্যের দাম চড়া

পয়লা বৈশাখ ও শবেবরাতের দোহাই দিয়ে বাজারে নিত্য প্রয়োজনীয় সব পণ্য চড়া দামে বিক্রি হচ্ছে। পয়লা বৈশাখ ঘিরে ইলিশের চাহিদা বেড়ে যাওয়ায় রাজধানীর বাজারে ব্যাপকভাবে বেড়ে গেছে এ মাছের দাম। এক কেজির কিছু বেশি ওজনের একটি ইলিশের দাম বাজার ভেদে হাঁকা হচ্ছে আড়াই থেকে তিন হাজার টাকা। যা সপ্তাহখানেক আগেও দেড় হাজার টাকায় বিক্রি হয়েছে। এ ছাড়া সপ্তাহের ব্যবধানে বিভিন্ন ধরনের সবজি, মুরগি, বিভিন্ন মাছ-মাংসের দাম বেড়েছে। গতকাল রাজধানীর কালশী, পল্লবী, মিরপুর, কল্যাণপুর, মোহাম্মদপুর, ধানমন্ডি, হাতিরপুল, আজিমপুরসহ বিভিন্ন বাজার ঘুরে এমন চিত্র দেখা গেছে। বাজারে সব ধরনের সবজি প্রতিকেজি বিক্রি হচ্ছে ৫০ থেকে ৭০ টাকায়। সাপ্তাহিক ছুটির দিন থাকায় বাজারে ক্রেতা সমাগম বেশি ছিল অধিকাংশ বাজারে। এসব বাজারে গিয়ে দেখা গেছে ইলিশের সরবরাহ ও বিক্রি দুটোই বেড়েছে। নানান আকারের ইলিশ নিয়ে ব্যবসায়ীরা বসে আছে। ৮০০ থেকে ৯০০ গ্রাম ওজনের প্রতিটি ইলিশের দাম দুই থেকে আড়াই হাজার টাকা। একই ওজনের ইলিশ কিছুদিন আগেও এক হাজার থেকে এক হাজার ৪০০ টাকায় বিক্রি হতে দেখা গেছে। এ ছাড়া নদীর ৯০০ গ্রাম থেকে ১ কেজি ওজনের প্রতি কেজি ইলিশ তিন হাজার টাকা হাঁকা হচ্ছে। এক কেজি ১০০ গ্রাম থেকে এক কেজি ২০০ গ্রাম ওজনের বড় ইলিশও কিছু বাজারে দেখা গেছে।   দাম চাইছে প্রতি কেজি চার হাজার টাকা। আর দেড় কেজি বা দুই কেজির কাছাকাছি ওজনের ইলিশের প্রতি কেজির দাম চাওয়া হচ্ছে সাড়ে পাঁচ হাজার টাকা। তবে ৫০০ গ্রামের নিচে এক হালি ইলিশের দাম তিন হাজার টাকা। প্রতিকেজি তেলাপিয়া ১৬০ থেকে ২০০ টাকা, পাঙ্গাশ ১৮০ থেকে ২০০ টাকা, রুই ৩৫০ থেকে ৬০০ টাকা, পাবদা ৬০০ থেকে ৭০০ টাকা, টেংরা ৭০০ থেকে ৮০০ টাকা, শিং ৪০০ থেকে ৬০০ টাকা, বোয়াল ৫০০ থেকে ৮০০ টাকা, চিতল ৫০০ থেকে ৮০০ টাকা বিক্রি হচ্ছে।

 প্রতিকেজি গরুর মাংস বিক্রি হচ্ছে ৫৫০ টাকা। আর খাসির মাংস ৮৫০ থেকে ৮৮০ টাকা।

বয়লার মুরগির কেজি বিক্রি হচ্ছে ১৬৫ থেকে ১৭০ টাকা। আর কক মুরগির দাম কেজি ৩০০ টাকায় পৌঁছে গেছে। এখন বাজারভেদে কক মুরগি বিক্রি হচ্ছে ২৯০ থেকে ৩০০ টাকা কেজি।

চড়া দামে বিক্রি হচ্ছে সবজি। প্রতিকেজি বরবটি ৬০ থেকে ৮০ টাকা, পটোল ৫০ থেকে ৭০ টাকা, করলা ৭০ টাকা, ঢেঁড়স ৫০ থেকে ৬০ টাকা, শিম ৪০ থেকে ৬০ টাকা, ধুন্দুল ৭০ থেকে ৮০ টাকা, বেগুন ৩০ থেকে ৪০ টাকা, মূলা ৩০ থেকে ৪০ টাকা, ফুলকপি ৫০ থেকে ৬০ টাকা পিস বিক্রি হচ্ছে।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর