শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ১৬ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৬ অক্টোবর, ২০১৯ ০১:০২

পাগলা মিজানের অবৈধ সম্পদের পাহাড়

নিজস্ব প্রতিবেদক

বেরিয়ে আসছে ডিএনসিসি ৩২ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও মোহাম্মদপুর থানা আওয়ামী লীগের প্রভাবশালী নেতা হাবিবুর রহমান মিজান ওরফে পাগলা মিজানের অবৈধ সম্পদের তথ্য। মোহাম্মদপুরে সরকারি জমিতে নির্মিত দুটি ভবনে তার রয়েছে ২৫টি ফ্ল্যাট। এছাড়া নয়াপল্টনে মিজানের মালিকানাধীন ছয়তলা বাড়ি, মোহাম্মদপুরে ১০ কাঠা ও গাজীপুরে ৩৫ কাঠার প্লট রয়েছে। আমেরিকা ও অস্ট্রেলিয়ায় রয়েছে দুটি আলিশান বাড়ি ও দুটি বিলাসবহুল গাড়ি। গ্রেফতারের পর আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর জিজ্ঞাসাবাদে এসব তথ্য বেরিয়ে এলেও শুরুতে মিজান বলেছিলেন, কাউন্সিলরের ভাতার বাইরে তার আর কোনো আয় নেই। খোঁজ নিয়ে আরও জানা গেছে, স্বপ্নপুরী হাউজিং কমপ্লেক্সের সামনের মাঠটিও দখলে নিয়েছেন ফ্রীডম পার্টির সাবেক এ নেতা। মোহাম্মদপুর বেড়িবাঁধের পাশে ৩০ কাঠার একটি প্লট দখল করে গড়ে তুলেছেন মার্কেট। মোহাম্মদপুর সমবায় মার্কেট ও জেনেভা ক্যাম্পের টোল মার্কেটও তার দখলে। সিটি করপোরেশনের নাম করে এসব মার্কেট থেকে তিনি মোটা অঙ্কের চাঁদা তোলেন। ভূমি দখল, চাঁদাবাজিসহ মোহাম্মদপুর বিহারি ক্যাম্পে মাদক ও চোরাই গ্যাস-বিদ্যুতের ব্যবসা করেও তিনি মোটা অঙ্কের টাকা আয় করেন।

সরকারের চলমান শুদ্ধি অভিযানে সম্প্রতি বিদেশি পিস্তল ও নগদ তিন লাখ টাকাসহ পাগলা মিজানকে গ্রেফতার করে র‌্যাব। এক সময়ের ফ্রীডম পার্টির এ শীর্ষ নেতার বিরুদ্ধে শেখ হাসিনাকে হত্যার উদ্দেশ্যে দলবল নিয়ে হামলার অভিযোগ রয়েছে। সেই চেষ্টায় ব্যর্থ হলে নাম বদলে আওয়ামী লীগে যোগ দেন। তার বিরুদ্ধে চুরি, মাদক ব্যবসা, জমি দখল, চাঁদাবাজি, খুন ও সন্ত্রাসের বহু অভিযোগ রয়েছে।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর