শিরোনাম
প্রকাশ : সোমবার, ২৭ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৬ জানুয়ারি, ২০২০ ২৩:০৯

মানহীন কয়লায় বিষাক্ত রাজশাহীর পরিবেশ

মাথাব্যথা নেই পরিবেশ অধিদফতরের

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী

রাজশাহী বিভাগের ইটভাটাগুলোতে ব্যবহার করা হচ্ছে নিম্নমানের কয়লা। আর এতে বিষাক্ত হয়ে উঠছে বাতাস। কিন্তু এনিয়ে কোনো মাথাব্যথা নেই পরিবেশ অধিদফতরের। কারণ, কয়লার মান যাচাই করার কোনো মেশিনই নেই তাদের কাছে। ইটভাটা মালিক সমিতির নেতারা বলছেন, এখন পুরো কয়লা আমদানি করা হয়ে থাকে। ফলে কয়লার মান নিয়ন্ত্রণের জন্য সরকারকে উদ্যোগী হতে হবে।

রাজশাহী বিভাগের বেশির ভাগ ইটভাটাতেই এখন জ্বালানি হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছে কয়লা। কিন্তু দেশের কয়লা দেওয়া হয় না ইট পোড়ানোর কাজে। তাই ইটভাটায় জ্বালানির শতভাগ কয়লা আমদানি করা। ইটভাটা মালিক রবিউল ইসলাম জানান, ‘এখন ইন্দোনেশিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকা ও ভারতে কয়লা পাওয়া যাচ্ছে। কিন্তু এসব আমদানি করা কয়লার গুণগত মান ভালো নয়।’ ইট প্রস্তুত ও ভাটা নিয়ন্ত্রণ আইন বলছে, মারকারি বা অনুরূপ উপাদান আছে, জ্বালানি হিসেবে এমন কয়লা ব্যবহার করা যাবে না। কিন্তু আমদানি করা কয়লার মান নিয়ন্ত্রণে তেমন গুরুত্ব নেই কর্তৃপক্ষের। এসব নিম্নমানের কয়লার ধোঁয়ায় পরিবেশ দূষণের ভয়াবহ কারণ বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। রাজশাহী বিশ^বিদ্যালয়ের ভূ-তত্ত্ব ও খনিবিদ্যা বিভাগের শিক্ষক অধ্যাপক সুলতান-উল-ইসলাম বলেন, ‘ইটভাটায় যেসব কয়লা জমা করে রাখা হয়েছে, তাতে সালফার দেখা যায়। সেই কয়লা যদি ব্যবহার করা হয়, তাহলে আমরা নিজেরা পরিবেশ ধ্বংস করছি।’ মানহীন কয়লা ব্যবহারের কথা স্বীকার করে ইটভাটা মালিক সমিতির সভাপতি সাদরুল ইসলাম বলেন, ‘আমরা নিরুপায় হয়ে সালফারযুক্ত কয়লা ব্যবহার করছি। সরকার যদি বিষয়টি না দেখে, তাহলে মালিকরা এটি দেখতে পারবে না। কারণ, মালিকদের কাছে কয়লার মান যাচাইয়ের যন্ত্র নেই।’


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর