শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ২৩ ডিসেম্বর, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ২২ ডিসেম্বর, ২০২০ ২৩:০৭

চট্টগ্রামে অবহেলায় বাড়ছে ঝুঁকি

রেজা মুজাম্মেল, চট্টগ্রাম

চট্টগ্রামে অবহেলায় বাড়ছে ঝুঁকি

চট্টগ্রামের পটিয়া উপজেলার কোলাগাঁও ইউনিয়নের করোনা আক্রান্ত এক রোগী। করোনার নানা উপসর্গ দেখা দিলেও যাননি হাসপাতালে। মুমূর্ষু অবস্থায় গত শনিবার ভর্তি করা হয় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে। ওই দিনই অবস্থা সংকটাপন্ন হলে সোমবার সকালে তাকে জেনারেল হাসপাতালের আইসিইউতে ভর্তি করা হয়। গতকাল দুপুর ১২টায় তিনি মারা যান। চিকিৎসকরা বলেন, ‘ওই রোগী এসেছিলেন সংকটাপন্ন অবস্থায়। উপসর্গ দেখা দেওয়ার পর থেকেই যদি প্রয়োজনীয় চিকিৎসা চলত, তাহলে অনেক রোগীকে ঝুঁকিতে পড়ত হত না।’  ইতিমধ্যে শুরু হয়ে গেছে করোনা সংক্রমণের দ্বিতীয় প্রকোপ। প্রতিদিনই  বাড়ছে আক্রান্ত রোগী ও মৃত্যুর সংখ্যা। সঙ্গে বেড়েছে মুমূর্ষু রোগী। প্রতিদিন সরকারি-বেসরকারি স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্রে ভর্তি হওয়া রোগীদের মধ্যে মুমূর্ষু রোগীর সংখ্যাই বেশি। উপসর্গ দেখা দেওয়ার পরও অবহেলায় যাচ্ছে না হাসপাতালে। অনেকেই ইচ্ছাকৃত নিজেই নিজের চিকিৎসা বা ফার্মেসি থেকে ওষুধ কিনে খাচ্ছেন। ফলে বাড়ছে ঝুঁকি। চট্টগ্রামে গত সোমবার একদিনেই মারা যান তিনজন। জেনারেল হাসপাতালের কভিড ওয়ার্ডের সিনিয়র কনসালটেন্ট ডা. আবদুর রব বলেন, ‘এ হাসপাতালে বর্তমানে ৬২ জন ভর্তি আছে।

এর মধ্যে মুমূর্ষু অবস্থায় ১০ জনকে আইসিইউতে ভর্তি রাখা হয়েছে। নতুন করে ভর্তি রোগীদের মধ্যে ফুসফুস আক্রান্ত ও শ্বাসকষ্টসহ নানা সমস্যা দেখা দিচ্ছে। তাই করোনাকে অবহেলা করার কোনো সুযোগ নেই। কিন্তু এখন অনেকেই অবহেলা করে বাসায় থেকে চিকিৎসা নেওয়ার চেষ্টা করছে। যা পুরোই ভুল। এটি কোনো মতেই উচিত নয়।’ চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডের চিকিৎসক ডা. হাসান রাব্বি বলেন, ‘করোনা আক্রান্ত হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে হাসপাতালে না আসায় সংক্রমণটা গভীর হচ্ছে। বিলম্ব করায় ফুসফুস আক্রান্তসহ নানা জটিলতা তৈরি হচ্ছে।’ 

জানা যায়, চমেক হাসপাতালে বর্তমানে ৩০০ শয্যায় করোনা আক্রান্ত রোগী চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। গতকাল পর্যন্ত এ হাসপাতালে শতাধিক রোগী ভর্তি ছিলেন। জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি আছে ৬২ জন ও আইসিইউতে আছে ১০  জন। এর মধ্যে অনেকের অবস্থা সংকটাপন্ন। চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতালে ভর্তি আছে ৮০ জন, এর মধ্যে ৪০ জনের বেশির মুমূর্ষু। এছাড়া বেসরকারি কয়েকটি হাসপাতালেও করোনা রোগীর চিকিৎসা চলছে।  

সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, গত সোমবার একদিনেই চট্টগ্রামে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ১৫৩ জন। এর মধ্যে মহানগরে ১৩৪ জন ও ১৫ উপজেলায় ১৯ জন। চট্টগ্রামে মোট আক্রান্ত হয়েছেন ২৯ হাজার ৬৩ জন। এর মধ্যে মহানগরে ২২ হাজার ৩৬২ জন ও ১৫ উপজেলায় ৬ হাজার ৭০১ জন। ইতিমধ্যে মারা গেছেন ৩৪৭ জন। এর মধ্যে মহানগরে ২৫০ জন এবং উপজেলায় ৯৭ জন।

 


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর