শিরোনাম
প্রকাশ : ২৯ আগস্ট, ২০২১ ১৩:৩৩
আপডেট : ২৯ আগস্ট, ২০২১ ১৪:০৯
প্রিন্ট করুন printer

খবর বিবিসি'র

জেনে নিন টিকার নিবন্ধন করেও মেসেজ না পাওয়ার কারণ

অনলাইন ডেস্ক

জেনে নিন টিকার নিবন্ধন করেও মেসেজ না পাওয়ার কারণ
ফাইল ছবি
Google News

সারাদেশে মেসেজের অপেক্ষায় আছেন এক কোটি ৩৫ লাখ ৫১ হাজার ৭২ জন নিবন্ধনকারী। বাংলাদেশে ৭ ফেব্রুয়ারি থেকে করোনাভাইরাসের টিকা দেয়া শুরু হয়। এখন দেশটিতে অ্যাস্ট্রাজেনেকা, ফাইজার, মডার্না ও সিনোফার্মের টিকা দেয়া হচ্ছে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের বরাত দিয়ে আন্তর্জাতিক সংবাদ সংস্থা বিবিসি বলছে, বাংলাদেশে আগামী বুধবার পর্যন্ত প্রথম ডোজের টিকা পেয়েছেন ১ কোটি ৪৭ লাখ ৬৯ হাজার ৪৪৭ জন। দ্বিতীয় ডোজ পেয়েছেন ৪৯ লাখ ২ হাজার ১৭৩ জন। তবে টিকা নেয়ার জন্য নাম নিবন্ধন করেছেন ২ কোটি ৮৩ লাখ ২০ হাজার ৫১৯ জন। 

বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের চাকরিরত রাশাহাত ইসলাম বলেন, আমি গত ২৮ জুলাই নিবন্ধন করেও ওয়েবসাইটে ঢুকে বার বার নিশ্চিত হয়েছি কোন ডেট এলো কিনা। টিকার কার্ডটাও নামিয়ে রেখেছি। এখন কি করবো বুঝতে পারছি না।

টিকার মেসেজ আসে কীভাবে আসবে এ সম্পর্কে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের এমএনসিএএইচ টিকা বিষয়ক দপ্তরের পরিচালক মো. শামসুল হক বলেন, টিকার নিবন্ধনে নাম তালিকাভুক্ত হওয়ার পর তার পছন্দ অনুযায়ী কেন্দ্রে তালিকা পাঠানো হয়। এরপর তারা প্রতিদিনের জন্য টিকার যে বরাদ্দ রয়েছে, সেই সংখ্যক মানুষকে টিকা নিতে আসার জন্য ক্ষুদে বার্তা পাঠান। 

তিনি আরও বলেন, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সফটওয়্যার ব্যবহার করে সাধারণত আগের দিন এসব বার্তা পাঠানো হয়। এজন্য টিকা নিবন্ধনের যে সিরিয়াল রয়েছে, সেটি অনুসরণ করে বার্তা পাঠাতে বলা হয়েছে। আমাদের যে পরিমাণ টিকা দেয়ার জন্য বরাদ্দ দেয়া হয়, নিবন্ধনের তালিকা তার চেয়ে অনেক বেশি। এই কারণে হয়তো অনেকে নিবন্ধন করার পরেও তাদের ডেট আসছে না।

তবে টিকাদান কেন্দ্রের কর্মকর্তারা বলছেন, সবসময় এই সিরিয়াল অনুসরণ করা সম্ভব হয় না। কারণ বিভিন্ন সুপারিশে অনেকের টিকা নেয়ার তারিখ এগিয়ে নিয়ে আসা হয়ে থাকে। হাতে কলমে এসএমএস পাঠানোর এই পদ্ধতিতে যদি কারও নাম একবার বাদ পড়ে যায়, তাহলে সেটি টের পাওয়ার সহজ উপায় নেই।

অন্যদিকে, টিকাদান কেন্দ্র মুগদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ডা. অসীম কুমার নাথ বলেছেন, ‘একটি কেন্দ্রের টিকা দেয়ার ক্ষমতা যদি হয় ১২০০, তাহলে তার অর্ধেক চলে যায় দ্বিতীয় ডোজ দিতে গিয়ে। বাকিদের প্রথম ডোজ টিকা দেয়া হলেও সেখানে অগ্রাধিকার পান আগে এসএমএস পাওয়া ব্যক্তিরা, বয়স্ক, বিদেশযাত্রী, নানাবিধ রোগে আক্রান্ত ব্যক্তিরা।’


বিডি প্রতিদিন / অন্তরা কবির 

এই বিভাগের আরও খবর